1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

টাখেলেসের বাঁচার যুদ্ধ

এবারে বোধহয় দিন ফুরোলো টাখেলেস আর্ট হাউসের৷ অর্থাভাবে নিলামে উঠছে এটি৷ অথচ বার্লিনের পুরনো ইহুদি বসতির কাছে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ক্ষতচিহ্নের স্মৃতি বুকে দাঁড়িয়ে থাকা এই বাড়িটি দেখতে হাজারো পর্যটক ভীড় করেন এখনও৷

Tacheles Art House, Berlin

বার্লিনের টাখেলেস আর্ট হাউস

বছরে প্রায় ৪ লক্ষ মানুষ হবেন, যারা এই যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাড়িটি দেখতে আসেন৷ বার্লিনের এ'বাড়িটি একসময় একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর ছিল৷ যুদ্ধের ডামাডোলের পর বিশেষ করে বার্লিন প্রাচীরের পতনের পর এটি যেন ক্রমশ এক শিল্পের সূতিকাগারেই রূপ নিয়েছিল৷ টাখেলেসে গড়ে উঠেছিল প্রায় সত্তর জন শিল্পীর একটি অসাধারণ স্টুডিও কমপ্লেক্স৷

ত্রিশটি স্টুডিও গড়ে উঠেছে সেখানে৷ শিল্পীদের কেউ ভাস্কর, কেউ আলোকচিত্রী৷ ভাবা যায়! একই চৌহদ্দিতে এ যেন এক অনন্য সৃষ্টিশীলতার মেলা৷ ঠিক যেন এক স্মৃতিমেদুর শিল্পের প্রাণোচ্ছল গর্ভগৃহই হয়ে উঠেছিল এই যুদ্ধবিধ্বস্ত বাড়িটি৷ নব্বই দশকের গোড়ার দিকে, ‘বার্লিন ওয়াল' পতনের ঠিক পরপরই একদল শিল্পী ইহুদী সিনাগগের কাছে, ওরানিয়েনবুর্গারস্ট্রাসেতে অবস্থিত এই পোড়ো বাড়িটির দখল নিতে সচেষ্ট হন৷ একসময় নাৎসিরা ফরাসি যুদ্ধবন্দিদের এখানে আটকে রাখতো৷ শিল্পীরা পোড়ো বাড়িটির দখল নিয়ে এর নাম রেখেছিলেন - টাখেলেস, যার অর্থ হচ্ছে- সরাসরি কথা বলা৷

Flash-Galerie Tacheles Berlin

অর্থাভাবে এবার নিলামে উঠছে এ বাড়িটি

তাঁদের এই সাহসী পদক্ষেপ সেই আলুথালু টালমাটাল সময়টিতে নিজেকে গোছাতে বার্লিনকে সাহস যুগিয়েছিল৷ টাখেলেস খুব দ্রুত বিদেশি পর্যটক, ভবঘুরেদের দল, পড়তে আসা ছাত্রদের উষ্ণ ভীড়ে প্রাণ চঞ্চল হয়ে উঠলো৷ সবাই এখানে আসতো, শিল্পীদের সঙ্গে কথা বলতো৷ তাঁদের সিঁড়ি বেয়ে ওঠানামা পদশব্দে মুখরিত থাকতো টাখেলেসের গ্রাফিতি ভরা দেয়াল৷ অল্প সময়ের মধ্যেই পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হল টাখেলেস৷

কিন্তু টাখেলেসের আয়ু কমে এসেছে বলেই মনে হচ্ছে৷ সম্প্রতি হামবুর্গের রাস্ট্রীয় মালিকানাধীন এইচএসএইচ নর্ড ব্যাংক জানিয়েছে, তারা এই বাড়িটিকে নিলামে তুলতে যাচ্ছে৷ কারণ হিসেবে ব্যাংক জানিয়েছে, ঋণে ডুবে থাকা এর মালিকের পক্ষে আর টাখেলেসের বোঝা টানা সম্ভব হচ্ছে না৷ ৭০ মিলিয়ন ইউরোর ঋণে তিনি আকন্ঠ নিমজ্জিত৷

Flash-Galerie Tacheles

টাখেলেস রক্ষার প্রচেষ্টা হিসেবে বিশ্বের প্রায় পঁচাশি হাজার মানুষের স্বাক্ষর ইতোমধ্যেই সংগৃহীত হয়েছে

কিন্তু বার্লিনের একেবারে ঠিক বুকের ওপরে, প্রায় ২৩ হাজার বর্গমিটারের এই ঐতিহাসিক জায়গাটিতে যারা অলাভজনক আর্টহাউজটি চালাচ্ছেন, তারা এই নিলামের খবরে রীতিমত স্তম্ভিত৷ খোদ বার্লিনের প্রশাসনও এই ঐতিহাসিক আর্ট হাউজটিকে বাঁচাতে চাইছেন৷ কেননা এটি বার্লিন এর জন্য যুদ্ধের স্মৃতিবহ এক অন্যতম স্মারক৷

পঞ্চাশের দশকের শিল্পী আডলার৷ তিনি জানিয়েছেন, ইতিহাসে বহুবারই নিজেকে বাঁচাতে সক্ষম হয়েছে টাখেলেস, বহু দুর্দিনই গেছে, আজ আবারো তাকে বাঁচাতে সাহায্য প্রয়োজন৷ এ শুধু বার্লিনের জন্যই নয় বরং গোটা বিশ্বের শিল্পের প্রয়োজনেই টাখেলেসকে রক্ষা করা দরকার৷

বার্লিনের মেয়র ইতোমধ্যেই হামবুর্গের মেয়রকে অনুরোধ করেছেন যাতে এইচএসএইচ ব্যাংক টাখেলেস নিয়ে তাদের এই নিলামের পরিকল্পনাটি বাস্তবায়ন না করে৷

Bus im Hinterhof vom Tacheles

বার্লিনের প্রশাসনও এই ঐতিহাসিক আর্ট হাউজটিকে বাঁচাতে চাইছেন

বার্লিনের সংস্কৃতি বিষয়ক সচিব আন্দ্রে শ্মিৎস বলেছেন, টাখেলেসকে রক্ষা করতে হবে৷ আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি যাতে এর শিল্পীরা সেখানেই থাকতে পারেন৷ টাখেলেসের এক মুখপাত্র লিন্ডা সেরেনা বলেছেন, আমরা যদিও চাপের মধ্যে আছি৷ কিন্তু টাখেলেস রক্ষার আইনানুগ সমস্ত চেষ্টাই আমরা করবো৷ উল্লেখ্য, টাখেলেস রক্ষার প্রচেষ্টা হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন অংশের প্রায় পঁচাশি হাজার মানুষের স্বাক্ষর ইতোমধ্যেই সংগৃহীত হয়েছে৷

টাখেলেসের এই নিলাম ঠেকাতে পঁচাশি হাজার মানুষ ইতোমধ্যেই স্বাক্ষর করেছেন, হয়তো সামনে আরো লক্ষাধিক মানুষ টাখেলেস রক্ষার এই মানবিক আবেদনে স্বাক্ষর করবেন৷ বিশ্বযুদ্ধে বোমারু বিমানের নির্মম আঘাত সয়েও টাখেলেস টিকে ছিল৷ নতুন করে প্রাণে স্ফূর্তিতে জেগে উঠেছিল ফিনিক্সের মত, আজ পারবে কি?

প্রতিবেদন: হুমায়ূন রেজা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

ইন্টারনেট লিংক