1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

জার্মানিতে যাঁরা কারাগারে বৃদ্ধ হচ্ছেন

জার্মানির ডেমোগ্রাফিক বা জনমিতিক পরিবর্তনের ছোঁয়া কারাগারগুলিতেও এসে পড়েছে৷ ষাটোর্ধ্ব কারাবন্দিদের সংখ্যা গত কয়েক বছরে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে৷ কারাগারগুলিকেও এই অবস্থার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হচ্ছে৷

কারাবন্দিদের মোট সংখ্যা গত বছরগুলিতে কমের দিক গেলেও প্রবীণ বন্দিদের সংখ্যা বাড়ছে৷ প্রশ্ন উঠতে পারে এটা কী সমাজেরই এক প্রতিচ্ছবি, নাকি বৃদ্ধদের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা বাড়ছে? উত্তরে বলা যায় এক্ষেত্রে দুই-এরই ভূমিকা রয়েছে৷ বলেন বখুম শহরের অপরাধ বিশেষজ্ঞ মিশায়েল আক্সেল ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে৷ ‘‘ধনী ও দরিদ্রের মধ্যে ফারাক বৃদ্ধি পাওয়ায় বর্ষিয়ানদের মধ্যে চুরি ও প্রতারণার ঝোঁকও আগের তুলনায় বৃদ্ধি পাচ্ছে৷''

Seniorengefängnis in Singen

বাডেন-ভ্যুর্টেমব্যার্গের সিংগেন শহরে ১৯৭০ সাল থেকে শুধু প্রবীণদের জন্যই ৪৮ সিটের আলাদা একটি জেলখানা রয়েছে

বেশি কারাগারে থাকতে হয়

অপর একটা কারণ হলো বন্দিদের আগের চেয়ে বেশি দিন জেলখানায় থাকতে হয়৷ ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত নিরাপত্তার কারণে মারাত্মক অপরাধীদের প্রাপ্ত সাজার বাইরে খুব বেশি হলে দশ বছর আটক রাখা হতো৷ বেলজিয়ামের এক কুখ্যাত কয়েদিকে নিয়ে একটি অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতার পর, এই সীমাবদ্ধতা উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ তখন থেকে নিরাপত্তার কারণে আটককৃত বন্দির সংখ্যা দ্বিগুণেরও বেশি হয়েছে৷

বয়োবৃদ্ধদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় কারাগারগুলিকে নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হচ্ছে৷ বিশেষ করে বৃদ্ধ বন্দিদের চিকিৎসার ব্যাপারে অল্পবয়সিদের তুলনা ভিন্নভাবে দৃষ্টি দিতে হচ্ছে৷ অনেকেই ডায়বেটিস, ডিমেনশিয়া, হার্টের সমস্যা ইত্যাদি অসুখ বিসুখে আক্রান্ত৷ কেউ কেউ সেবা-শুশ্রূষার ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন৷ কারাগারে মৃত্যু হওয়াও কোনো বিরল ঘটনা নয়৷ কোনো কোনো কারাগার এজন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে৷ ডেটমোল্ড কারাগারে সাত বছর ধরে বৃদ্ধদের জন্য একটি আলাদা শাখা রয়েছে৷

সিংগেন শহরে পৃথক কারাগার

বাডেন-ভ্যুর্টেমব্যার্গের সিংগেন শহরে ১৯৭০ সাল থেকে শুধু প্রবীণদের জন্যই ৪৮ সিটের আলাদা একটি জেলখানা রয়েছে৷ সেই সময় ডেমোগ্রাফিক পরিবর্তন নিয়ে মাথা ঘামানো না হলেও বয়স্কদের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় আনা হয়েছিল৷ বলেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক টোমাস মাউস৷

বয়স্কদের জন্য শান্তিপূর্ণ পরিবেশ, মাত্রাধিক খাঁটুনির কাজ না দেওয়া, বিশেষ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা ইত্যাদি চাহিদার দিকে লক্ষ্য রাখা হয় সেখানে৷ এছাড়া বৃদ্ধরা অল্পবয়সি বন্দিদের কিছুটা ভীতির চোখে দেখে৷ এ কারণেও তাঁদের আলাদা রাখার প্রয়োজন বলে মনে করেন কর্তৃপক্ষ৷

অন্যান্য কারাগারের মতোই বৃদ্ধদের কারাগারেও কাজের সময়, অবসরের সময়, বিশ্রামের সময় এ সব ভাগ করা থাকে৷ অবসর সময়ে বিশেষ খেলাধুলার ব্যবস্থা করা হয়৷ আর থাকে স্মৃতির ট্রেনিং এবং কর্মদক্ষতা বাড়ানোর নানা ধরণের ব্যবস্থা৷

পক্ষপাতমূলক আচরণ' নয়

বৃদ্ধ কারাবন্দিদের প্রতি ‘পক্ষপাতমূলক আচরণ' করা হয় না, বরং তাঁদের বয়সের সাথে খাপ খাইয়ে তত্ত্বাবধান করা হয়'', বলেন মাউস৷ সারা জার্মানিতে আসামির তুলনায় কারাগারে সিটের সংখ্যা বেশি৷ কিন্তু সিংগেন শহরে উল্টোটাই লক্ষ্য করা যায়৷ এখানে বন্দিদের জন্য অপেক্ষমান তালিকাটা বেশ দীর্ঘ৷

এক্ষেত্রে একটা বিষয় স্পষ্ট৷ কারাগারে বর্ষিয়ানদের সংখ্যা বৃদ্ধির এই প্রবণতা চলতেই থাকবে৷ অপরাধ বিশেষজ্ঞ মিশায়েল আক্সেল মনে করেন, বিচারক ও সরকারি আইনজীবীদেরও বিষয়টিকে বিবেচনার মধ্যে আনতে হবে৷ ‘‘বয়স্কদের ক্ষেত্রে তাঁদের বাকি দণ্ড মকুব করে জামিনে মুক্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করা যেতে পারে৷ এছাড়া যদি কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েন ও জেলখানায় পর্যাপ্ত চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব না হয়, তাহলে তাঁকে মুক্তি দেওয়া যেতে পারে৷ ক্ষমার ব্যবস্থাটাও কাজে লাগানো যেতে পারে৷''

নমনীয় মনোভাব গ্রহণ করা

আবারো অপরাধে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় অপরাধীদের ব্যাপারে নমনীয় মনোভাব গ্রহণ করতে ইতস্তত করে বিচার বিভাগ৷ মারাত্মক অপরাধীদের বেলায় সমাজও সহানুভূতি দেখাতে কার্পণ্য বোধ করে, বলেন মিশায়েল আক্সেল৷ যদিও বৃদ্ধ অপরাধীদের ক্ষেত্রে আবার অপরাধকর্মে জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা খুবই কম৷

উল্লেখ্য, কয়েক বছর আগে হামবুর্গে কারা-আইনের এক অনুচ্ছেদে মৃত্যুপথযাত্রী অসুস্থ বন্দিদের দণ্ড মকুব করার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ যদি নিশ্চিত হওয়া যায় এই অবস্থায় অপরাধকর্ম সংঘটিত করার সম্ভাবনা নেই৷ ‘‘জার্মানিতে হামবুর্গই একমাত্র রাজ্য, যেখানে আইনত এইসব অসুস্থ মানুষকে মুক্তি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে৷ যাতে তাঁদের কারাগারে মৃত্যুবরণ করতে না হয়'', বলেন অপরাধ বিশেষজ্ঞ মিশায়েল আক্সেল৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন