1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ব্লগওয়াচ

‘‘জাতীয় নেতার কাছে ‘ফাও বক্তব্য' মোটেও কাঙ্খিত নয়''

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সফরে গিয়ে ‘দেশ বিক্রি' করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া৷ তাঁর এই সমালোচনার জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা এই কথা বলছে, তারা ‘অর্বাচীন'৷

রবিবার রাতে আইনজীবীদের এক অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া বলেন, ‘‘আজকে দেশ বিক্রি করে দিয়েছে৷ সেজন্য পাঁচ বছরের জন্য এটা একটা চুক্তি করেছে – পাঁচ বছর তাঁকে (শেখ হাসিনা) থাকতে দিতে হবে৷ এই চুক্তি তো তিনি সেজন্য করলেন৷ ঐ পাঁচ বছর পরে উনারা বোধ হয় কাগজে-কলমে দেশটাকে লিখে দিয়ে মনে হয় বিদায় নেবে আর কি৷''

এদিকে, সোমবার ভারতের দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘যারা বলে দেশ বিক্রি করে দিয়েছি, তারা অর্বাচীন৷''

খালেদা জিয়ার ‘দেশ বিক্রি'-র অভিযোগ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেকে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন৷ এক্ষেত্রে কেউ কেউ তাঁদের রসবোধের পরিচয় দিয়েছেন৷ যেমন নাহিদা নিশী লিখেছেন, ‘‘দেশ যদি বিক্রি হয়ে যায়, তাহলে তো আমিও বিক্রি হয়ে গেছি! আমারে বিক্রি করে যে দুই টাকা পাইসেন, হেইটা আমারে বুঝায়া দ্যান! আমি ক্ষুধার্ত!'' ফজলুল বারী লিখেছেন, ‘‘দেশ বিক্রি হইয়া যাইবার পর বিএনপির জন্য একটি পরিবর্তিত যুতসই নাম আহবান করা হইতেছে :)''

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকনও তারেক রহমান ও খালেদা জিয়ার নাম উল্লেখ করে ফেসবুকে একটি রম্যরচনা শেয়ার করেছেন৷ গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা: ইমরান এইচ সরকার লিখেছেন, ‘‘দেশ তো বিক্রি হয়ে গেলো, এখন আমরা কি সবাই বিদেশি?''

টুইটারেও প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অনেকে৷

এদিকে, খালেদা জিয়া কিসের ভিত্তিতে দেশ বিক্রির অভিযোগ তুলছেন- তা তাঁর কাছে জানতে চাওয়া উচিত বলে মনে করছেন শওগাত আলী সাগর৷ রাষ্ট্রও সেটি করতে পারে বলে ফেসবুকে লিখেছেন তিনি৷ সাগর বলেন, ‘‘ভারতের সাথে সম্পাদিত চুক্তিগুলো সম্পর্কে যদি বেগম খালেদা জিয়ার কাছে তথ্যই থাকে, তা হলে তার উচিত সুনির্দিষ্টভাবে সেগুলো দেশবাসীর সামনে তুলে ধরা৷ কোন চুক্তিতে কীভাবে দেশ বিক্রি হয়েছে সেগুলো জনগণকে পরিষ্কার ধারণা দেওয়া৷ একজন জাতীয় নেতার কাছে ‘ফাও বক্তব্য' মোটেও কাঙ্খিত নয়৷ তাও আবার দেশ নিয়ে৷ রাজনীতিতে ‘ফাওল টক' বন্ধ হওয়ার জন্যই এই ধরনের কথাবার্তা জবাবদিহির মধ্যে আনা দরকার৷''

সাগর রহমান লিখেছেন, ‘‘চীনের সাথে বিএনপি প্রতিরক্ষা চুক্তি করলে যদি বাংলাদেশ বিক্রি না হয় তাহলে ভারতের সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তি করলে দেশ বিক্রি হবে কেন?''

এদিকে,মোহাম্মদ আরিফুর রহমান কয়েকজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে লিখেছেন, ‘‘কিছু লোক কথায় কথায় বলে ‘জন্মের পর থেকেই শুনে আসছি ভারতের কাছে দেশ বিক্রি করে দেয়া হয়েছে৷ কই, ভারত তো এখনো দেশ দখল করলোনা?' আসলে সব বিষ কি আর সাথে সাথে কাজ করে? ১৬০০ খ্রিষ্টাব্দে ভারতীয় উপমহাদেশে বাণিজ্য করার জন্য আসা ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির উদ্দেশ্য বুঝতে ১৭৫৭ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছিল৷ তুমি পাওনাই তো কি হয়েছে? অপেক্ষা করো, তোমার পরের প্রজন্ম সবই দেখতে পারবে৷''

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়