1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

জার্মান ভাষায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহ মূলত অর্থনৈতিক

বিদেশি ভাষা হিসাবে জার্মান ভাষা শেখার ধুম পড়েছে বিশ্বজুড়ে৷ বিশেষ করে নিত্যদিনের ও অর্থনৈতিক ভাষার চাহিদা বাড়ছে৷ তাই জার্মানভাষার শিক্ষকরা এখন নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন৷ গ্যোটে ইন্সটিউটগুলি প্রস্তুত হচ্ছে৷

৮০-এর দশকে ইনগ্রিড ক্যোস্টার যখন ভারতে জার্মান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গ্যোটে ইন্সটিটিউটে জার্মান পড়াতেন, তখন পাঠ্যসূচিতে জার্মান সাহিত্য বাধ্যতামূলক ছিল৷ গ্যোটে, শিলার, কান্ট সম্পর্কে মূল ভাষায় পড়তে হতো অগ্রবর্তী কোর্সগুলিতে৷

শিক্ষার্থীদের সময় কম

‘‘আজ আমাদের কোর্সে অংশগ্রহণকারীদের সময় কম৷ তাঁরা জার্মানিতে প্রাকটিক্যাল ক্লাস কিংবা এক সেমিস্টার পড়তে চান অথবা ব্যবসায়ী সহযোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে চান৷'' বলেন বর্তমানে মিউনিখের গ্যোটে ইন্সটিটিউটের পরিচালক ইনগ্রিড ক্যোস্টার৷

জার্মান সাহিত্য ও দর্শনের পরিবর্তে দৈনন্দিন জীবনের ভাষা ও নিজ নিজ পেশা সম্পর্কিত শব্দ শিখতে চান শিক্ষার্থীরা৷ ‘‘এই বিষয়টির প্রতি আমাদের শিক্ষকদের লক্ষ্য রাখতে হয়৷ বর্তমানের চলতি ভাষায় দখল থাকতে হয়৷ এক্ষেত্রে নতুন মিডিয়ার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ৷'' বলেন শিক্ষাবিদ ক্যোস্টার৷

গ্যোটে ইন্সটিটিউটগুলি জার্মান ভাষা শিক্ষকদের এ ব্যাপারে প্রস্তুত করার চেষ্টা করছে৷ এই লক্ষ্যে ‘গ্র্যুনে প্রোগ্রাম' নামে একটি ট্রেনিং প্রোগ্রাম তৈরি করা হয়েছে৷ অন্যান্য কয়েকটি দেশের সাথে ভারতেও পরীক্ষমূলকভাবে চালানো হচ্ছে এই কর্মসূচি৷ এই বছরের শেষ নাগাদ নিয়মিত চালু করা হবে কোর্সটি৷

সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে

২০০৩ সাল থেকে আজ পর্যন্ত জার্মান ভাষা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৬০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে৷ এখন সারা বিশ্বে গ্যোটে ইন্সটিটিউটগুলিতে সবমিলিয়ে ২২০,০০০ শিক্ষার্থী জার্মান শিখছেন৷

শিক্ষা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার সবচেয়ে বড় জার্মান প্রতিষ্ঠান ডিএএডি৷ বলা বাহুল্য, এই প্রবণতা লক্ষ্য করেছে তারাও৷ প্রতিষ্ঠানটি ২০১৩ সালে ৫০,০০০-এরও বেশি বিদেশি শিক্ষার্থী ও গবেষকদের ছাত্র বিনিময় কর্মসূচির আওতায় সহায়তা দিয়েছে৷ আগের বছরের তুলনায় ছয় শতাংশ বেশি৷ অধিকাংশই নিজ দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে বিদেশে আসার প্রস্তুতি হিসাবে জার্মান কোর্সে অংশ নেন৷ বেশ কয়েক বছর ধরে ডিএএডি জার্মান শিক্ষকদের নিজস্ব কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষণ দিচ্ছে৷

চাহিদার পরিবর্তন

জার্মান শিক্ষার্থীদের চাহিদার পরিবর্তন হচ্ছে, বলেন উরসুলা পেইন্টনার৷ ডিএএডি-তে ‘বিদেশি ভাষা হিসাবে জার্মান ভাষা' বিভাগের পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন তিনি৷ ‘‘আমাদের কোর্সে এমন সব শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, যাঁরা স্কুলে মূলত ইংরেজি শিখেছেন৷ জার্মান মোটেও জানেন না৷'' এ জন্য বিভিন্ন স্তরের ভাষাক্লাস থাকা উচিত৷ আজকের শিক্ষার্থীরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাঁদের বিষয়ের ভাষা, যেমন ইঞ্জিনিয়ারিং ও অর্থনীতিবিষয়ক ভাষা শিখতে আগ্রহী৷

এই প্রবণতাটা বিশেষ করে চীনে লক্ষ্য করা যায়৷ জানান উরসুলা পেইন্টনার৷ দেশটিতে জার্মান ইঞ্জিনিয়ার, গাড়ির শিল্পকারখানা এবং উন্নতমানের যন্ত্রপাতির অত্যন্ত সুনাম রয়েছে৷

বিভিন্ন মতামত

‘‘আমার জন্য এটা স্পষ্ট ছিল যে, হবু ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে জার্মানিতে পড়াশোনা করতে হবে৷'' বলেন চাও হে৷ আখেন শহরে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ ডক্টরেট করছেন তিনি৷ জার্মানির ২৫,০০০ চীনা শিক্ষার্থীর মধ্যে চাও হে একজন৷ ‘‘জার্মান কোর্সে দৈনন্দিন জীবনের ভাষা কিছুটা আয়ত্ত করতে পারলেও কারিগরি ও বিজ্ঞানের ভাষা এখনও বেশ কঠিন মনে হয়৷'' জানান হে৷

অন্যদিকে ব্রাজিল থেকে আসা ভিক্টর স্ট্রাজেরি-র ধারণা ভিন্নরকম৷ তাঁর মতে, পর্তুগিজ ও জার্মান ভাষার মধ্যে পার্থক্যটা খুব বেশি নয়৷‘‘কিন্তু তরুণ জার্মানরা কিভাবে কথা বলেন, চিন্তা করেন, এ সব জার্মান কোর্সে তুলে ধরা হয় না৷'' কিছুটা সমালোচনার সুরে বলেন ২৮ বছর বয়সি এই তরুণ৷ কয়েক মাস ধরে বার্লিনে সমাজবিজ্ঞানে ডক্টরেট করছেন তিনি৷ ‘‘তাঁরা রীতিনীতি নিয়ে মাথা ঘামান না৷ আমি যা ভেবেছিলাম, তার চেয়ে অনেক বেশি খোলামেলা৷'' বলেন ভিক্টর৷ দৈনন্দিন জীবনের আধুনিক জার্মান ভাষা ও বিষয়ভিত্তিক ভাষা অল্প সময়ের মধ্যে শিখতে চান ভাষাশিক্ষার্থীরা৷

ভাষাটা দ্রুত শিখতে চান

‘‘গ্রিসে জার্মান ভাষা শিখতে আমার কাছে অনেকে আসেন, যাঁরা ভাষাটা একেবারেই জানেন না, কিন্তু জার্মানিতে কাজ করতে চান৷ তাঁরা কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ভাষা শিখতে চান, যা মোটেও বাস্তবসম্মত নয়৷'' কোনো ভাষা শিখতে হলে অন্তত দুই বছর নিয়মিত ক্লাস করা প্রয়োজন৷

শিক্ষক সংকটের দরুণ গ্রিসের স্কুলগুলিতে জার্মান শিক্ষার হার বেশ কমে যাচ্ছিল৷ অন্যান্য দেশেও অনেকটা একই ধরনের প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছিল৷ ধীরে ধীরে বাতাসটা উল্টোমুখী হচ্ছে৷ লক্ষ্য করেছেন ইনগ্রিড ক্যোস্টার৷

শক্তিশালী অর্থনীতি, উন্নতমানের গাড়ি ও যন্ত্রপাতি ইত্যাদি কারণে জার্মানির সুনাম বিশ্বজোড়া৷ এছাড়া ফুটবল খেলা তো রয়েছেই৷ ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ফুটবল জার্মান ভাষা শেখার আগ্রহ আরো বাড়িয়ে দেবে বলে আশা করেন ক্যোস্টার৷ এই ধরনের প্রবণতা দেখা গিয়েছিল ২০০৬ সালেও৷ সেই সময় বিশ্বকাপ ফুটবলের স্বাগতিক দেশ হিসাবে জার্মানি ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছিল৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন