1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

জীবন বদলে দেবে, না প্রাণ নেবে?

রাজনীতিবিদরা একে বলছেন মাদ্রিদের জীবনধারা বদলে দেয়ার প্রকল্প৷ যদিও ভাড়ায় ইলেকট্রিক সাইকেল চালুর এই সিদ্ধান্ত সড়কে দুর্ঘটনার ঝুঁকি অনেক বাড়িয়ে দেবে বলে মনে করছেন অনেকে৷

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, চলতি মাসেই বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় দেড়হাজার মোটরচালিত বাইসাইকেল নামছে স্পেনের রাজধানীতে৷ বার্সেলোনা, প্যারিস ও লন্ডনের মতো মাদ্রিদেও পরিবেশবান্ধব বাহন জনপ্রিয় করতে এই উদ্যোগ৷

‘বিসিমাড' নামের এই প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিকভাবে মাদ্রিদজুড়ে সাজানো হচ্ছে ১২০টি সাইকেল স্ট্যান্ড, যেখানে ইলেকট্রিক সাইকেল ভাড়া পাওয়া বা জমা দেয়া যাবে৷ ভাড়া গুনতে হবে ঘণ্টা হিসাবে৷ এমনই একটি স্ট্যান্ডে নতুন ই-বাইকগুলোর দিকে তাকিয়ে ৭৮ বছর বয়সী আন্তোনিও মার্তিন বললেন, ‘‘পরিবেশ বলুন, বা ট্রাফিক ব্যবস্থা – সব কিছুর জন্যই এটা চমৎকার৷ আর আবহাওয়া যখন ভাল থাকে বাইসাইকেলের তুলনা হয় না৷''

অবশ্য তার সঙ্গে একমত নন ৫৪ বছর বয়সী ট্যাক্সি চালক খুয়ান গুতিয়েরেস৷ তার মতে, মাদ্রিদের অপরিসর সড়কে এতো বেশি সাইকেলের আনাগোনা বিপদ ডেকে আনবে৷ ‘‘আর সবার মতো মাদ্রিদের মানুষও নিজেদের জীবনকে ভালবাসে৷ এই সরু সরু রাস্তায় সাইকেলে চড়া ভয়ঙ্কর ঝুঁকির কাজ৷... এক গাড়ির ধাক্কায় পড়ে গিয়ে আপনি সঙ্গে সঙ্গে মারা না গেলেও পরের গাড়ি নিশ্চিতভাবে আপনাকে চাপা দেবে৷''

এ প্রকল্প সফল করতে হলে গাড়ি চালক, পথচারী ও সাইক্লিস্টদের যে নতুন করে অভ্যস্ত হতে হবে, মাদ্রিদের মেয়র আনা বোতেলিয়াও তা মানছেন৷ সবাইকে সচেতন করতে ইতোমধ্যে বিশেষ প্রচারাভিযানও শুরু করেছে নগর কর্তৃপক্ষ৷ আনা বোতেলিয়াও বলেন, ‘‘মাদ্রিদের কেন্দ্রে সাইকেল চালানো অনেকের কাছেই স্বপ্নের মতো একটি বিষয়, যা কখনো বাস্তবে সম্ভব বলে তারা বিশ্বাস করতেন না৷ আমরা তা সম্ভব করতে চলেছি৷ আমরা মানুষের চলাফেরার অভ্যাস বদলে দিতে চাই, যাতে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন একইসঙ্গে রাস্তায় চলতে পারে৷''

অবশ্য মোটরচালিত এসব দ্বিচক্রযান মাদ্রিদের প্রতিদিনের জীবনে আদৌ বড় কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে বলে মনে করেন না আইইএসই বিজনেস স্কুলের পাসকাল বেরনে৷ তিনি বলেন, মাদ্রিদের মানুষ সাইকেল পছন্দ করলেও ঝুঁকির কথা ভেবে খুব একটা চড়তে চান না৷ সাম্প্রতিক সময়ে সাইকেলের বিক্রি অনেক বাড়লেও অধিকাংশ সড়কে আলাদা ‘বাইক লেন' না থাকায় রাস্তায় সাইকেল দেখা যায় খুবই কম৷ নগর কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৩ সালে মাদ্রিদে সাইকেলের ব্যবহার বেড়েছে ১৭ শতাংশ৷ স্পেনের রাজধানীতে বর্তমানে সাইকেলের লেন আছে ৩০০ কিলোমিটারের মতো৷ এর পরিমাণ আরো ৭০ কিলোমিটার বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে৷

বার্সেলোনা ও প্যারিসের ‘ভেলিবস' এবং লন্ডনের ‘বরিস বাইকসের' আদলেই মাদ্রিদে ‘বিসিমাড' পরিচলনার পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ৷ স্প্যানিশ প্রতিষ্ঠান বোনোপার্ক ২৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে এই মোটরচালিত বাইক তৈরি করে দিচ্ছে৷

জেকে / এসবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন