1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

জার্মানিতে ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে ডাক যোগে ভোটদান

জার্মান সংসদীয় নির্বাচনে প্রত্যেক নাগরিকেরই ডাক যোগে ভোট দেওয়ার অধিকার রয়েছে৷ এটা ভোটারদের জন্য এক অতিরিক্ত সুবিধা৷ কিন্তু এতে আবার ‘ম্যানিপুলেশন' বা প্রভাব বিস্তারের ঝুঁকিও থাকে৷

‘‘জার্মানির শহরগুলিতে প্রায় ৩০ শতাংশ ভোটারই পোস্টাল ব্যালটের সুবিধাটা গ্রহণ করেন৷ বড় বড় শহরগুলিতে সংখ্যাটা আরো বেশি'', বলেন মারবুর্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানী নরব্যার্ট ক্যায়র্সটিং৷ প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে আর তার কারণ, ‘‘আমরা স্বতন্ত্রীকরণের দিকে ঝুঁকছি৷ রাজনীতিতে অংশগ্রহণ সহজ করতে চাইছি৷'' ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাত্কারে ব্যাখ্যা করে জানান রাষ্ট্রবিজ্ঞানী নরব্যার্ট ক্যায়র্সটিং৷ সুইজারল্যান্ডে ১৯৯০-এর দশকে পোস্টাল ভোটের প্রচলণ শুরু হয়৷ আজ শহরগুলিতে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত ভোট ডাক যোগে দেওয়া হয়৷

ডাক যোগে ভোটদান সহজ করা হয়েছে

জার্মানিতে ১৯৫৭ সালে পোস্টাল ভোট চালু হয়৷ নির্বাচনের সময় বিদেশে অবস্থান করলে কিংবা অসুস্থতার কারণে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হতে না পারলে ভোটাররা ডাক যোগে ভোট দিতে পারেন৷ ২০০৮ সাল পর্যন্ত এই ভাবে ভোট দিতে হলে কারণ দেখাতে হতো৷ তারপর থেকে ভোটারদের ওপরই ছেড়ে দেওয়া হয়, কীভাবে তারা এই নাগরিক অধিকারটি প্রয়োগ করবেন৷

Themenpaket Bundestagswahl - Briefwahl Die Postmitarbeiterin Gabriele Paschke hält im Briefzentrum Berlin Nord in Stahnsdorf (Brandenburg) Briefumschläge mit Wahlunterlagen in den Händen (Archivfoto vom 01.09.2005). Die Deutsche Post stellt jetzt die Briefunterlagen zur Wahl des Deutschen Bundestages an die Briefwähler in Brandenburg zu....

ডাক যোগে ভোটদান (ফাইল ফটো)

আজকাল এই সুযোগটির সদ্ব্যবহার করছেন অনেকেই৷ তবে সমালোচনাও শোনা যায় এই ব্যাপারে৷ ইয়েনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন-দর্শনের অধ্যাপক রল্ফ গ্র্যোশনার পোস্টাল ভোটের ব্যাপারে সন্দিহান৷ তাঁর মতে, ‘‘ভোটদান প্রকাশ্য নির্বাচন কেন্দ্রে হওয়া উচিত, বাড়িতে নয়৷'' এক্ষেত্রে পরিবার পরিজন, বন্ধু-বান্ধবরা প্রভাব বিস্তার করতে পারে৷ এক দলের কথা চিন্তা করে আরেক দলকে ভোট দিয়ে ফেলতে পারে মানুষ৷

প্রভাব বিস্তারের সম্ভাবনা

২০০০ সালে নেওয়া ব্রিটেনে এক সমীক্ষায় জানা গেছে, ডাক ভোটে প্রায়ই প্রভাব বিস্তারের ঘটনা ঘটে৷ যেমন দেখা গেছে কোনো সংঘ বা সমিতির সদস্যরা একই পার্টিকে ভোট দেন৷ নিজস্ব মতামত উপেক্ষা করে দলের চাপের কাছে নতি স্বীকার করেন৷ তবে এর একটা ইতিবাচক দিকও রয়েছে৷ ‘‘যেমন লক্ষ্য করা গেছে, যে সব এলাকায় শুধুমাত্র ডাক ভোট চালু, সেই সব এলাকায় ভোট দেওয়ার হারও সর্বোচ্চ'', বলেন রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ক্যায়র্সটিং৷

ইয়েনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রল্ফ গ্র্যোশনার মনে করেন, প্রভাব বিস্তারের ঝুঁকি থাকলেও ডাকভোটের প্রয়োজনীয়তা অস্বীকার করা জায় না৷ তাঁর ভাষায়, ‘‘আমাদের এই নিশ্চয়তা থাকতে হবে, যাঁরা ভোট দিতে চান, তাঁরা যেন দিতে পারেন৷''

এবারের নির্বাচনেও রয়েছে এই সুযোগ

জার্মানির এবারের সংসদীয় নির্বাচনেও যথারীতি ডাক ভোটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে৷ বিদেশে বসবাসরত ভোটারদের জন্য ২০১৩ সালের পয়লা সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিজস্ব এলাকার ভোটার তালিকায় নাম লেখানোর সুযোগ রাখা হয়৷ এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ফর্ম জার্মান দূতাবাস বা দূতাবাসের ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়৷ এই সময়সীমা ইতোমধ্যে পার হয়ে গিয়েছে৷ আশা করা যায়, অনেকেই এর মধ্যেই কাজটা সম্পন্ন করতে পেরেছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন