1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জেলখানা ভরে আইনের শাসন নয়: কিরণ বেদী

ভারতের বহুল আলোচিত পুলিশ কর্মকর্তা কিরণ বেদী৷ বুধবার একদিনের জন্য ঢাকায় এসেছিলেন একটি সেমিনারে যোগ দিতে৷ ঢাকা ছাড়ার আগে তিনি কথা বলেন ডয়চে ভেলের সঙ্গে৷

default

কিরণ বেদী

দিল্লী পুলিশের কমিশনার ছিলেন৷ ছিলেন আইজি প্রিজন৷ পরে নিজেই পুলিশ বাহিনী থেকে ইস্তফা দিয়ে মানুষের সেবায় আত্মনিয়োগ করেন৷ ভারতের কুখ্যাত তিহার জেল সংস্কারের পুরোধা এই কিরণ বেদী৷

তাঁর মতে, গ্রেফতার করে জেলখানা ভরে ফেলা আইনের শাসন নয়৷ পুলিশও বিচারক৷ তাঁকে নিশ্চিত হয়ে গ্রেফতার করতে হবে৷ আইনের ভয় দেখানো, নির্যাতন করা কোন পুলিশের কাজ নয়৷ আর এটিই এখন বাংলাদেশ ও ভারতের পুলিশের প্রধান সমস্যা৷

Flash-Galerie Kiran Bedi besucht Bangladesch

ভারতের কুখ্যাত তিহার জেল সংস্কারের পুরোধা এই কিরণ বেদী

তিনি পুলিশের মানবাধিকার লংঘনের কথা স্বীকার বলেন, পুলিশকে তার সঠিক কাজটি সততা এবং দক্ষতার সঙ্গে করতে হবে৷ কোন লোভ আর ভয়-ভীতি তাকে গ্রাস করলে তার পুলিশে না থাকাই উচিত৷ তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের পুলিশ মানবাধিকার লংঘন করে লোভে পড়ে, রাজনৈতিক চাপের মুখে অথবা ব্যক্তিগত স্বার্থে৷

কিরণ বেদী বলেন, পুলিশ যদি রাজনৈতিক নেতাদের চাপের মুখে নতি স্বীকার করে, তাহলে এটা তাদের ব্যর্থতা৷ প্রাতিষ্ঠানিকভাবে একটি প্রশিক্ষিত বাহিনীর সদস্যদের অপ্রাতিষ্ঠানিক রাজনৈতিক নেতাদের কাছে আত্মসমর্পণ দুর্ভাগ্যজনক৷

কিরণ বেদী ভারতীয় পুলিশ থেকে পদত্যাগের কারণও জানান, তিনি বলেন, তার চেয়ে দু'বছরের জুনিয়রকে পুলিশের আইজি করায় তিনি মনে করেছেন পুলিশে তাকে প্রয়োজন নেই৷ তাই তিনিও স্বেচ্ছায় বিদায় নিয়েছেন৷

কিরণ বেদী জাতিসংঘ মহাসচিবের পুলিশ উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করেছেন৷ প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি ভুল পার্কিং করায় জরিমানা করে তিনি আলোচিত হয়েছেন৷ পেয়েছেন এশিয়ার নোবেল খ্যাত ম্যাগসেসাই পুরস্কার৷ এই কিরণ বেদী একজন সদা হাস্যোজ্জ্বল মানুষ৷ প্রাণবন্ত এবং অমায়িক৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়