1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মান সেনাবাহিনীর আরো একজন গ্রেপ্তার

ধৃত ব্যক্তি নাকি বুন্ডেসভের-এর লেফটেন্যান্ট ফ্রাঙ্কো এ.-কে একটি ‘হিট লিস্ট' তৈরি করতে সাহায্য করেছিল৷ সে তালিকায় হালের আইনমন্ত্রীর নামও নাকি ছিল৷ ধৃত ব্যক্তিও জার্মান সেনাবাহিনীর সদস্য৷

ধৃত ব্যক্তি নাকি বুন্ডেসভের-এর লেফটেন্যান্ট ফ্রাঙ্কো এ.-কে একটি ‘হিট লিস্ট' তৈরি করতে সাহায্য করেছিল৷ সে তালিকায় হালের আইনমন্ত্রীর নামও নাকি ছিল৷ ধৃত ব্যক্তিও জার্মান সেনাবাহিনীর সদস্য৷

২৭ বছর বয়সি ম্যাক্সিমিলিয়ান টি. ‘‘জাতীয় নিরাপত্তার উপর একটি গুরুতর আক্রমণের'' পরিকল্পনা করছিল বলে জানিয়েছে কার্লসরুহের ফেডারাল কৌঁসুলির দপ্তর৷ তাকে পশ্চিম জার্মানির কেল শহরের কাছে ধরা হয় বলে খবর দিয়েছে ‘ডের স্পিগেল' সংবাদপত্র৷ ‘স্পিগেল'-ই প্রথম ম্যাক্সিমিলিয়ান টি.-র গ্রেপ্তারের খবর দেয়৷

ম্যাক্সিমিলিয়ান টি. ‘চরম দক্ষিণপন্থি আদর্শের' বশবর্তী হয়ে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কোনো বড় সহিংসতার পরিকল্পনা করছিল বলে ফেডারাল কৌঁসুলির দপ্তরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে৷ সে দৃশ্যত লেফটেন্যান্ট ফ্রাঙ্কো এ.-র সহযোগী ছিল৷ ফ্রাঙ্কো বহিরাগত বিদ্বেষের বশে আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা নিয়ে সিরীয় উদ্বাস্তু হিসেবে নিজের নাম লিখিয়েছিল৷ গত এপ্রিল মাসের শেষে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ তারপর পরই মাটিয়াস এফ. নামের এক ২৪ বছর বয়সি ছাত্রকে ফ্রাঙ্কোর সহযোগী হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়৷

‘হিট লিস্টে' আইনমন্ত্রীর নাম

এই তিন অভিযুক্ত দৃশ্যত একটি বা একাধিক সন্ত্রাসী আক্রমণ চালিয়ে তা ইসলামপন্থি জঙ্গিদের নামে পাচার করার পরিকল্পনা করছিল৷ তিনজনে মিলে যে সব বামঘেঁষা রাজনীতিক অভিবাসন সমর্থন করেন, তাদের একটি ‘হিট লিস্ট' তৈরি করে, যে হিট লিস্টে সাবেক জার্মান প্রেসিডেন্ট ইওয়াখিম গাউক ও বর্তমান আইনমন্ত্রী হাইকো মাস-এর নামও ছিল৷

‘স্পিগেল' নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সূত্রে জানায় যে, ফ্রাঙ্কো এ., মাটিয়াস এফ. ও ম্যাক্সিমিলিয়ান টি.-র মধ্যে অনলাইন চ্যাট থেকে তাদের মনোভাব ও সহিংসতার প্রস্তুতি স্পষ্টভাবে জানা যায়৷ এক তদন্তকারী কর্মকর্তা পত্রিকাটিকে বলেন যে, দলের প্রত্যেক সদস্য শপথ নেয় যে, ‘‘তারা তাদের আদর্শের জন্য নিহত করতে রাজি''৷

তিন অভিযুক্ত যে বাস্তবিক কী করার পরিকল্পনা করছিল, সে বিষয়ে কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত নয়৷ তবে মাটিয়াস এফ.-এর বাড়িতে বুন্ডেসভের থেকে সরানো প্রায় ১,০০০ তাজা কার্তুজ পাওয়া গিয়েছে৷

গোটা ঘটনাটি থেকে যে দু'টি প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, তা হলো, জার্মান সেনাবাহিনীতে ডানপন্থি চেতনা ঠিক কতদূর ছড়িয়েছে? এবং জার্মানিতে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করার পদ্ধতিতে কি এবং কত ধরনের ফাঁক আছে যে, ফ্রাঙ্কো এ. শুধুমাত্র ভাঙা-ভাঙা ফরাসি বলে নিজেকে সিরীয় উদ্বাস্তু বলে চালিয়ে দিতে পারল?

এসি/এসিবি (এপি,এএফপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়