1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জেপিসি নিয়ে সরকারও বিরোধী পক্ষের পাঞ্জা কষা

টেলিকম দুর্নীতির তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবি নিয়ে ভারত সরকার ও বিরোধীপক্ষের অনমনীয় অবস্থানের ফলে সংসদের অচলাবস্থা আজও অব্যাহত৷ তা সত্ত্বেও সংসদের অধিবেশন অনির্দ্দিষ্টকালের জন্য মুলতুবি করা হবেনা৷

default

দুর্নীতির তদন্ত নিয়ে বেশ ঝামেলায় আছেন মনমোহন

নির্ধারিত ১৩ই ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে সংসদ, বলেছেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী পবন বনশাল৷ টু-জি স্পেকট্রাম কেলেঙ্কারির তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটির দাবিতে বিরোধীপক্ষ যেমন মরিয়া তেমনি সরকারও তা না মানতে অনড়৷ এটা যেন হয়ে দাঁড়িয়েছে এক প্রেস্টিজের লড়াই৷ ফলে আজ নিয়ে ১০দিন সংসদে কোন কাজকর্ম হয়নি৷আজও অধিবেশন শুরু হতে না হতেই সংসদের উভয় সভায় হৈ হট্টগোলের ছবিটা একই রকম৷ নিম্নকক্ষ লোকসভার স্পিকার মীরাকুমারের মন্তব্য অধিবেশন চলতে দেবার জন্য আবেদন রেখেছি৷ বলেছি ঐ ইস্যু নিয়ে সংসদে আলোচনা হোক৷

সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী পবন বনশাল সংসদের অধিবেশন অনির্দ্দিষ্টকালের জন্য মুলতুবি রাখার সম্ভাবনা খারিজ করে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, সরকার বিরোধীপক্ষকে বোঝাবার চেষ্টা করে যাচ্ছে৷ কিন্ত অধিবেশন চলবে নির্ধারিত তারিখ অর্থাৎ ১৩ই ডিসেম্বর অবধি৷ তাঁর মতে, যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবির পেছনে বিরোধীপক্ষের উদ্দেশ্য অন্য৷ তারা চাইছে প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রীদের তলব করতে৷ সেটা মানা যায়না, বলেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী পবন বনশাল৷ অর্থমন্ত্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় বলেন, সমাধানের চেষ্টা করেছিলাম, পারিনি৷এখনও চেষ্টা করছি দেখা যাক৷

জেপিসি কী ? জেপিসি হলো যৌথ সংসদীয় কমিটি৷ কোন বিশেষ কারণে গঠিত দেশের সবথেকে ক্ষমতাশালী তদন্ত প্যানেল৷ জেপিসি গঠিত হয় সংসদের উভয় সভার সাংসদ নিয়ে৷ কমিটির চেয়ারম্যান হন শাসক দলের কোন সাংসদ৷ এই কমিটি তার ক্ষমতাবলে প্রধানমন্ত্রী থেকে মন্ত্রী , আমলা বা যে-কোন ব্যক্তিকে তলব করতে পারে৷ সেটা কোন সরকারই চায়না৷ চাওয়া মানে দোষ কিছুটা কবুল করা৷ অতীতে মোট চারবার যৌথ সংসদীয় কমিটি হয়৷ বফর্স, শেয়ার কেলেঙ্কারি এক ও দুই এবং কোকাকোলায় কীটনাশক ইস্যুতে৷ কিন্তু কোনটাতেই তেমন কিছু হয়নি৷

এই যে দিনের পর দিন সংসদ অচল করে রাখা হচ্ছে,এতে জনগণের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে প্রতি মিনিটে ২৬ হাজার টাকা অর্থাৎ গত ১০দিনে হয়েছে ৬১ কোটি টাকা৷এবিষয়ে সুশীল সমাজ কী বলছে ? বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক অমূল্য গাঙ্গুলী ডয়েচে ভেলেকে বল্লেন, আমাদের দেশের সাংসদ ও বিধায়করা সংসদে ও বিধানসভায় মাঝেমধ্যে যে আচরণ করেন, তাতে মনে হয় সংসদীয় আচার আচরণ এরা রপ্ত করেননি৷ তার একটা কারণ সাংসদদের একটা অংশের ক্রিমিনাল ব্যাকগ্রাউন্ড আছে৷ সংসদের বর্তমান অচলাবস্থা কাটাতে উনি দুপক্ষের মধ্যে একটা আপোষের কথা বলেন৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক