1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

জার্মানির গ্রামাঞ্চলের জন্য ডাক্তার খোঁজা হচ্ছে

জার্মানির গ্রাম অঞ্চলে এখন চিকিৎসক সংকট চলছে৷ নানা রকম সুযোগ সুবিধা দেয়ার কথা বলেও তরুণ ডাক্তারদের গ্রামে কাজ করার ব্যাপারে উৎসাহিত করা যাচ্ছেনা৷ এই পরিস্থিতির সুরাহা করতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফিলিপ রোয়সলারও সচেষ্ট হয়েছেন৷

default

জার্মানির বাভারিয়া এবং থিউরিঙ্গেন রাজ্যের মাঝামাঝি অবস্থিত ম্যডলারেউথ গ্রাম

জার্মানির বাভারিয়া থেকে ব্রান্ডেনবুর্গ প্রায় সব রাজ্যেই এক অবস্থা৷ মফস্বল শহর ও গ্রামাঞ্চলের জন্য ডাক্তার খোঁজা হচ্ছে প্রাণপণে৷ এসব অঞ্চলের মেয়ররা এমনকি বিনা পয়সায় বাসস্থান ও অর্থের প্রলোভন দেখিয়েও আশানুরূপ কোনো ফল পাচ্ছেন না৷ বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, জার্মানির স্বাস্থ্যসেবার মান অত্যন্ত উন্নত৷ পর্যাপ্ত সংখ্যক চিকিৎসকও রয়েছেন এখানে৷ কিন্তু তাঁরা বড় বড় শহরগুলিতেই ভিড় বাড়াতে চান৷ আর গ্রামাঞ্চলগুলো প্রায় ডাক্তারশূণ্য অবস্থায় পড়ে থাকে৷ এই পরিস্থিতির এক আশু সমাধান প্রয়োজন বলে মনে করেন জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোয়সলার৷ ডাক্তারি পড়ার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি শিথিল করার পরিকল্পনা করছেন তিনি৷ তাঁর কথায়, ‘‘স্বাস্থসেবার মান বিচার করতে হলে হাতের কাছে কোনো ডাক্তার আছে কিনা এবং তাঁর কাছে একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট পেতে হলে কতদিন লাগবে, সেটাই প্রথমে দেখতে হবে৷''

তাই স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাক্তারিতে ভর্তি করার ক্ষেত্রে সেই সব ছাত্র ছাত্রীকেই অগ্রাধিকার দিতে চান, যারা পরে কিছুদিন গ্রামে কাজ করতে রাজি৷ ডাক্তারিতে ভর্তি হওয়ার জন্য নির্বাচন পদ্ধতির কড়াকড়ি শিথিল করার কথাও চিন্তা করছেন রোসলার৷ তাঁর মতে, ‘‘কেউ পরে ভাল ডাক্তার হবে কিনা, তা পরীক্ষার ফলাফল দেখে বলা যায় না৷

Wochenrückblick 36 KW Flash-Galerie Streit über Prämien für Ärzte

নানা রকম সুযোগ সুবিধা দেয়ার কথা বলেও তরুণ ডাক্তারদের গ্রামে কাজ করার ব্যাপারে উৎসাহিত করা যাচ্ছেনা

মানুষকে সাহায্য করা ও গ্রামাঞ্চলে বসবাস করার মত মানসিকতা থাকতে হবে তাঁদের৷ ফার্স্ট এইড কর্মী বা নার্স, যাদের চিকিৎসা ক্ষেত্রে কিছুটা অভিজ্ঞতা রয়েছে, তাদেরকেও ডাক্তারিতে ভর্তির ব্যাপারে সুযোগ দিতে হবে৷''

অবশ্য ইদানীং বিশ্ববিদ্যালয়গুলি পরীক্ষার ফলাফলের চেয়ে কোনো আবেদনকারী ডাক্তারি পেশার যোগ্য কিনা সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে৷ জার্মানির জাকসেন রাজ্যে চার বছরের জন্য গ্রামাঞ্চলে কাজ করার শর্তে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ছাত্রছাত্রীদের ৩০০ থেকে ৬০০ ইউরো বৃত্তি দেয়া হয়৷ শর্ত না মানলে এই অর্থ তাদের ফেরত দিতে হয়৷

জার্মানিতে আগামী কয়েক দশকে শুধু গ্রামে নয় শহরগুলিতেও ডাক্তারের অভাব দেখা দিতে পারে৷ তাই স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোয়সলার শুধু পরীক্ষার ভাল ফলের ওপর ভিত্তি করে ডাক্তারিতে ভর্তি হওয়ার নিয়ম কানুনটা বাতিল করতে চান৷ তবে এক্ষেত্রে আর একটা সমস্যাও রয়েছে৷ জার্মানিতে বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানে আসনের সংখ্যা সাড়ে আট হাজারের মত৷ সব আবেদনকারীকে ভর্তি করতে হলে এই সংখ্যাটা অনেক বেশি করতে হবে৷ চিকিৎসা বিজ্ঞানে একটি সিটের জন্যই খরচ পড়ে প্রায় ২ থেকে ৩ লক্ষ ইউরো, যার ভার নিতে হয় অঙ্গরাজ্যগুলিকে৷ শুধু মাত্র নর্থ রাইন ওয়েস্ট ফালিয়া রাজ্যই সম্প্রতি চিকিৎসা বিজ্ঞানে ১০০টি নতুন সিট তৈরি করতে পেরেছে৷

পাশ করার পর প্রায় ৪০ শতাংশ চিকিৎসক ব্যবস্থাপনা ও অর্থনীতি ক্ষেত্রে কাজ নিতে আগ্রহী হন৷ ডাক্তার সংকটের এটাও একটা কারণ৷ এছাড়া ভাল বেতন ও সুযোগ সুবিধার কারণে বিদেশে বিশেষ করে সুইজারল্যান্ড, ইংল্যান্ড, অস্ট্রিয়া ও অ্যামেরিকায় পাড়ি দেন অনেকে৷

বাংলাদেশেও এই সমস্যাটা আরো তীব্র৷ সরকারি চাকরির শর্তানুযায়ী তরুণ ডাক্তারদের প্রথম দুই বছর উপজেলা অঞ্চলে কাজ করতে হয় কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় গ্রাম এলাকার হেল্থ সেন্টার তাদের কর্মক্ষেত্র হলেও সেখানে তারা নিয়মিত উপস্থিত থাকছেননা৷ কাজ করছেন শহরে বসে৷ হাসপাতালের দুরবস্থা, যন্ত্রপাতি ও ওষুধপত্রের অভাব ইত্যাদি কারণে তরুণ ডাক্তাররা হতাশায় ভোগেন, কাজের প্রতি অনীহাও দেখা যায় তাদের৷ সুযোগ পেলেই শহরে চলে যান তাঁরা, বা পাড়ি জমান বিদেশে৷ তখন স্বাস্থ্যসেবা ক্ষেত্রে গ্রামাঞ্চলের মানুষের করুণ অবস্থাটা আরো চরমে ওঠে৷

প্রতিবেদক : রায়হানা বেগম

সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়