1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

জার্মান ভোটারদের বিপুল সমর্থন পেলেন ম্যার্কেল

জার্মানির সাধারণ নির্বাচনে চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল-এর খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী শিবির বিপুল জয় অর্জন করেছে৷ তা সত্ত্বেও নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে এককভাবে সরকার গঠন সম্ভবত তাদের পক্ষে সম্ভব হবে না৷

German Chancellor and leader of Christian Democratic Union (CDU) Angela Merkel and CDU party secretary general Hermann Groehe react after first exit polls in the German general election (Bundestagswahl) at the CDU party headquarters in Berlin September 22, 2013. Merkel's conservatives won the most votes in a German election on Sunday, putting her on track for a third term, but it was unclear whether she would be able to preserve her centre-right coalition or be forced to work with her leftist rivals, an exit poll showed. REUTERS/Wolfgang Rattay (GERMANY - Tags: POLITICS ELECTIONS)

আঙ্গেলা ম্যার্কেল

৪২ শতাংশের সামান্য কম ভোট পেয়ে ম্যার্কেল-এর খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী শিবির জার্মানির বৃহত্তম সংসদীয় দল হিসেবে নিজেদের অবস্থান বজায় রেখেছে৷ প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় আঙ্গেলা ম্যার্কেল একে ‘‘দারুণ ফলাফল’’ উল্লেখ করলেও সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ জোটসঙ্গী সম্পর্কে কোন মন্তব্য করেননি৷ পর্যবেক্ষকরা ‘ম্যার্কেলীয় যুগ’-এর কথা বলছেন এবং এই নির্বাচনের ফলাফলকে ইউরো সংকটের ক্ষেত্রে ম্যার্কেল-এর ব্যয় সংকোচ নীতির প্রতি জোরালো সমর্থন হিসেবে বিবেচনা করছেন৷

জার্মান প্রেসিডেন্ট এবার ম্যার্কেল-কে সংসদের সবচেয়ে শক্তিশালী দলের নেত্রী হিসেবে আগামী সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানাবেন৷ সে ক্ষেত্রে তৃতীয় বারের মতো চ্যান্সেলর হিসেবে শপথ নেবেন তিনি৷



ম্যার্কেল-এর ব্যক্তিগত জয় অবশ্য এসেছে ছোট শরিক দলের পরাজয়ের মূল্যে৷ বর্তমান হিসেব অনুযায়ী জোটসঙ্গী উদারপন্থি এফডিপি দল মাত্র ৪.৫ শতাংশ ভোট পেয়ে সংসদে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হয়েছে৷ উল্লেখ্য, সংসদের নিম্ন কক্ষ বুন্ডেসটাগে প্রবেশ করতে হলে ৫ শতাংশ ভোটের সীমা রয়েছে৷ শেষ পর্যন্ত এই চিত্র না বদলালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই প্রথম এফডিপি দল জাতীয় সংসদের বাইরে থাকবে৷ দলের দুই শীর্ষ নেতা ফিলিপ ব়্যোসলার ও রাইনার ব্র্যুডারলে পদত্যাগের ইঙ্গিত দিয়েছেন৷

সামাজিক গণতন্ত্রী এসপিডি দল ২৫ শতাংশের সামান্য বেশি ভোট পেয়ে সবুজ দলের সঙ্গে সরকার গড়ার প্রাথমিক লক্ষ্য পূরণ করতে পারলো না৷ দলের নেতা সিগমার গাব্রিয়েল স্বীকার করেন, যে তিনি মর্মাহত এবং তিনি আরও ভালো ফল আশা করেছিলেন৷ তিনি বলেন, এবার আঙ্গেলা ম্যার্কেল আগামী সরকার গঠন করবেন৷

সবুজ ও বামপন্থি দল ‘ডি লিংকে’-ও ভোট হারিয়েছে৷ সবুজ দলের নেতা ইয়ুর্গেন ত্রিটিন এত খারাপ ফল দেখে মর্মাহত৷ তবে আঙ্গেলা ম্যার্কেল-এর সরকারে যোগদানের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি৷ নতুন দল ‘আল্টারনাটিভে ফ্যুর ডয়েচলান্ড’ বা ‘জার্মানির জন্য বিকল্প’ দল এখনো পর্যন্ত অল্পের জন্য সংসদে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হয়েছে৷

ক্ষমতার শীর্ষে এসে ম্যার্কেল আগামী দিনগুলিতে সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে সামাজিক গণতন্ত্রী বা সবুজ দলের সঙ্গে জোট গড়ার উদ্যোগ নিতে পারেন৷ ২০০৫ থেকে ২০০৯ সাল অবধি এসপিডির সঙ্গে জোট গড়ে ক্ষমতায় ছিল সিডিইউ৷ আর নীতিগত অবস্থানে ব্যাপক অমিল থাকায় সবুজ দলের সঙ্গে হয়ত জোট নাও গড়তে পারে সিডিইউ৷ অন্যদিকে, সংখ্যার বিচারে এসপিডি, সবুজ এবং বাম দল এগিয়ে থাকলেও ইতিপূর্বে বামদের সঙ্গে জোট না গড়ার ঘোষণা দিয়েছিল এসপিডি এবং সবুজ দল৷

২০০৯ সালের নির্বাচনের তুলনায় বেশি সংখ্যক নাগরিক এবার তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন৷ ২০১৩ সালে জার্মানি ভোটারদের সংখ্যা প্রায় ৬ কোটি ৩০ লক্ষ৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়