1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জামায়াতের হরতালে সমর্থন নেই বিএনপির

মঙ্গল ও বুধবার জামায়াতের ডাকা টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতালে এখনো সমর্থন দেয়নি বিএনপি৷ শেষ পর্যন্ত সমর্থন দেবেনা বলেই মনে হচ্ছে৷ তবে বিএনপি কোনো রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ বা তার নিবন্ধন বাতিলের বিরুদ্ধে৷

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য হান্নান শাহ ডয়চে ভেলেকে এসব কথা জানিয়েছেন৷

ঈদের ছুটি শেষ হয়েছে শনিবার৷ রবিবার থেকে সরকারি অফিস আদালত খোলা৷ আর মঙ্গল ও বুধবার সারাদেশে জামায়াতে ইসলামীর লাগাতার ৪৮ ঘণ্টার হরতাল৷ হাইকোর্ট জামায়াতের নিবন্ধন অবৈধ ঘোষণা করায় ঈদের আগেই তারা এই হরতাল ডাকে৷ এই হরতাল নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হলেও জামায়াত তা প্রত্যাহার করেনি৷ একদিন পিছিয়েছে মাত্র৷ তবে এই হরতাল নিয়ে জামায়াত নেতাদের হাইকোর্টে তলব করা হয়েছে৷ হাইকোর্ট জানতে চেয়েছে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল, কেন আদালত অবমাননা হবেনা৷

জামায়াত নেতারা এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি৷ তবে তাদের ওয়েবসাইটে দেশবাসীকে হরতাল পালনের আহবান জানানো হয়েছে৷ আর জামায়াতের আইনজীবী আ্যডভোকেট তাজুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে বলেন, জামায়াতের হরতাল নিয়ে যেহেতু হাইকোর্ট একটি কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন তাই এ নিয়ে কোনো কথা বলা ঠিক হবেনা৷

এদিকে হরতালে বিএনপি এখনো কোনো সমর্থন দেয়নি৷ বিএনপি'র নেতৃত্বে ১৮ দলীয় জোটের অন্যকম শরিক জামায়াতে ইসলামী৷ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হান্নান শাহ ডয়চে ভেলেকে বলেন জামায়াত দলীয়ভাবে হরতাল ডেকেছে৷ তাই বিএনপি এই হরতালে সমর্থন দেয়নি৷ অতীতেও যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধসহ নানা ইস্যুতে জামায়াত হরতাল করেছে৷ সেইসব হরতালেও সমর্থন দেয়নি বিএনপি৷ তিনি বলেন জামায়াত ১৮ দলীয় জোটের শরিক৷ তাই বলে তার সবধরণের দলীয় বিষয়ে বিএনপি'র সমর্থন থাকবে এটা যৌক্তিক নয়৷ আর জোটের কর্মসূচি জোটগতভাবে দেয়া হয়৷ তারপরও যদি জোটের সঙ্গে যুক্ত কোনো দলের হরতালসহ অন্যান্য কর্মসূচিতে জোটের রাজনৈতিক স্বার্থ প্রতিফলিত হয় তাহলে সেই কর্মসূচিতে বিএনপিসহ জোটভুক্ত অন্যান্য দল সমর্থন দিতে পারে৷

তবে হান্নান শাহ মনে করেন সরকার আদালতকে তার রাজনৈতিক উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে ব্যবহার করছে৷ তিনি বলেন পৃথিবীর কোনো দেশে রাজনৈতিক বিষয়ে আদালত সিদ্ধান্ত দেয়না৷ রাজনৈতিক বিষয়ে রাজনৈতিকভাবেই সিদ্ধান্ত হয়৷ তিনি বলেন জামায়াতকে নিবন্ধন দিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ আর এই নিবন্ধন প্রক্রিয়া চলমান৷ কোনো ভুল হলে তা সংশোধনের সুযোগ আছে৷ নিবন্ধন বাতিল করার ক্ষমতাও নির্বাচন কমিশনের৷ তাই এটাকে আদালতে টেনে নেয়ার কোনো যৌক্তিক কারণ নেই৷

হান্নান শাহ বলেন দেশদ্রোহী কার্যকলাপ ছাড়া অন্যকোনো কারণে কোনো দলের নিবন্ধন বাতিল বা দল নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে বিএনপি৷ বিএনপি একটি উদার গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় বিশ্বাসী৷ সেখানে ভিন্নমতের সুযোগ থাকতে হবে৷

এদিকে হরতালে ১৮ দলের অন্য কোনো শরিকের সমর্থনও জামায়াত জোগাড় করতে পারছেনা বলে জানা গেছে৷ পয়লা আগস্ট জামায়াতের নিবন্ধন অবৈধ বলে দেয়া হাইকোর্টের রায়ের পর তাৎক্ষণিকভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি বিএনপি৷ জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মকবুল আহমদের অনুরোধে একদিন পর বিএনপি প্রতিক্রিয়া জানায়৷ সেই প্রতিক্রিয়ায় সরাসরি জামায়াতের নাম উল্লেখ না করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘‘কোনো রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বাতিল বা দল নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে বিএনপি৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়