1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

জার্মানরা নিজ এলাকার তেল পছন্দ করেন

বেশিরভাগ জার্মানই চান রান্নার কাজে তিনি যে তেলটা ব্যবহার করবেন, সেটা যেন তাঁর নিজের এলাকায় উৎপাদিত উদ্ভিদ থেকে উৎপন্ন হয়৷ এর ফলে তেলটা খাঁটি হবে, এমন বিশ্বাস জার্মানদের৷

এডেকা সুপারমার্কেটের মালিক মার্টিনা কর্ড বলেন, ‘‘আমাদের ক্রেতাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলো, তেলটা যেন নিজেদের এলাকার হয়৷ কারণ তাহলে সেই তেলের উপর বিশ্বাসটা থাকে৷''

রেপসিড থেকে তেল উৎপন্ন করে টয়টোবুর্গ কোম্পানি৷ নর্থ রাইন-ওয়েস্টফালিয়া রাজ্যের এই তেলের মিলে শুধু সে সব কৃষকদের উৎপাদিত রেপসিড ব্যবহার করা হয়, যারা পরিবেশবান্ধব মানদণ্ড মেনে চলেন৷ প্রতিবার ডেলিভারি নেয়ার সময় সেটা পরীক্ষা করে দেখা হয়৷

মাঝারি আকারের এই মিলটির প্রধান মান নিয়ন্ত্রকের কাছ থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পরই কেবল তেল উৎপাদনের কাজে রেপসিডের ব্যবহার শুরু করা যায়৷

কোম্পানির এক কর্মকর্তা মিশায়েল রাস বলেন, ‘‘আমরা যেহেতু খোসা ছাড়ানো বীজ থেকে ‘কোল্ড-প্রেসড' তেল উৎপাদন করি, কাঁচামালের মান আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ কারণ উৎপাদন প্রক্রিয়ার শেষে যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে তেলের কোয়ালিটিতে পরিবর্তন আনা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়৷ তাই বীজের মান আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷

তেল উৎপাদনের প্রক্রিয়া সম্পর্কে বলতে গিয়ে মিশায়েল রাস বলেন, ‘‘প্রথমে রেপসিডের কঠিন খোসাগুলো কলে ভাঙা হয়৷ তারপর চালনি আর ব্লোয়ার দিয়ে বীজ থেকে আলাদা করা হয়৷ তারপর যন্ত্রের মাধ্যমে বীজ পিষে তেল বের করা হয়৷ তারপর সেই তেল ফিল্টার করে বোতলে ভরা হয়৷ ফলে তেল আর পরিশোধন করতে হয় না, রাসায়নিক পদার্থ ও জ্বালানি বেঁচে যায়৷''

পিষ্ট করার পর বীজে যে অবশিষ্টাংশ থাকে, যাকে ‘কেক' বলে, সেটাও পুনরায় ব্যবহার করা যায়৷ কারণ এতে মূল্যবান প্রোটিন রয়েছে৷

রাস বলেন, ‘‘এই কেক গুঁড়া করে আমরা হলুদ রংয়ের আটা পেতে পারি, যা সরিষার পরিবর্তে তৈরি করা যায়৷ এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, এটা অ্যালার্জিক নয়৷ এছাড়া এই প্রোটিন থেকে কীভাবে সরাসরি উপকার পাওয়া যায় এবং মানুষ পুষ্টি পেতে পারে, সে বিষয়েও আমরা কাজ করছি৷ কারণ রেপসিড হলো উদ্ভিদজাত প্রোটিনের মধ্যে সবচেয়ে ভাল আমিষ৷''

সরিষা জাতীয় সব উদ্ভিদের মধ্যে রেপসিডই মাংসের বিকল্প হতে পারে৷ তবে এ জন্য কোম্পানিকে আরও গবেষণা করতে হবে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক