1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জন্মদিন উদযাপন করতে গিয়ে প্রাণ যায় তাঁর

৪৬ বছর পর মা চেয়েছিলেন ছেলেকে এক নজর দেখতে৷ লকারবি বোমা হামলার ২৫ বছর পূর্তির কয়েকদিন আগে জানলেন, তাঁর ছেলেও ছিল সেই বিমানে, বোমা হামলায় ঝরে গেছে তাঁর প্রাণ!

২১ ডিসেম্বর৷ ২৫ বছর আগে এই দিনেই স্কটল্যান্ডের লকারবি শহরে বিধ্বস্ত হয়েছিল একটি বিমান৷ বোমার আঘাতে মারা যান বিমানের ২৭০ জন যাত্রী৷ লন্ডন থেকে নিউইয়র্কে যাওয়ার পথে বিমানটিতে হামলা হয়৷ হামলার দায় স্বীকার করেছিল লিবিয়া৷ এ কারণে ২০০৩ সালে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে মোট ২৭০ কোটি ডলার দিয়েছিল দেশটি৷ তবে ক্যারল কিং-অ্যাকারসলি একটি টাকাও পাননি৷ অবশ্য তাঁর সন্তান হারানোর ক্ষতি হাজার কোটি ডলার পেলেও পূরণ হতো না৷

১৯৬৭ সালে ক্যারল কিং-অ্যাকারসলি ছিলেন ১৯ বছর বয়সি এক তরুণী৷ সে বয়সেই মা হয়েছিলেন৷ কিন্তু ছেলে জন্ম নেয়ার দিনই এক দম্পতির হাতে নিজের সন্তানকে তুলে দেন ক্যারল৷ ভেবেছিলেন পালক পিতামাতার কাছেই চিরকাল থাকবে তাঁর ছেলে, দূর থেকে ভালোবেসে যাবেন, কোনো দিন দেখতে যাবেন না৷ কিন্তু স্বামী মারা যাওয়ায় একাকিত্বের যন্ত্রণা কুড়ে কুড়ে খাচ্ছিলো৷ আর কখনো মা হতে পারেননি বলে ৪৬ বছর আগে আরেক দম্পতির হাতে তুলে দেয়া সন্তানকে খুব দেখতে ইচ্ছে করছিল৷ শুরু করলেন খোঁজা৷

Lockerbie bomber Abdel Basset Ali al-Megrahi

আব্দেল বাসেত আল মেগ্রাহি

ছেলের নাম কেনেথ বিসেট- এটা মনে ছিল৷ ইন্টারনেটে খুঁজতে গিয়ে হঠাৎ চোখে পড়লো নামটি৷ ভালো করে দেখতে গিয়ে বুঝলেন নামটি লেখা হয়েছে লকারবিতে বিধ্বস্ত বিমানে মারা যাওয়া যাত্রীদের তালিকায়৷ সন্তানকে পাওয়ার দিনেই দূরে ঠেলে দেয়া, ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করতে গিয়েই মৃত্যু সংবাদ পাওয়া – ক্যারল কিং-অ্যাকারসলি নিজেকে এখন কোনো সান্ত্বনাই দিতে পারছেন না৷

বিবিসিকে ক্যারল বলেছেন, সন্তানকে দত্তক দিয়ে দিলেও ৪৬ বছরে একটা দিনও এমন ছিল না যেদিন ছেলের কথা মনে আসেনি৷ প্রায়ই মনে হতো এই বুঝি দরজায় কেউ কড়া নাড়বে, দরজা খুলতেই সুদর্শন এক তরুণ হেসে বলবে, ‘‘আমার মনে হয় তুমিই আমার মা৷''

ছেলে আসেনি, কোনো দিন এক পলকের দেখা হয়নি, একটিবারের জন্য তাঁর মুখে ‘মা' ডাকও শোনেননি ক্যারল কিং-অ্যাকারসলি৷ জেনেছেন, কেনেথ ছিল কর্নেল ইউনিভার্সিটির ছাত্র৷ ১৯৮৮ সালে লন্ডনে লেখাপড়ার কাজেই গিয়েছিল৷ নিউইয়র্কে ফেরার জন্য একদিন তৈরি হলেন৷ বন্ধুরা বলল, তারা কেনেথের জন্মদিনটা একসঙ্গে উদযাপন করতে চায়৷ তাই জন্মদিন উদযাপন করে ২১ ডিসেম্বর নিউইয়র্কেই ফিরছিলেন৷ কিন্তু বোমা হামলায় বিমান বিধ্বস্ত হওয়ায় ২১ বছরেই শেষ হয়ে যায় কেনেথ বিসেটের জীবন৷

ক্যারল কিং-অ্যাকারসলির মতো অনেক মা-ই তাঁদের প্রাণপ্রিয় সন্তানকে হারিয়েছিলেন ১৯৮৮ সালের সেই বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায়৷ হামলার জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়ে জেল খাটতে হয় লিবিয়ার গোয়েন্দা কর্মকর্তা আব্দেল বাসেত আল মেগ্রাহিকে৷ গত বছর ক্যানসারে ভুগে তিনি মারা যান৷

এসিবি/জেডএইচ (এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন