1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘জেএমবি সদস্যদের অপহরণের পেছনে যুবলীগ’

পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানে বিস্ফোরণের তদন্ত করতে গিয়ে বাংলাদেশে জেএমবির বড় ধরনের বোমা হামলার পরিকল্পনার তথ্য উদ্ঘাটন করেছেন ভারতের গোয়েন্দা৷ ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টুয়েন্টি ফোর তাদের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে৷

Bangladesch Aktivist Hizb-ut-Tahrir Dhaka Zusammenstöße Polizei

ফাইল ছবি

গোয়েন্দা সংস্থা এনআইএ-র প্রাথমিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে নয়া দিল্লির এক কর্মকর্তা মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, জঙ্গি দমনে শেখ হাসিনা সরকারের পদক্ষেপের প্রতিশোধ নিতেই এই পরিকল্পনা করছে জেএমবি৷ ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট বাংলাদেশ জুড়ে একযোগে বোমা হামলা চালিয়ে আলোচনায় উঠে আসা জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি) পরে নিষিদ্ধ হয়৷ সংগঠনটির শীর্ষনেতাদেরও ঝোলানো হয় ফাঁসিতে৷

সম্প্রতি ময়মনসিংহে পুলিশ মেরে জেএমবির কারাবন্দি ৩ নেতাকে ছিনিয়ে নেওয়া সংগঠনটির আবার সক্রিয় হয়ে ওঠার ইঙ্গিত দিলেও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও পুলিশের কর্তাব্যক্তিরা বলছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে৷ এর মধ্যেই বাংলাদেশ লাগোয়া ভারতের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার খাগড়াগড়ে দুজন নিহত হলে জেএমবির বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে আবার৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে৷

টুইটারে দেবজিৎ অধিকারী লিখেছেন, চট্টগ্রাম আদালত ভবনে বোমা হামলার হুমকি দিয়ে বার কাউন্সিলের সদস্য মানস কুমারকে ফোন দিয়েছে জেএমবি সদস্যরা৷

সেলিম সাঈদ লিখেছেন,বর্ধমান হামলায় সন্দেহভাজনদের খোঁজা হচ্ছে৷ এ সম্পর্কিত একটি খবর তিনি শেয়ার করেছেন৷

চট্টগ্রাম বার কাউন্সিলের সদস্যদের ফোনে হুমকি দেয়া প্রসঙ্গে দ্বিজরাজ দে লিখেছেন, বাংলাদেশের পুলিশ সেই ফোন নম্বর বের করতে পারলনা৷ এ থেকেই বোঝা যায় ডিজিটাল বাংলাদেশের কি অবস্থা!

অনন্ত আকাশ লিখেছেন চট্টগ্রাম আদালতে বোমার খোঁজ করতে গিয়ে অর্থের সন্ধান মিলেছে৷

জিয়াউর রশীদ লিখেছেন, জেএমবি সদস্যকে অপহরণের পেছনে রয়েছে যুবলীগ কর্মী৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়