1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি-সৌদি আরব

জার্মানির কাছ থেকে অস্ত্র চায় না সৌদি আরব

সৌদি আরবের অর্থনীতি বিষয়ক উপমন্ত্রী মোহাম্মেদ আল-তুওয়াইজরি জার্মানির ‘ডের স্পিগেল’ সাপ্তাহিককে বলেছেন, সৌদি আরব ভবিষ্যতে জার্মানির কাছ থেকে আর অস্ত্র কিনতে চাইবে না৷

Saudi-Arabien Angela Merkel, Mohammed bin Naif bin Abdulaziz (picture-alliance/AP Photo/Saudi Press Agency)

সৌদি আরব সফরে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নাইফ বিন আব্দুলআজিজ

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের এক দিনের সৌদি আরব সফর উপলক্ষ্যে আল-তুওয়াইজরি ‘ডের স্পিগেল’ পত্রিকাকে বলেন, ‘‘আমরা সৌদি আরবে (অস্ত্র) রপ্তানির ব্যাপারে জার্মানির নীরবতা মেনে নিই৷ আমরা তার রাজনৈতিক পটভূমি জানি৷’’

‘‘আমরা অস্ত্রশস্ত্রের জন্য নতুন অনুরোধ করে জার্মান সরকারের জন্য উত্তরোত্তর সমস্যা সৃষ্টি করতে চাই না,’’ আল-তুওয়াইজরি যোগ করেন৷ এক্ষেত্রে নীতি পরিবর্তনের কারণ হলো অস্ত্র ছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে রিয়াদ বার্লিনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতর সহযোগিতা কামনা করে, বলেন আল-তুওয়াজরি৷ রিয়াদ জার্মানিকে তাদের ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক সহযোগীদের’ মধ্যে রাখতে চায়৷ ‘‘অস্ত্র কেনাবেচা নিয়ে তর্কাতর্কির চেয়ে জার্মানির সঙ্গে সম্পর্ক আমাদের কাছে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ,’’ বলেও জানান আল-তুওয়াইজরি৷

বিতর্কিত, কিন্তু লাভজনক

সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রির বিষয়টি জার্মানিতে বহু বছর ধরে বিতর্কিত৷ বিশেষ করে সৌদি আরবের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে জার্মানিতে প্রায়ই সমালোচনা শোনা যায়৷ অন্যান্য প্রসঙ্গ ছাড়াও, ইয়েমেনের দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধে সৌদি আরবের ভূমিকাও জার্মানিতে বিশেষভাবে সমালোচিত৷ এর পিছনে রয়েছে এসব ক্ষেত্রে জার্মানি থেকে কেনা অস্ত্রের অপব্যবহারের আশঙ্কা৷

প্রাথমিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৬ সালে জার্মানি সৌদি আরবে ৫০ কোটি ইউরোর বেশি মূল্যের অস্ত্রশস্ত্র রপ্তানি করেছে৷

সামরিক ও পুলিশ প্রশিক্ষণ

ম্যার্কেলের সঙ্গে এবার যে বাণিজ্যিক প্রতিনিধিদল গিয়েছে, তাতে কোনো জার্মান অস্ত্রনির্মাতার প্রতিনিধিরা ছিলেন না, যদিও ইতিপূর্বে জার্মান সরকার বলেছে যে, ‘কেস-বাই-কেস’ ভিত্তিতে এখনও সৌদি আরবকে অস্ত্র সরবরাহ করা যেতে পারে৷

ইয়েমেনে সৌদি সামরিক পদক্ষেপ সম্পর্কে সব দ্বিধা সত্ত্বেও ম্যার্কেলের সর্বশেষ সৌদি আরব সফরে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে৷ সেই চুক্তি অনুযায়ী সৌদি সৈন্যরা জার্মান সেনাবাহিনীর বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ পাবে৷

এছাড়া পুলিশ প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রে সহযোগিতা নিয়ে দু’পক্ষের একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়৷  পরিকল্পনা অনুযায়ী, জার্মান ফেডারাল পুলিশ সৌদি সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেবে৷

টিমোথি জোন্স/এসি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়