1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বহু গাছের প্রজাতি হুমকির মুখে

বিশ্ব উঞ্চায়ন বিভিন্নভাবে বিশ্বে প্রভাব ফেলে ইতোমধ্যেই আমাদের মনোযোগ আকর্ষণ করেছে৷ এবার জেরুসালেমের হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা নতুন এক গবেষণার পরে বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে অনেক প্রজাতির গাছ এখন হুমকির মুখে৷

default

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা প্রকৃতির একার কাজ নয়

হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, দ্রুত ব্যাবস্থা গ্রহণ করা না হলে খুব শিগগিরি এইসব গাছের প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে যাবে৷ নতুন এই গবেষণা বলছে, দেবদারু বা মেপল ( যার নির্যাস থেকে চিনি ও সিরাপ তৈরি হয়) -এর মতো যেসব গাছ বাতাসের মাধ্যমে তাদের বীজ ছড়ায়, জলবায়ু পরিবর্তনে ফলে তারা সেভাবে আর তাদের বীজ ছড়াতে পারছে না৷ অর্থাৎ এইসব গাছের প্রজাতি লুপ্ত হতে বসেছে৷

হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের আলেক্সান্ডার সিলবারমান ইন্সটিটিউটের লাইফ সায়েন্স-এর প্রধান অধ্যাপক রান নাথান, তাঁর ছাত্র নির হরভিট্জ এবং অন্যান্য দেশের গবেষকরা এই গবেষণায় অংশ নেন৷ গবেষণায় মূলত আলোকপাত করা হয় জলবায়ু পরিবর্তন এবং পরিবেশে গাছের বিস্তারের ওপরে৷ আশঙ্কা করা হয়, জলবায়ুর এই পরিবর্তন পরবর্তী ৫০ বছর ধরে অব্যাহত থাকবে৷ সাথে সাথে বাড়বে বাতাসে কার্বন ডাই-অক্সাইড নির্গমনের মাত্রা এবং কমবে বায়ুমণ্ডলে বাতাসের গতিবেগ৷

Bonsai Baum

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বহু গাছের প্রজাতি হুমকির মুখে

বাংলাদেশের সাংবাদিক পিনাকি রায়৷ জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করছেন৷ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বিশ্বের নানান প্রান্তে গাছপালার ওপরে পড়া বিভিন্ন প্রভাব সম্পর্কে তিনি বললেন, ‘‘জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে তাপমাত্রার তারতম্য হচ্ছে বৃষ্টিপাতের তারতম্য হচ্ছে, এর ফলে প্রভাব পড়ছে বিভিন্ন গাছের ওপরে৷ যুক্তরাজ্যের ওয়েলসে যে লার্জ ট্রি ভ্যারাইটিগুলো রয়েছে জাপানিজ লার্জ বলে, সেগুলো কেটে ফেলতে হচ্ছে , কারণ তারা মারা যাচ্ছে, এক ধরণের রোগ হবার পরে, একই ঘটনা ঘটেছিল এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে৷ সেটা হয়েছিল ওক গাছের ওপরে৷ হিমালয়ের একটা সমীক্ষায় দেখা গেছে, হিমালয়ে যেসব গাছ আছে সেগুলোর ওপরও প্রভাব পড়ছে৷ কারণ, গাছপালা, প্রাণী যগত, কীট-পতঙ্গ, একে ওপরের ওপরে নির্ভরশীল৷ অনেক গাছের পড়াগন ঘটে মৌমাছির মাধ্যমে৷ হিমালয়ে তাপমাত্রার তারতম্যের কারণে তারা মাইগ্রেট করছে এক অঞ্চল থেকে আরেক অঞ্চলে৷ ফলে ঔসব মৌমাছি বা কীট-পতঙ্গের ওপরে যেসব গাছপালার পড়াগন নির্ভরশীল ছিল, তা ব্যাহত হচ্ছে৷''

অধ্যাপক নাথান বলেন, তাঁদের গবেষণাতে এই বিষয়টি খুব স্পষ্ট ভাবেই উঠে এসেছে যে, তাপমাত্রা পরিবর্তনের ফলে অনেক গাছপালায় হয়, শুকিয়ে যাচ্ছে, না হয় আর জন্মাচ্ছে না৷ আর এর ফলে ভবিষ্যতে বিভিন্ন প্রজাতির গাছের সমন্বয়ে তৈরি বনভূমিতে পরিবর্তন আসবে এবং সেই সঙ্গে বনভূমির আয়তনও কমে আসবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা প্রকৃতির একার কাজ নয়৷ এই সম্পর্কে অধ্যাপক নাথান বলেন, বিভিন্ন ধরণের পণ্যের ব্যাবহার কমিয়ে, মানবজাতির কর্মকান্ডই প্রকৃতির এই ধরণের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবে৷ আর তার মাধ্যমেই বিশ্বে পরিবেশগত দূষণের প্রক্রিয়াও কমে আসবে৷

জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম৷ তাপমাত্রার পরিবর্তন, শীতকাল এবং গরমকালের মধ্যে ক্রমাগতভাবে বেড়ে চলা তারতম্য, সর্বোপরি জলবায়ু পরিবর্তন কী ধরণের প্রভাব ফেলেছে বাংলাদেশের প্রকৃতিতে , অর্থাৎ গাছপালার ওপরে৷ এই কথাই জানতে চেয়েছিলাম পিনাকি রায়ের কাছে৷ তিনি বলেলেন, ‘‘ খুলনায় সুন্দরবনের কাছাকাছি অঞ্চল দাকোবে হয়তো জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে লবনাক্ততা বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ এর ফলে ঐ অঞ্চলে গাছপালার ওপরে ব্যাপক প্রভাব পড়ছে৷ অঞ্চলটিতে নারকেল, বেল, তুলশি, জবা এই ধরণের ফল ও ফুল গাছ অন্যান্য জায়গার তুলনায় অনেক কম৷ এলাকার লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত প্রায় দশ বছর ধরে তাদের এই সমস্যাটি হচ্ছে৷ এবং তাদের যেসব ফলও ফুল গাছ ছিল তা ধিরে ধিরে মারা যাচ্ছে৷ এর বদলে সুন্দরবনের বিভিন্ন গাছ, যেমন গোলপাতা, কেওড়া এই ধরণের গাছ, খালপাড়ে বা নদীর পাড় দিয়ে জন্মাচ্ছে৷ এলাকাবাসী বলছেন, যে মাটিতে লবনাক্ততার পরিমান বেড়ে যাবার কারণেই এই ধরণের গাছ ঐ অঞ্চলে জন্ম নিচ্ছে৷''

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়