1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

জাতীয় দল থেকে অবসর অ্যার্নান্দেসের

তিনটি বড় বিজয়ের সাক্ষী তিনি৷ দলে থাকাকালীন স্পেন জিতেছে সবচেয়ে বড় শিরোপা বিশ্বকাপ, সেই সাথে দুইটি ইউরো শিরোপা৷ কিন্তু এবারের বিশ্বকাপের ব্যর্থতা হয়ত মেনে নিতে পারেননি সাবি অ্যার্নান্দেস৷ তাই অবসর নিলেন জাতীয় দল থেকে৷

স্পেনের সেরা মিডফিল্ডারদের একজন বলা হয় তাঁকে৷ ৩৪ বছর বয়সি সাবি অ্যার্নান্দেস (বানানভেদে জাভি হার্নান্দেজ) স্পেনের হয়ে বিশ্বকাপ জয়ের পাশাপাশি দুটি ইউরো শিরোপা জিতেছিলেন৷ জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তিনি ১৩৩টি ম্যাচ খেলেছেন৷ গোল করেছেন ১৩টি৷ তাঁর ক্লাব বার্সেলোনার আর এক মিডফিল্ডার ইনিয়েস্তার মতে সাবি স্পেনের ‘টিকি-টাকা'-র অন্যতম প্রধান উপাদান৷ ২০১০ সালে স্পেনের বিশ্বকাপ শিরোপা জেতার পেছনে অনন্য অবদান ছিল সাবির৷ ২০০৮ সালে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি৷

এক সংবাদ সম্মেলনে সাবি বলেন, ‘‘এতগুলো বছর স্পেনের হয়ে খেলতে পেরে আমি কৃতজ্ঞ৷ এতগুলো জয়ের সাক্ষী হতে পেরে আমি ধন্য৷ এখন থেকে আমার ভূমিকা হবে জাতীয় দলের এক নম্বর ভক্ত হয়ে খেলা দেখা৷''

WM-Stars Andres Iniesta Xavi Hernandez

ইনিয়েস্তার সঙ্গে দীর্ঘদিন স্পেনের মধ্যমাঠ সামলেছেন সাবি (ডানে)

তিনি আরো বলেন, ‘‘জাতীয় দলে খেলার সময়টা আমি দারুণ উপভোগ করেছি৷ এখন আমার সময় শেষ হয়েছে বলে আমি মনে করি৷ আমি ২০১২ সালেই অবসর নিতে চেয়েছিলাম৷ কিন্তু কোচ ভিসেন্তে দেল বস্কে আমাকে অবসর নিতে দেননি৷ তাঁর ইচ্ছে ছিল আমি ব্রাজিল বিশ্বকাপেও খেলি৷ কিন্তু ব্রাজিল বিশ্বকাপ আমাদের জন্য হতাশা বয়ে এনেছে৷ বিশেষ করে আমার জন্য৷''

কোচ দেল বস্কে জানান, ‘‘আমরা অন্যতম সেরা এক খেলোয়াড়কে হারালাম৷ তাঁর খেলার ধরণ একেবারেই ভিন্ন৷ আর এ কারণেই আমরা এমন কিছু জয় পেয়েছি৷ স্পেনের হয়ে সাবির খেলা ১৩৩টি ম্যাচের মধ্যে ১০০টিতেই জয় পেয়েছে স্পেন৷ তবে ক্লাবের হয়ে খেলা চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন বার্সেলোনার এই প্লেয়ার৷ আগস্টের ২৪ তারিখ থেকে নতুন মৌসুমে খেলবে বার্সেলোনা৷

প্রসঙ্গত, ২০০০ সালের ১৫ই নভেম্বর নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ২০ বছর বয়সে স্পেনের হয়ে সাবির অভিষেক হয়৷

এপিবি/ডিজি (এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন