1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জীবজন্তু ভালোবাসার কোনো বয়স নেই

ব্রিয়া মেয়েটির জন্ম ২০০৬ সালে৷ ইতিমধ্যেই সে ছবি আঁকার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রজাতির বিপন্ন জীবজন্তুকে বাঁচাতে চায়, ছবি বিক্রির টাকা দেয় পরিবেশ সংরক্ষণকারীদের৷ ডিডাব্লিউ-র ব্রিয়া-র সঙ্গে আলাপচারি৷

ডিডাব্লিউ: ব্রিয়া, তোমার এই সব পরিকল্পনা এলো কোথা থেকে?

ব্রিয়া: আমি আর আমার মা বিপন্ন প্রজাতির জীবজন্তুদের সম্বন্ধে পড়ছিলাম৷ আমার বিশ্বাসই হচ্ছিল না, কত রকমের জীবজন্তু আজ নিশ্চিহ্ন হবার মুখে৷ আমার খুব খারাপ লেগেছিল৷ তাই ভাবলাম, আমি কিছু একটা করবো৷ তখনই আমি ঠিক করি যে, আমি বিপন্ন প্রজাতির জীবজন্তুদের ছবি আঁকব, তারপর ছবিগুলো বেচে, সেই টাকা দিয়ে ওদের বাঁচাব৷

এ'পর্যন্ত তুমি যে সব ছবি এঁকেছো, তার মধ্যে কোনটা তোমার সবচেয়ে ভালো লাগে?

‘‘বিগ ব্লু'' হলো আমার সবচেয়ে প্রিয় ছবি৷ ওর মানে নীল তিমি৷ ওটা আমার ফেবারিট কেননা আমার তিমি মাছের মুখটা খুব ভালো লাগে৷

Deutschland - Brias Tierbilder

ব্রিয়ার সবচেয়ে পছন্দের ছবি এটি, নাম ‘‘বিগ ব্লু''

আর তোমার সবচেয়ে প্রিয় জন্তু?

আমার প্রিয় জন্তু হল চিতাবাঘ৷ কেননা ওদের মুখের খুঁটিনাটি আমার খুব ভালো লাগে৷

তুমি আঁকা পছন্দ করো কেন?

আমি অ্যাক্রিলিক রং পছন্দ করি কেননা ওটা বেশ পুরু আর জ্বলজ্বলে, আর আমি ঐ রং দিয়ে খুঁটিনাটি আঁকতে পারি৷ আমার আঁকতে খুব ভালো লাগে৷

তুমি তোমার ছবির প্রেরণা পাও কোথা থেকে? তুমি কি ফটো থেকে আঁকো, নাকি চিড়িয়াখানায় যাও?

বই-এর ছবি থেকে প্রেরণা পাই, ইন্টারনেটে খোঁজ করি, ছবি দেখি৷

কোনটা আঁকতে সবচেয়ে মজা লাগে আর কোনটা আঁকা সবচেয়ে শক্ত?

চোখ আঁকা খুব শক্ত, কিন্তু সেটাই আমার সবচেয়ে ভালো লাগে৷

Deutschland - Brias Tierbilder

আগামী ১০ বছরে ৩,০০০ ছবি আঁকার পরকল্পনা ব্রিয়ার

কি করে জানো, এর পরে কোন জন্তুর ছবি আঁকবে?

খোঁজ করে বার করি৷ আমার পরের ছবিটা হবে একটা সাদা ময়ূর৷

তুমি ছবি আঁকা থেকে তোমার যে রোজগার হয়, তা ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর অ্যানিমাল ওয়েলফেয়ার-কে দাও৷ সেটা কেন?

আমার ইফ-কে পছন্দ কেননা ওরা সারা পৃথিবীতে জীবজন্তুদের সাহায্য করে৷ ওদের একটা ছোটদের আঁকার প্রতিযোগিতাও আছে৷ এছাড়া ছোটদের জীবজন্তুদের সম্পর্কে জানবারও ব্যবস্থা আছে৷

তুমি কি শিল্পী হতে চাও?

আমি বড় হয়ে একজন নাম-করা শিল্পী হতে চাই৷

যারা এই সাক্ষাৎকারটি পড়বেন, তাদের তুমি কী বলবে?

জীবজন্তুরা ছাড়া আমরাও থাকব না৷ আমাদের সকলেরই এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকার অধিকার আছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক