1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জোট সঙ্গী খুঁজছে নেদারল্যান্ডস-এর সরকার গঠনে উৎসাহী দলগুলো

সরকার গঠন নিয়ে এখন নেদারল্যান্ডস এ চলছে আলোচনা৷ দেড়শ আসনের সংসদে ৩১ আসন পেয়ে প্রথম হওয়া রাজনৈতিক দল লিবারেল পার্টি সরকার গঠন করতে জোট সঙ্গী খুঁজছে৷

default

রানী বিয়াট্টিক্সের সঙ্গে দেখা করেছেন নেতারা

সরকার গঠন নিয়ে এখন নেদারল্যান্ডস এ চলছে আলোচনা৷ দেড়শ আসনের সংসদে ৩১ আসন পেয়ে প্রথম হওয়া রাজনৈতিক দল লিবারেল পার্টি সরকার গঠন করতে জোট সঙ্গী খুঁজছে৷ এ ক্ষেত্রে তাদের আলোচনা হচ্ছে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইয়ান পেটার বাল্কেনেন্ডের ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্র্যাট এবং চরম দক্ষিণপন্থী দল পিভিভির সঙ্গে৷

হল্যান্ডে কে যে সরকার গঠন করবে তা কিন্তু বলা যাচ্ছে না৷ তবে প্রধানমন্ত্রী হতে চান ব্যবসায়ীদের সমর্থিত দল লিবারেল ভিভিডি পার্টির প্রধান মার্ক রুট্টে৷ তাঁর এই অভিলাসকে সামনে নিয়েই তিনি আজ দেখা করেছেন হল্যান্ডের রানী বিয়াট্টিক্স এর সঙ্গে৷ সকালেই তিনি প্রথাগতভাবে রানীর আশির্বাদের প্রত্যাশায় রাজপ্রাসাদে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন৷ নিয়ম অনুসারে তিনিই প্রধানমন্ত্রী হন, যখন তাঁর দল সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন লাভ করে এবং যদি সরকার গঠন করতে পারে৷ তবে রানী যে কেবল মার্ক রুট্টকেই দেখা দিয়েছেন, তা নয়৷ তিনি কথা বলছেন অপর দুই দল যথাক্রমে লেবার পার্টির প্রধান জব কোহেন এবং চরম ইসলাম বিরোধী দল পিভিভির খেয়ার্ট ভিল্ডার্সের সঙ্গে৷

বলে রাখা ভালো, নির্বাচনের সর্বশেষ ফলাফল অনুসারে লিবারেল ভিভিডি পার্টি পেয়েছে ৩১টি আসন, লেবার পার্টি পেয়েছে ৩০টি আসন৷ অন্যদিকে, পিভিভির আসন ২৪টি৷ অন্যদিকে, খুবই খারাপ ফলাফল করেছে প্রধানমন্ত্রী ইয়ান পেটারের ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্র্যাট৷ কিন্তু আপাতত এই দলটির সঙ্গেই লিবারেলের আলোচনা চলছে সরকার গঠনে৷

Flash-Galerie Niederlande Holland

কিন্তু তাদের সীমিত আসন সংখ্যা কোনক্রমেই সরকার গঠনে লিবারেলকে সহায়তা করবে না, প্রয়োজন আরও দলের সমর্থন৷ এ ক্ষেত্রে লিবারেলের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী দল লেবার-এর সঙ্গে জোট গঠনের আপাতত কোন সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না৷ সে ক্ষেত্রে তাদের হাতে রয়েছে মুসলিম বিদ্বেষী দল পার্টি ফর ফ্রিডম বা পিভিভি৷ আর তাই হয়তো দম্ভ করেই পিভিভি নেতা খেয়ার্ট ভিল্ডার্স বলেছেন, ‘‘আমাদেরকে কেউ পাশ কাটিয়ে যেতে পারবে না৷ আমরা নতুন সরকারের অংশিদারিত্ব চাই,''

যা হোক, সরকার গঠন নিয়ে দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করার জন্য রানী বিশেষ দূত নিয়োগ দিচ্ছেন৷ তাঁর মধ্যস্থতায় হবে আলোচনা, ঠিক করা হবে কোন দল কার সঙ্গে যাবে৷ আর দলগুলোর সেই সম্মতির ভিত্তিতেই গঠন করা হবে সরকার৷ আর এ জন্য দিন কয়েক সময় লাগবে বলেই মনে হয়৷ কারণ, নেদারল্যান্ডস এর নিয়ম অনুসারে নির্বাচনের সাতাশি দিনের মধ্যে সরকার গঠন করতে হবে৷ তবে বিশ্লেষকদের ধারণা, নির্বাচনে ত্রিশটি আসন পাওয়া লেবার পার্টিও ছোট ছোট দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে সরকার গঠন করতে পারে, এই সম্ভাবনাকেও উড়িয়ে দেয়া যায় না৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

সংশ্লিষ্ট বিষয়