1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জেদ্দায় মার্কিন কনস্যুলেটের কাছে বিস্ফোরণ

কনস্যুলেটের গেট থেকে মাত্র ২০ মিটার দূরে আত্মঘাতী বোমারু নিজেকে উড়িয়ে দেয়৷ বিস্ফোরণে আহত হন দু'জন নিরাপত্তা কর্মী৷ বহুবছর পরে আবার সৌদি আরবে বিদেশিদের আক্রমণের প্রচেষ্টা করা হলো৷

জেদ্দায় মার্কিন বাণিজ্য দূতাবাসের ঠিক উল্টো দিকে ড. সুলেইমান ফকি হাসপাতাল৷ রবিবার রাতে স্থানীয় সময় সোয়া দু'টো নাগাদ অজ্ঞাত আত্মঘাতী বোমারু তার বিস্ফোরণ ঘটায়৷ দৃশ্যত সে হাসপাতালের পার্কিং লটে একটি ট্যাক্সি থেকে নামার সময় নিরাপত্তা কর্মীদের সন্দেহ হয়৷ নিরাপত্তা কর্মীরা তার দিকে এগোতে শুরু করলে পর আততায়ী বিস্ফোরণ ঘটায়৷ পরে ‘সবক' নামধারী অনলাইন সংবাদপত্রে তার ছিন্নবিচ্ছিন্ন দেহের ছবি প্রকাশিত হয়েছে৷ ট্যাক্সির কাছে পার্ক করা অপর একটি গাড়ির খোলা দরজায় বিস্ফোরণের ছররা লাগার দাগ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে৷

এক প্রত্যক্ষদর্শী রয়টার্স সংবাদ সংস্থাকে অকুস্থলে আরো তিনটি বিস্ফোরণের কথা বলেছেন৷ দৃশ্যত পুলিশ কয়েকটি ‘নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ' ঘটিয়ে অশনাক্তকৃত বস্তু বা পদার্থ অপসারণ করেছে৷ প্রত্যক্ষদর্শীটি রয়টার্সকে যে ভিডিও পাঠিয়েছেন, তা-তে দেখা যাচ্ছে, পুলিশকর্মীরা কিভাবে গাড়ির পিছনে লুকোচ্ছেন ও হাত দিয়ে কান ঢাকছেন৷

মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট জানিয়েছে যে, তারা সৌদি আরবের জেদ্দায় বোমা বিস্ফোরণ সম্পর্কে অবহিত ও দূতাবাস প্রধানের অধস্তন সব কর্মচারী নিরাপদ৷

রোজা শুরু হওয়ার স্বল্প আগে আততায়ী হানা দেওয়ার চেষ্টা করে৷ তদন্তকারীরা তাকে শনাক্ত করার চেষ্টা করছেন৷ আক্রমণের জন্য কোন গোষ্ঠী বা সংগঠন দায়ী, সে বিষয়ে আপাতত কিছু জানা নেই, তবে ২০১৪ সালের শেষ যাবৎ ইসলামিক স্টেট বা আইএস সৌদি আরবে একাধিক আক্রমণ চালিয়েছে৷ ২০১৫ সালের মার্চ মাসে রিয়াধে মার্কিন দূতাবাস ও সেই সঙ্গে জেদ্দা ও ধাহরান-এর মার্কিন কনস্যুলেটগুলি কয়েকদিনের জন্য বন্ধ রাখা হয়, যার কারণ হিসেবে ‘‘নিরাপত্তা জনিত উদ্বেগের'' কথা বলা হয়েছিল৷

এসি/ডিজি (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়