1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

জীবন ফিরে পেল চীনের দুষ্টু খরগোশ

দীর্ঘ ১৪ দিন ধরে নিষ্ক্রিয় থাকায় ধরে নেয়া হয়েছিল চন্দ্রপৃষ্ঠে থাকা চীনা রোবট ‘ইউতু' অর্থাৎ ‘দুষ্টু খরগোশ'-এর মৃত্যু হয়েছে৷ কিন্তু বৃহস্পতিবার চীনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ইউতু জীবন ফিরে পেয়েছে৷

চীনের চন্দ্র অভিযান কর্মসূচির মুখপাত্র পি ঝৌ রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ধীরে ধীরে কর্মক্ষমতা ফিরে পাচ্ছে দুষ্টু খরগোশ৷ রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া পি ঝৌ-এর বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ২৫ জানুয়ারি চান্দ্র রাত্রিতে প্রচণ্ড ঠান্ডায় শীতল ঘুমে ঢলে পড়েছিল খরগোশটি৷ এরপর বিজ্ঞানীদের প্রচেষ্টায় বৃহস্পতিবার রোববটির ‘স্বাভাবিক বার্তা গ্রাহক কার্যকারিতা' পুনঃস্থাপন করা হয়৷ এর ফলে রোবটটির সাথে তাঁরা যোগাযোগ স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন৷ তবে এটিকে পুরোপুরি ঠিক করতে এখনো কাজ করছেন প্রকৌশরীরা৷ বিজ্ঞানীরা খুঁজে দেখছেন কি কারণে এটির যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিয়েছিল৷

Kamera Soloshot

রোবটটির ‘স্বাভাবিক বার্তা গ্রাহক কার্যকারিতা' পুনঃস্থাপন করা হয়েছে

পি জানান, অস্বাভাবিক কোনো কারণে রোবটটি ঘুমিয়ে পড়েছিল৷ এর আগে, মহাকাশ কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন যে, চন্দ্র পৃষ্ঠের জটিল পরিবেশের কারণে সৌরশক্তিতে চালিত রোববটি তার শক্তি হারিয়ে ফেলেছে৷ তবে এর কারণ ব্যাখ্যা করতে পারেননি তাঁরা৷ আন্তর্জাতিক মহাকাশ বিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলছেন, রোবটটির সৌর প্যানেলের সাথে যুক্ত যেসব ইলেকট্রিক মোটর রয়েছে, সেগুলোর ত্রুটির কারণেই এমনটা হয়েছে৷

গত বছরের ১ ডিসেম্বর ইউতু চাঁদের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে এবং চন্দ্রপৃষ্ঠে এটি সফলভাবে অবতরণ করে ১৪ ডিসেম্বর৷ সৌরশক্তিতে চালিত রোবটটির ছয়টি চাকা রয়েছে এবং এর ওজন ১২০ কেজি৷ এর সাথে যুক্ত রয়েছে ২০ কিলোগ্রামের রোবটিক বাহু, যেটি মাটি খুড়তে সক্ষম৷ তিন মাস ধরে চন্দ্র পৃষ্ঠ থেকে বিভিন্ন উপাত্ত সংগ্রহ করে তা পৃথিবীতে পাঠানোই রোবটটির কাজ৷ চীনের পৌরাণিক কাহিনিতে চন্দ্র পরীর পোষা খরগোশের নাম ইউতু৷ তাই রোবটটির নাম রাখা হয়েছে ঐ নামে৷

এপিবি/ডিজি (এপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন