1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

জার্মান কাপের সেমিফাইনালে বায়ার্ন, শালকে, হারলো কোলন

একটি নয় দুটি নয়, তিন তিনটি লাল কার্ড খেয়ে অবশেষে দ্বিতীয় বিভাগের দল আউসবুর্গের কাছে হেরে গেছে কোলন এফসি৷ অন্যদিকে গ্রয়থের ফুয়ের্থকে হাফ ডজন গোল দিয়ে জার্মান কাপের সেমিফাইনালে চলে গেছে বায়ার্ন মিউনিখ৷

default

গোল দেওয়ার পর রিবেরির উল্লাস (ডানে), সঙ্গে রবেন

কোলনের দুর্ভাগ্য!

বুধবার বুন্দেসলিগার দল কোলনের জন্য দিনটি ছিল নেহাতই দুর্ভাগ্যের৷ দ্বিতীয় বিভাগের দল আউসবুর্গের কাছে তারা ২-০ গোলে হেরেছে, তার চেয়েও বড় কথা খেলতে হয়েছে মাত্র আটজন নিয়ে৷ কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ শুরুর ৩০ মিনিটের মাথায় বিপক্ষের খেলোয়াড়কে কনুই দিয়ে গুতো দেওয়ায় সরাসরি লাল কার্ড দেখেন কোলনের আদিল চিচি৷ ৬৯ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন স্ট্রাইকার লুকাস পোডলস্কি৷ আর খেলা শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে একইভাবে মাঠ থেকে বহিস্কৃত হন পেটিট৷ অন্যদিকে খেলা শুরুর তিন মিনিটের মাথায় গোল খায় কোলন, এরপর শেষ হওয়ার আগমুহুর্তে আরেকটি গোল হজম করতে হয় তাদের৷ খেলা শেষে কোলনের কোচ জেভোনিমির সল্ডো তার দলের খেলোয়াড়দের দায়ী করে বলেছেন, অভিজ্ঞ একটি দলের ক্ষেত্রে এমনটি ঘটা উচিত নয়৷

DFB-Pokal Augsburg Köln

কোলনের আদিল চিচিকে (ছবিতে নেই) লাল কার্ড দেখাচ্ছেন রেফারি

পেরে উঠলো না গ্রয়থের ফুয়ের্থ

এদিকে অপর ম্যাচে বায়ার্নের কাছে ৬-২ গোলে হেরেছে দ্বিতীয় বিভাগের দল গ্রয়থের ফুয়ের্থ৷ তবে প্রথমার্ধে বেশ সমানে সমানে খেলেছে তারা৷ এক পর্যায়ে প্রথমার্ধে ২-১ গোলে এগিয়েও গিয়েছিল৷ কিন্তু বায়ার্নের মত বড় দলের সঙ্গে আর কুলিয়ে উঠতে পারেনি গ্রয়থের ফুয়ের্থের খেলোয়াড়রা৷ বায়ার্নের থমাস ম্যুয়েলার দুটি গোল করেন৷ এছাড়া, রবেন, ল্যাম এবং লোবোউ একটি করে গোল করেন৷ অপর গোলটি আসে আত্মঘাতী থেকে৷ অন্যদিকে ফুয়ের্থের ক্রিস্টোফার নোয়েথে এবং আলাগুই একটি করে গোল করেন৷

বুধবারের অপর কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে তৃতীয় বিভাগের দল ওসনাব্রুয়েককে হারাতে বেশ ঘাম ঝরাতে হয়েছে শালকেকে৷ কারণ, ম্যাচটি তারা জিতেছে মাত্র ১-০ গোলে৷ দ্বিতীয়ার্ধে জয়সূচক এই গোলটি করেন কেভিন কুরানি৷ এর আগে মঙ্গলবার হফেনহাইমকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ডিফেন্ডিং চ্যম্পিয়ন ভেরডার ব্রেমেন৷

প্রতিবেদক: রিয়াজুল ইসলাম, সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়