1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মানির কার্নিভালে ডোনাল্ড ট্রাম্প কেন জনপ্রিয়?

এটা ঠিক যে বিশ্বের সব কার্টুনিস্টদের বর্তমান পছন্দ নব্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট, কেননা তার চুলের ভিন্ন স্টাইল৷ জার্মানিতে কার্নিভাল উপলক্ষ্যে ট্রাম্পের যত উইগ আনা হয়েছিল, উৎসব শুরু হওয়ার আগেই দোকানগুলো থেকে তা নিমেষে উধাও৷

জার্মান কস্টিউম চেইন ডাইটার্স-এর কোলন শাখার সেলস ম্যানেজার মারিয়ন ভেন্ডট জানালেন, প্রেসিডেন্টের সব উইগ বিক্রি হয়ে গেছে৷ জার্মানির যেসব শহরে এই দোকান রয়েছে, সবখানেই এক অবস্থা৷ অন্যদিকে বার্লিনের ‘মাস্ক ওয়ার্ল্ড' ট্রাম্পের উইগসহ মুখোশ বিক্রি করতে পেরে ভীষণ খুশি, কেননা এগুলো দোকানে আসা মাত্রই বিক্রি হয়ে গেছে৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যতই অজনপ্রিয় হোন না কেন এ বছরের কার্নিভালে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে তার ধারে কাছে কেউ নেই৷ কেবল উইগই নয়, ট্রাম্পের পুরো পোশাক এবার কার্নিভালের কস্টিউম হিসেবে ‘হট কেক'৷ অর্থাৎ স্যুট, উইগ, লম্বা লাল টাই এবং মুখে চড়া কমলা রঙের মেক আপ৷ 

যেসব দোকানে কার্নিভালের কস্টিউম বিক্রি হয় সব দোকানেই ট্রাম্পের উইগের ভীষণ চাহিদা৷ আর যেসব দোকানে ট্রাম্পের উইগ বিক্রি হচ্ছে না, সেখানকার বিক্রেতারা ‘হাইনো' উইগ ক্রেতাদের হাতে ধরিয়ে দিচ্ছে৷ এই উইগটি জার্মানির কবি-সাহিত্যিক ও সংগীতজ্ঞরা ১৮ শতকে পরতেন৷

এ থেকে বোঝা যাচ্ছে গোলাপি সোমবার বা রোজেন মোনটাগে কোলন, ড্যুসেলডর্ফ এবং মাইনজ এর রাস্তায় যে শত শত ট্রাম্প ঘোরাফেরা করবে তার আর বলার অপেক্ষা রাখে না৷

২০১৬ সালের ১১ই নভেম্বর রাইন কার্নিভালের বর্তমান মৌসুম শুরু হয় রাইনল্যান্ড এলাকায়৷ নভেম্বরেও নর্ডরাইন ভেস্টফালিয়ার রাজ্যগুলোতে ফিক্সনাল চরিত্র বা হোপ্পেডিৎস ছিল ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ এই হোপ্পেডিৎস-কে দাহ করা হয় এবং কার্নিভাল মৌসুম শেষে ‘অ্যাশ ওয়েডনেসডে'-তে তা পুঁতে ফেলা হয়৷

সিল্কে ভ্যুনশ/এপিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়