1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘জাপানে বাংলাদেশি নিহত বা নিখোঁজের খবর নেই’

ভূমিকম্প এবং সুনামি বিধ্বস্ত জাপানে উদ্ধারকারী দল পাঠাবার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ৷ সেই সঙ্গে সেখানে এখনো কোন বাংলাদেশি নিহত বা আহত কিংবা নিখোঁজ হবার কোন খবর আসেনি বলে জানিয়েছেন জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত৷

default

জাপানে উদ্ধার তৎপরতা চলছে

জাপানে স্মরণকালের ভয়াবহ ভূমিকম্প এবং সুনামির কবলে পড়ে কোন বাংলাদেশি আহত বা নিহত বা নিখোঁজ হয়েছেন কি না – তা জানতে টোকিওতে বাংলাদেশ দূতাবাসে খোলা হয়েছে একটি বিশেষ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ৷ এছাড়া স্থানীয় বাংলাদেশিদের বলা হয়েছে, কোন তথ্য পাওয়া মাত্র দূতাবাসকে জানাতে৷ এদিকে, বাংলাদেশ সরকার বন্ধুরাষ্ট্র জাপানের এহেন পরিস্থিতিতে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে৷

জাপানের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চাইলে জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এ কে এম মজিবুর রহমান ভুঁইয়া জানান, গত রবিবার তেজস্ক্রিয়তার মাত্রা কমছে বলে উল্লেখ করা হলেও সোমবার তা আবার বেড়ে গেছে৷ তিনি জানান, এখনো তেজস্ক্রিয় বিকিরণের মাত্রাটা বিপজ্জনক মাত্রা থেকে সরেনি৷

Flash Galerie Fukushima 2011

বাংলাদেশিরা যাতে পারমাণবিক তেজস্ক্রিয়তার কবলে না পড়েন, সেজন্য উদ্যোগী দূতাবাস

এক প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত জানান, জীবনযাত্রায় স্বাভাবিকতা এখনো ফিরে আসেনি৷ বিদ্যুৎ সংকটের পাশাপাশি রয়েছে টেলিযোগাযোগ সমস্যা এবং নতুন করে ভূমিকম্পের আশঙ্কা৷ তিনি জানান আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশও একটি উদ্ধারকারী দল পাঠানোর কথা বলেছে৷ জাপানের সম্মতি পাবার পরই ঢাকা থেকে তারা রওনা দেবেন৷ এ জন্য দূতাবাস পুরোপুরি প্রস্তুত৷

তিনি জানান, জাপানে ভয়াবহ ভূমিকম্প ও সুনামিতে কোন বাংলাদেশি আহত বা নিহত বা নিখোঁজ হয়েছেন বলে কোন সংবাদ তারা পাননি৷ তবে সেন্ডাই শহরের কয়েকটি আশ্রয়কেন্দ্রে প্রায় ৭০ জন বাংলাদেশি আশ্রয় নিয়েছিলেন৷ তারা যেন পারমাণবিক তেজস্ক্রিয়তার কবলে না পড়েন, সেজন্য তাদেরকে সেন্ডাই থেকে টোকিও শহরে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে৷ ইতিমধ্যে ৫২ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মীরা টোকিওর পথে রওয়ানা হয়েছেন বলে তিনি জানান৷ তিনি বলেন, ভূমিকম্প এবং সুনামির পর থেকেই সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের সাথে দূতাবাসের পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে৷

সাক্ষাৎকার ও প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়