1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

টক শো থেকে বিদায় নিলেন ল্যারি কিং

ল্যারি কিং, মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনএন আর ল্যারি কিং যেন অনেকটা সমার্থকের মতই হয়ে গিয়েছিলো৷ কিন্তু দীর্ঘ ২৫ বছরের ল্যারি কিং লাইভ থেকে এবার সরে দাঁড়ালেন ৭৭ বছর বয়সি উপস্থাপক৷

default

ল্যারি কিং

নিজ নামে করা শো'টি তিনি চালিয়েছেন সেই ১৯৮৫ সাল থেকে৷ গেরাল্ড ফোর্ড থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যেক প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ল্যারি কিং৷ ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট ইয়াসির আরাফাত থেকে শুরু করে প্লেবয় এর প্রতিষ্ঠাতা হিউ হেফনার, কে বাদ পড়েছে তাঁর কাছে? একবার মাইক টাইসনের সাক্ষাৎকার নেন তিনি রিং এর ভেতর ঢুকেই৷ বিগত আড়াই দশকে ল্যারি কিং লাইভের সুবাদে মার্কিন টিভি ইতিহাসে অন্যতম প্রতীকে পরিণত হয়েছেন ল্যারি কিং৷

সমালোচকরা বলেন, ল্যারি কিং এর উপস্থাপনা ছিল অনেক সোপের মত৷ তীক্ষ্ণ বাক্যবাণে কিংবা তীর্যক প্রশ্নে কাউকে ভড়কে দেওয়ার চেষ্টা করেননি কিং, বরং অনেকটা কথা বলার ধরণেই তিনি একের পর এক প্রশ্ন করে গিয়েছেন স্টুডিওতে উপস্থিত ব্যক্তিটিকে৷ আর এভাবেই অনেক সময় না বলা অনেক কথা বের করে এনেছেন তিনি দর্শকদের সামনে৷ ল্যারির প্রতি আস্থা থাকার কারণেই তাঁর শো'তে অনেক বেশি মানুষ এসে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন, কথা বলেছেন৷ সিএনএন এর শুরুর দিনগুলোতে এই আস্থাটিই ছিল সবচেয়ে বেশি জরুরি৷ এভাবে গণমাধ্যমের জগতে সিএনএনকে জনপ্রিয় করে তুলতে সহায়তা করেছেন কিং৷

বৃহস্পতিবার নিজের শেষ অনুষ্ঠানে অঢেল ভালোবাসা নিয়ে বিদায় হয়েছেন এই প্রবীণ উপস্থাপক৷ স্বয়ং প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এক ভিডিও বার্তায় ল্যারিকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন৷ তিনি বলেছেন, ল্যারি হচ্ছে সংবাদ মাধ্যমের অন্যতম বিশাল ব্যক্তিত্ব৷ ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর ও হলিউড তারকা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার তো দিনটিকে ল্যারি কিং ডে হিসেবে ঘোষণা করেন৷ এর বাইরে অজস্র ভক্ত ও শুভানুধ্যায়ীদের ভালোবাসা নিয়ে বিদায় নিয়েছেন আবেগে সিক্ত ল্যারি কিং৷

জানা গেছে, নতুন শো'তে হাজির হচ্ছেন ব্রিটেনের সাংবাদিক পিয়ার্স মর্গ্যান৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই