1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জার্মানিতে তরুণ ইউটিউবাররা যে সুবিধা পান

মাত্র ক'দিন আগে কোলন শহরে সমবেত হন কয়েক হাজার ইউটিউবার৷ ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এই ট্রেন্ড৷ ডয়চে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বার্লিনের ‘ইউটিউব স্পেস'-এর পরিচালক মুনিরা লাটরশ জানান ইউটিউবে সাফল্য পাওয়ার মন্ত্র৷

জার্মানির কোলনে গতমাসে এক অনুষ্ঠানে সমবেত হন ১৫ হাজারের মতো ইউটিউবার, যাঁরা জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ার ওয়েবসাইট ইউটিউবের জন্য কন্টেন্ট তৈরি করেন৷ ইউরোপে ইউটিউব কমিউনিটির সর্ববৃহৎ সেই সমাবেশে ছিলেন অনেক নতুন মুখ, যাঁরা বার্লিনের ইউটিউব স্পেস থেকে ইউটিউবার হয়ে ওঠার প্রয়োজনীয় সহায়তা পেয়েছেন৷

মুনিরা লাটরশ ইউটিউব স্পেসে প্রশিক্ষণ কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন৷ গতবছর চালু হওয়া এই সেন্টারে ইউটিউবারদের নিজেদের আইডিয়াকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করা হয় বলে জানান তিনি৷

YouTube Space Screenshot

ইউটিউবাররা স্পেসে স্টুডিও বুক করতে পারে এবং রুমের মধ্যে ভিডিও করতে পারে

ডয়চে ভেলে: টোকিও, নিউ ইয়র্ক, সাও পাওলো, টরন্টো এবং মুম্বইসহ বিশ্বের নয়টি শহরে ইউটিউব স্পেস রয়েছে৷ এটা আসলে কী?

মুনিরা লাটরশ: ইউটিউব স্পেস হচ্ছে নবীন ইউটিউবারদের জন্য কাজ শুরু করার এক জায়গা যেখান থেকে তাঁরা নতুন কিছু শিখতে পারে৷ কিভাবে সহজে এবং কম খরচে ভিডিও তৈরি করা যায় এবং কীভাবে ইউটিউবে সফল হওয়া যায়, সেসম্পর্কে প্রশিক্ষণ দেই আমরা৷ আমরা তাঁদেরকে তাঁদের চ্যানেল সম্পর্কে একটি কৌশল তৈরি করতে এবং ভিডিও প্রোডাকশনের জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করি৷

ইউটিউবাররা স্পেসে স্টুডিও বুক করতে পারে এবং রুমের মধ্যে ভিডিও করতে পারে৷ স্পেসে থাকা প্রোডাকশন বিশেষজ্ঞরা লাইটিং এবং ক্যামেরার সিটিংসের বিষয়াদি নবীনদের দেখিয়ে দেন৷ পাশাপাশি ইউটিউব স্পেস ইউটিউবারদের মধ্যে নেটওয়ার্কিংয়ের জন্য এক আদর্শ জায়গা৷

Videodays Köln 2015

জার্মানিরও রয়েছে এক অনন্য ইউটিউব কমিউনিটি

কোন ধরনের কন্টেন্ট সাফল্য পেতে পারে তা কি আপনারা দেখিয়ে দেন?

এই বিষয়টি আমরা একেবারেই করতে চাই না৷ তার বদলে আমার চেষ্টা করি ইউটিউবারদের নিজস্ব আইডিয়া বাস্তবায়নে সহায়তা করতে৷ প্রায়শই দেখা যায়, তরুণরা আমাদের চেয়ে ভালো আইডিয়া নিয়ে আসেন, কেননা তাঁরা জানেন তাঁদের বন্ধুরা এবং অনুসারীরা ঠিক কী চায়৷ ইউটিউবের প্রত্যেক চ্যানেলের নিজস্ব দর্শক রয়েছে এবং প্রত্যেকটি চ্যানেলকেই আলাদা আলাদাভাবে বিবেচনা করতে হয়৷

ভিডিও দেখুন 03:24

ইউটিউবে অনেক ভোকাবুলারি ইংরেজি থেকে যোগ হয়েছে৷ তার মানে কি এই যে ইউটিউবে অধিকাংশ আইডিয়াই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসছে? জার্মানির ইউটিউব সিন কেমন?

সুন্দর দিকটা হচ্ছে প্রত্যেক দেশের নিজস্ব একটি ইউটিউব কমিউনিটি রয়েছে৷ আর সেগুলো পুরোপুরি দেশনির্ভর৷ জার্মানিরও রয়েছে এক অনন্য ইউটিউব কমিউনিটি৷ এখানে প্রত্যেকের মধ্যে যোগাযোগ রয়েছে৷ তাঁরা একে অপরের কাছ থেকে সহায়তা নেন এবং যৌথভাবে বিভিন্ন ইভেন্টের আয়োজন করেন৷ অন্যান্য দেশের ইউটিউবারদের মধ্যে এ ধরনের কার্যক্রম খুব একটা দেখা যায় না৷ তবে অন্যান্য দেশ থেকে আসা অনেক আইডিয়া জার্মান ইউটিউবরা গ্রহণ করছে, প্রভাবিত হচ্ছে৷

জার্মানি থেকে শুরু হয়েছে এমন কোনো ট্রেন্ড কি আছে?

হ্যাঁ, লেফ্লোইড-এর নিউজ ফর্মেট৷ তাঁর দেখা দেখি আরো অনেক চ্যানেলে একইভাবে সংবাদ প্রচার হচ্ছে৷ এটার কারণ হচ্ছে তিনি সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে নিউজ উপস্থাপনের এক পন্থা বের করেছেন৷ অথচ শুরুর দিকে অনেকে বলেছিলেন, এই পন্থা ধোপে টিকবে না৷ কিন্তু পরবর্তীতে দেখা গেলো তা একটা নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর মনোযোগ আকর্ষণে সক্ষম হয়েছে৷

লেফ্লোইড-এর আইডিয়াটা ছিল, যা কিছু তাঁকে বিরক্ত করে তাই নিয়ে কথা বলে যাওয়া৷ সঙ্গে অন্যান্যদের মতামত গ্রহণ এবং সেটাও তুলে ধরা৷ এটা দারুণ কাজ করেছে৷

আমরা অবশ্য ইউটিউবারদের সামাজিক দায়বদ্ধতা এবং নিজেদের দায়িত্ব সম্পর্কেও সচেতন করার চেষ্টা করছি৷ আন্টি-বুলিং ক্যাম্পেইনেরও আয়োজন করছি আমরা৷ এ জন্য বিভিন্ন স্কুলে আমাদের কার্যক্রম রয়েছে৷

বন্ধুরা, কেমন লাগলো সাক্ষাৎকারটি? লিখুন নীচে, মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন