1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জার্মানির ফুটবলের পুনর্জন্ম হল তার নতুন প্রজন্ম

ফুটবলে চিরকালের বৈরী ইংল্যান্ডকে ৪-১ গোলে হারানোই শুধু নয়, এ যেন আমরা জার্মান ফুটবল আগামীতে কোথায় চলেছে এবং কি হতে চলেছে, তার একটা আভাস পেলাম৷

default

এক হিসেবে এর একটা রাজনৈতিক দিকও আছে৷ জার্মানিতে বিদেশী-বহিরাগতদের নিয়ে অনন্ত আলাপ-আলোচনা চলে, বিশেষ করে তাদের সমাজের অঙ্গ করে তোলা নিয়ে৷ কিন্তু যে জার্মান দলে ক্লোজে, পোডোলস্কি বস্তুত পোলিশ বংশোদ্ভূত, ওয়েজিল তুর্কি, সেই সঙ্গে আছে সামি খেদিরা কি বোয়াটেং-এর মতো পৃথিবীর বিভিন্ন দিক ও দিশারা দেওয়া নানান খেলোয়াড়, সেই দলই প্রমাণ করে দেয় যে, অন্তত জার্মান ফুটবলে বিদেশী-বহিরাগতরা একটা সমস্যা নয়, তারা একটা সম্পদ৷

হয়তো সেই কারণেই এই তরুণ জার্মান দল বহির্বিশ্বে জার্মানির ভাবমূর্তি বদলে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে, স্বয়ং জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল টরোন্টোয় বসে যেমন বলেছেন:

Flash-Galerie Fußball WM 2010 Südafrika Achtelfinale Deutschland vs England

গোল করার মুখে পোডোলস্কি

‘‘আমি এই প্রথম ইংরিজি ভাষ্য সহ একটি খেলা দেখলাম, এবং সেই ভাষ্যে তরুণ জার্মান দলকে যেভাবে স্বাগত জানানো হয়েছে, তা সারা বিশ্বের নজর কাড়বে৷''

অথচ তারুণ্যের সঙ্গে ছিল অভিজ্ঞতা৷ প্রথম গোলটি করেন মিরোস্লাভ ক্লোজে, যাঁর বয়স এখন ৩২৷ অপরদিকে শেষ দু'টি গোল করে বায়ার্ন মিউনিখের থমাস ম্যুলার, যার বয়স ২০৷ প্লেমেকার - এক কথায় জার্মানির ক্ষুদে জিদান - মেসুত ওয়েজিল সবে ২৩-এ পা দেবে৷ কিন্তু ওয়েজিল, খেদিরা কিংবা গোলরক্ষক মানুয়েল নয়ার, এরা সবাই আন্ডার-টোয়েন্টিওয়ানে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলেছে এবং ৪-০ গোলে জিতেছে৷

বিজয়ী দলের খেলোয়াড় থেকে কোচ ইওয়াখিম লোয়েভ, সকলের মুখেই শোনা যাচ্ছে দলের প্রশংসা, কোনো বিশেষ খেলোয়াড়ের নয়৷ এবং সেটাই এই দলের বিশেষত্ব৷ ফরোয়ার্ডে ক্লোজে, পোডোলস্কি, ম্যুলার, প্রয়োজনে কাকাও - এবং অবশ্যই ওয়েজিল, এরা যে কোনো সময় গোল করতে সমর্থ৷ মাঝমাঠে অবলীলাক্রমে বালাকের অভাব ভুলিয়েছে বাস্টিয়ান

Fußball WM 2010 England Deutschland Flash-Galerie

গোল করার মুহূর্তে ম্যুলার

শোয়াইনস্টাইগার: বাঘের মতো খেলেছে সে৷ তার শারীরিক উপস্থিতি বালাকের মতো৷ ডিফেন্সে মের্টেসাকার'এর সাম্প্রতিক দুর্বলতা পুরোপুরি সামলে দিয়েছে আর্নে ফ্রিডরিশ৷ গোলে মানুয়েল নয়ার'এর মধ্যে ইতিমধ্যেই বিশ্বের সেরা গোলরক্ষক হবার সম্ভাবনা দেখছেন স্বয়ং অলিভার কান৷

অথচ গোটা দল মাত্রাতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসে ভুগছে না৷ খেলার পর পোডোললস্কি বলেছে: ‘‘আমরা অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলার পর যে ভুল করেছিলাম, অর্থাৎ পরের খেলাটি কিছুটা ঢিলেভাবে শুরু করেছিলাম, এবার সে ভুল করলে চলবে না৷ বরং আমাদের পরের গুরুত্বপূর্ণ খেলাগুলির উপর ঠিক একই ভাবে মনঃসংযোগ করতে হবে৷ আমাদের এখনও তিনটে খেলা বাকি আছে এবং আমরা শেষ পর্যন্ত থাকতে চাই৷'' মানে ফাইনাল অবধি৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়