1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা কাটেনি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন তিনদিন ধরে তাঁর কার্যালয়ে অবরুদ্ধ আছেন৷ তিনি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত শিক্ষকদের একাংশ তাঁকে অবরুদ্ধ রাখার কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন৷

আরেক গ্রুপ শিক্ষক এই অবরোধ তুলে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছেন৷ এদিকে, উপাচার্য বলছেন রাজনৈতিক কারণে তাঁর বিরুদ্ধে আন্দোলন করছেন কতিপয় শিক্ষক৷

আন্দোলনের মুখেই এক বছর আগে পদত্যাগ করেছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. শরীফ আখতারুজ্জামান৷ আর তাঁর জায়গায় গত বছরের ২০ জুলাই উপাচার্যের দায়িত্ব নেন অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন৷ দায়িত্ব নেয়ার এক বছরের মাথায় তিনিও আন্দোলনের মুখে পড়েছেন৷ ‘সাধারণ শিক্ষকদের' ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের একাংশ গত বুধবার থেকে তাঁর পদত্যাগের দাবিতে তাঁকে তাঁর কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন৷ তিনি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত এই অবরোধ চলবে বলে ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন ‘সাধারণ শিক্ষকদের' মুখপাত্র অধ্যাপক ড. কামরুল আহসান৷ তিনি বলেন ১২ দফা অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁরা উপাচার্যের পদত্যাগ চান৷ এরমধ্যে গুরুতর তিনটি অভিযোগ হলো ছাত্র ভর্তিতে অনিয়ম, শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম এবং শিক্ষকদের ওপর হামলাকারী ছাত্রদের রাজনৈতিক কারণে বিচার না করা৷ তিনি দাবি করেন বর্তমান উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্র-শিক্ষকদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন৷

এর জবাবে উপাচার্য উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন অবরুদ্ধ অবস্থায় ডয়চে ভেলেকে টেলিফোনে জানান, তাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগগুলো ভিত্তিহীন৷ এর আগে তিনি এই শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করে অভিযোগের সন্তোষজনক জবাব দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, মূলত সরকারের শেষ সময় বিএনপি ও জামায়াতপন্থী শিক্ষকরা এই তথাকথিত আন্দোলনে নেমেছেন অস্থিতিশীল অবস্থা সৃষ্টি করতে৷ তাঁদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন এর আগে পদত্যাগে বাধ্য হওয়া উপাচার্যের কিছু অনুসারী৷ তিনি বলেন এই অযৌক্তিক আন্দোলনের মুখে তিনি পদত্যাগ করবেন না৷ তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ বললে তিনি পদত্যাগে প্রস্তুত আছেন বলে জানান৷

এদিকে ‘শিক্ষক মঞ্চের' ব্যানারে আরেক গ্রুপ শিক্ষক উপাচার্যের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন৷ তাঁরা অবরোধ প্রত্যাহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর আহ্বান জানিয়েছেন৷ তাঁদের মুখপাত্র অধ্যাপক ড. নাসিমা আখতার হোসেন ডয়চে ভেলেকে জানান রাজনৈতিক কারণে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন হচ্ছে৷ তাঁরা যে অভিযোগ তুলেছে তার আসলে কোনো ভিত্তি নেই৷ কারণ অভিযোগের তদন্ত কমিটিতে আন্দোলনকারী শিক্ষকরাও আছে৷ তাঁরাই তদন্ত শেষ না করে ঝামেলা পাকাচ্ছেন৷ আর তাঁরা যেসব দাবি তুলেছে তা পূরণের জন্য উপাচার্যকে বলতে পারেন৷ উপাচার্যের পদত্যাগে কি সেসব দাবি পূরণ হবে? তিনি বলেন কিছু শিক্ষক দলীয় কারণে বারবার আন্দোলন করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি ‘প্রোবলেম ইউনিভার্সিটি'তে পরিণত করেছে৷ এতে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসন বিঘ্নিত হচ্ছে৷

উপাচার্যসহ শিক্ষকদের সব পক্ষই শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন৷ আন্দোলনকারী শিক্ষকরা জানান শিক্ষামন্ত্রী সংকট নিরসনে তাঁদের সঙ্গে যেকোনো সময়ে বৈঠকে বসবেন বলে জানিয়েছেন৷ তবে তাঁরা মনে করেন উপচার্যের পদত্যাগ ছাড়া আর কোনো সমাধান নেই৷ আর উপাচার্য শিক্ষামন্ত্রীর বরাত দিয়ে বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য শিক্ষামন্ত্রীকে দ্রুত ক্যাম্পাসে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর ব্যবস্থা করতে বলেছেন৷ তাঁকে পদত্যাগ করতে বলা হয়নি৷

এদিকে বিশ্ববিদ্যায়ের ছাত্ররা উপচার্যের পদত্যাগে শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন৷ তবে তাঁদের সবার দাবি দ্রুত ক্যাম্পাসে শিক্ষার পরিবেশ ফিরয়ে আনা হোক৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়