1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

‘টিকি-টাকা’ বনাম ‘টোটাল ফুটবল’

একে শুক্রবার, তার ওপর ১৩ তারিখ৷ গ্রুপ ‘বি’-র প্রথম খেলাতেই ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালের পুনরাবৃত্তি ঘটবে – অথবা ঘটবে না৷ ডাচ তরফে ‘ফাইভ-ম্যান ডিফেন্স’; আর স্পেনের কোচ বলছেন, ‘‘আমরা অন্যরকমও খেলতে জানি’’৷

Fußball WM Finale Spanien Niederlande Weltmeisterschaft Siegerehrung

ফাইল ফটো

চার বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার সোয়েটো-র সকার সিটিতে সেই ঐতিহাসিক ম্যাচ হয়েছিল: অবশ্য ম্যাচ না বলে প্রকাশ্য মারামারিও বলা চলতে পারে৷ ঐ একটি ম্যাচে ১৩টি হলদে কার্ড আর একটি লাল কার্ড৷ ঠিক সেই জুটিকেই যে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের দ্বিতীয় দিনে পরস্পরের মুখোমুখি হতে হবে, এটা কে ভাবতে পেরেছিল! তাই গ্রুপ ‘বি'-র ড্র-এর পর স্পেনের কোচ ভিসেন্তে দেল বস্কের ক্ষেদোক্তি: ‘‘আমি নিশ্চিত যে ওরা আমাদের মুখোমুখি হতে চায়নি, যেমন আমরাও ওদের মুখোমুখি হতে চাইনি৷''

না চাইলে কি হবে, আগামী শুক্রবারে ঠিক তাই ঘটতে চলেছে৷ তবে স্পেন এবার জেনেশুনেই দক্ষিণ আফ্রিকার বদলে দক্ষিণ অ্যামেরিকায় আসছে: সর্বশেষ চ্যাম্পিয়নস লিগে স্পেনের একাধিপত্য সত্ত্বেও কোচ দেল বস্কে জানেন – এবং বলেছেন যে, ‘ডেপ্থ' ছাড়া ‘পজেশনের' কোনো মানে হয় না, অর্থাৎ আক্রমণ করতে না পারলে শুধু বল নিজের কাছে রেখে কোনো লাভ নেই৷ প্রেসার দিয়ে বল ছিনিয়ে নিয়ে টিমকে গোষ্ঠী হিসেবে আক্রমণ চালাতে হবে৷

সোমবার ছিল ব্রাজিলে স্পেন দলের প্রথম পূর্ণ দিন৷ সেদিনই অ্যাটলেটিকো প্যারানেন্সের মাঠে একটি জোরালো ‘ট্রেনিং সেশন' চালিয়েছেন দেল বস্কে৷ টাইট স্পট থেকে ছোট ছোট পাসের মাধ্যমে কিভাবে বেরিয়ে আসা যায় – এই ছিল ট্রেনিং৷ সে ট্রেনিং আবার দেখেছেন শ'দুয়েক অ্যাক্রেডিটেড সাংবাদিক৷ কেন এই ট্রেনিং? ঐ পক্ষের কোচ লুইস ফ্যান খাল যে টোটাল ফুটবল মাথায় রেখে ৫-৩-২, অর্থাৎ রীতিমতো ‘ডিফেন্সিভ' খেলাবেন, সে খবর আসার পরেই বোধহয়৷

তা-তে ফ্যান খাল-এর কোনো আপত্তি নেই৷ বায়ার্ন মিউনিখের কোচ পদ থেকে তিনি যখন বিদায় নেন, তখন কি কেউ ভাবতে পেরেছিল, সেই ফ্যান খাল একদিন নেদারল্যান্ডস দলের দায়িত্ব নেবেন – এবং সে কাজ শেষ হওয়ার পর পরই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-এর কোচ হবেন? সব মিলিয়ে ইউরোপীয় ফুটবলে একজন প্রথম সারির ব্যক্তিত্ব৷ কাজেই সেই ‘ফ্যান খাল সিস্টেমে' এবার কতদূর কাজ হয়, ফুটবল দুনিয়া তা জানতে চাইবে বৈকি৷

Fußball WM Finale Spanien Niederlande Weltmeisterschaft Flash-Galerie

গ্রুপ ‘বি’-র প্রথম খেলাতেই ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালের পুনরাবৃত্তি ঘটবে – অথবা ঘটবে না

গত সপ্তাহে ঘানার বিরুদ্ধে নেদারল্যান্ডস ১-০ গোল জেতার পর ফ্যান খাল বলেছিলেন: ‘‘সমালোচকরা তো থাকবেই, তবে আমি সত্যিই এই প্রণালীতে বিশ্বাস করি, এবং বিশ্বাস করি, আমার প্লেয়াররা তা কাজে লাগাতে পারবে৷'' তবে ফ্যান খালের গোলন্দাজদের এই গ্রুপ ‘বি'-তে কোচ হর্গে সামপোলি-র সুচতুর চিলিয়ানদের মোহড়া নিতে হবে৷ আবার তাঁদের সামলানো গেলেও, বাকি থাকবে মরিয়া অস্ট্রেলিয়ানরা – যাঁদের ফিফা ব়্যাংকিং হলো ৫৯, অথবা বিশ্বকাপে হাজির ৩২টি দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন৷

দেল বস্কেকে মনে রাখতে হবে, বিগত ৫০ বছরে কোনো দেশ পর পর দু'টি বিশ্বকাপ জিততে পারেনি৷ এছাড়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইটালি ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকাতে গিয়েছিল মাথা উঁচু করে, কিন্তু প্রথম রাউন্ডেই হেরে বিদায় নিতে বাধ্য হয়৷ তবে কি জানেন: ‘আপসেট'-ই যদি না হলো, তাহলে আবার ফুটবল কিসের? আর বিশ্বকাপ মানেই তো বড় ‘আপসেট'৷ স্থানীয় সাট্টাওয়ালাদের জিগ্যেস করে দেখতে পারেন!

এসি/ডিজি (এএফপি, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন