1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

জার্মানিতে ভাড়াটে উৎখাতের ঘটনা ক্রমেই বাড়ছে

জার্মানিতে বাড়ির মালিকরা অনেক সময় ভাড়া বাড়ানো ও ঝামেলা কমানোর জন্য ভাড়াটেদের উঠিয়ে দেন৷ প্রয়োজন হলে আদালতের মাধ্যমেও৷ গত কয়েক বছরে এইভাবে ভাড়াটে উচ্ছেদের সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়েছে৷

ভাড়াটেদের বিতারণ করতে গিয়ে আদালতের কর্মচারীরা অনেক সময় বিপাকে পড়েন৷ কয়েক মাস আগে পটসডামে এক আদালত কর্মী ভয়ানক এক দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন৷ ৫৫ বছর বয়সি ভাড়াটে মহিলা সেলারে ঢুকে একটি কম্বলে আগুন জ্বালিয়ে দেন৷ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয়৷ সেই ভাড়াটেকে তখন অবশ্য পথে বসতে হয়নি৷ পাঠানো হয়েছিল হাসপাতালে৷ এর আগে কার্লসরুয়ে শহরে এক ব্যক্তি বাড়ি থেকে বের করার সময় আদালতকর্মীকে গুলি করে হত্যা করেন৷ ‘উচ্ছেদ রোধ কর' উদ্যোগের মুখপাত্র ইউলিয়া শ্মিডবাউয়ার বলেন ‘‘এইভাবে উচ্ছেদ করা মানুষের জীবনের জন্য ঝুঁকি হয়ে দাঁড়ায়৷''

Berlin Aktionstag gegen Mieterhöhung 28.09.2013

বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বার্লিনে আন্দোলন (ফাইল ফটো)

জার্মানিতে ভাড়াটে উচ্ছেদের ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ ‘‘গত বছর সারা জার্মানিতে ২৫,০০০ উচ্ছেদের ঘটনা ঘটে বলে জানান ‘গৃহহীন সাহায্য সমিতির' টমাস শ্পেখট৷ এছাড়া ৪০,০০০ উৎখাতের ঘটনা ঘটে আদালতের অনুমোদন ছাড়াই৷ অভিযোগ আদালতে ওঠার আগে বা মামলা চলাকালে অনেক ভাড়াটে বাড়ি ছেড়ে দেন৷ ২০১০ সালে ২০,০০০টি উচ্ছেদের ঘটনা ঘটে৷ রাজধানী বার্লিনে ২০০৯ সালে ৫০০০-এর কিছু ওপর, ২০১১ সালে প্রায় ৭,০০০ ভাড়াটে বিতারণের ঘটনা ঘটে৷

বাড়ির মালিকরা কেন ভাড়াটেদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেন, তার ব্যাখ্যা দেন ইউলিয়া শ্মিডবাউয়ার৷ ‘‘একদিকে মানুষের পকেটে অর্থ কমে আসছে৷ অন্যদিকে ভাড়াও দ্রুতগতিতে বাড়ছে৷ তাই ভাড়াটে বের করার জন্য অনেক সময় আইনি ব্যবস্থা নেন বাড়িওয়ালারা৷''

বৃদ্ধ বয়সের জন্য আর্থিক নিরাপত্তা

আইনজীবী আলেক্সান্ডার ব্রডেরেকে আরেকটি কারণের কথাও জানান, মালিকরা বৃদ্ধ বয়সের আর্থিক নিরাপত্তার কথা ভেবেও ভাড়া বাড়াতে চান৷ অনেকে বাড়িটা নিজেই ব্যবহার করতে চান বলে ভাড়াটে উঠিয়ে দেন৷

এছাড়া অনেক বাড়িওয়ালা দয়ামায়াহীনও বটে৷ ভাড়ার ঊর্ধ্বগতি দেখা দিলে কেউ কেউ লোভ সামলাতে পারেন না৷ ভাড়ার ব্যাপারে ভাড়াটেদের সঙ্গে সমঝোতা করতেও রাজি হন না৷

বার্লিনে ভাড়াটেদের অবস্থা আরো সঙ্গিন৷ বর্তমান ভাড়াটেকে বিদায় করতে পারলে দ্বিগুণ ভাড়া দিয়ে পরের ভাড়াটে আনতে পারেন বাড়ির মালিকরা৷ এই সুযোগটা অনেকে হাত ছাড়া করতে চান না৷

প্রায়ই সামাজিক ভাতাভোগীরা উচ্ছেদের শিকার হন৷ এক্ষেত্রে অনেক সময় সোশাল সার্ভিস তাদের সাহায্য করে থাকে৷ বাড়িওয়ালা হিসাবে রিয়েল এস্টেট কোম্পানিগুলি কিছুটা নমনীয়৷ কিছুটা মাশুল দিলে তাদের ভাড়াটেরা উৎখাতের হাত থেকে রক্ষা পান৷ কিন্তু সমস্যা হলো জার্মানিতে ব্যক্তিগত মালিকানার বাড়িই ৮০ শতাংশ৷ তাদের অনেকেই ভাড়ার ব্যাপারে নমনীয় হতে রাজি হন না৷

মালিক পক্ষেরও যুক্তি রয়েছে

আলাপ আলোচনায় অনীহার ব্যাপারে বাড়ির মালিকদের পক্ষেও যুক্তি রয়েছে৷ বাড়ি মালিক সমিতির কাই ভার্নেকে ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘‘জার্মানির বাড়িভাড়া সংক্রান্ত আইনকানুনে ভাড়াটেকেই অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে৷''

আদালতের রায় প্রায়ই ভাড়াটের পক্ষে যায়৷ অনেক ক্ষেত্রে ভাড়াটেকে নোটিশ দেওয়ার পর তাঁর বিদ্যুৎ ও পানির বিল বাড়িওয়ালাকে দিতে বলা হয়৷ তাই বাড়ির মালিকরাও ‘অপ্রিয়' ভাড়াটেকে উঠিয়ে দিতে চান৷ অবশ্য কিছু কিছু বাড়ির মালিক শুধু লাভের জন্যও ‘সস্তার' ভাড়াটেকে উঠিয়ে দেন৷

কারণটা যাই হোক না কেন জার্মানিতে উচ্ছেদের ঘটনা বাড়ছে৷ সেই সাথে বাড়ছে গৃহহীনদের সংখ্যাও৷ অদূর ভবিষ্যতে এ ক্ষেত্রে পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন