1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

জাতিসংঘকে প্রত্যাখ্যান করল ফেসবুক

জাতিসংঘের সোমালিয়া ও ইরিত্রিয়া বিষয়ক একটি মনিটরিং গ্রুপ তদন্তের স্বার্থে জলদস্যু ও জঙ্গিদের ব্যাপারে তথ্য চাইলে ফেসবুক তা দিতে অস্বীকার করেছে৷

জাতিসংঘের গ্রুপটি এক প্রতিবেদনে বলেছে জলদস্যুতা, আল-কায়েদার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট জঙ্গি ও সরকারের দুর্নীতি নিয়ে তারা তদন্ত করেছে৷ এতে অনেক বেসরকারি কোম্পানি সহায়তা করলেও ফেসবুক করেনি৷

তবে ফেসবুক এক বিবৃতিতে বলেছে, জাতিসংঘের ঐ গ্রুপটির কাছে বৈধ কোনো কাগজ না থাকায় তাদের সহায়তা করা হয়নি৷

এই ঘটনা এমন এক সময়ে ঘটলো যখন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা এনএসএ ফেসবুক, গুগল, ইয়াহুর কাছ থেকে নাগরিকদের সম্পর্কে তথ্য নেয় – এই খবর প্রকাশ করে আলোচনার ঝড় তুলেছেন সাবেক মার্কিন গোয়েন্দা এডোয়ার্ড স্নোডেন৷

এছাড়া শিশু নিরাপত্তা বিষয়ে মার্কিন আইন সংস্থাগুলোকে ফেসবুক নিয়মিত তথ্য দেয় বলে জানান যুক্তরাষ্ট্রের আইনজীবী ব্রাডলি শায়ের৷ তিনি সামাজিক যোগাযোগের আইন বিষয়ক একটি ব্লগও পরিচালনা করেন৷ শায়েরের ধারণা, জাতিসংঘের একটি সংস্থা ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে কাজ করছে বলে হয়ত ফেসবুক জাতিসংঘের সঙ্গে এমন করে থাকতে পারে৷

তবে সোমালিয়া মনিটরিং গ্রুপের সাবেক কো-অর্ডিনেটর ম্যাট ব্রাইডেন বলছেন জাতিসংঘের এ ধরণের গ্রুপের কাছে আসলে ‘সাপিনা' ক্ষমতা থাকে না৷ অথচ ফেসবুকের নীতিমালা অনুযায়ী, কোনো সংস্থা তদন্তের স্বার্থে তথ্য চাইলে তাদের কাছে অবশ্যই বৈধ ‘সাপিনা' থাকতে হবে৷ উল্লেখ্য, সাপিনা হচ্ছে সরকার বা আদালত থেকে ইস্যু করা এক ধরণের তলবনামা বা ডকুমেন্ট৷

এদিকে এক জলদস্যু কমান্ডার বার্তা সংস্থা এপিকে বলেছেন যে, তাঁরা ফেসবুক ব্যবহার করেন না৷

অবশ্য সোমালিয়ার জঙ্গি আল-শাবাব গোষ্ঠীর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে উপস্থিত থাকার প্রমাণ আগে পাওয়া গেছে৷

জেডএইচ/ডিজি (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়