1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘জনগণই ঠিক করবে নির্বাচনের তারিখ’

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল বলেছেন, ‘‘বাংলাদেশে সবার অংশগ্রহণে একটি শক্তিশালী গণতন্ত্রকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র৷’’

Bangladesch Gewalt Wahl Jamaat-e-Islami Nationalist Party BNP Aktivisten

ফাইল ফটো

বাংলাদেশে গত পাঁচ জানুয়ারির নির্বাচনে অংশ নেয়নি দেশটির অন্যতম রাজনৈতিক দল বিএনপিসহ কয়েকটি দল৷ ফলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে বলে অনেকেই দাবি করে আসছে৷

নিশা দেশাইয়ের বাংলাদেশ সফর সেকারণে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছিল৷ ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচন কখন হবে তা এদেশের জনগণই নির্ধারণ করবে৷ আমরা রাজনৈতিক সংলাপের পক্ষে৷ যুক্তরাষ্ট্র আশা করে সকল রাজনৈতিক দল রাজনৈতিক কার্যক্রমকে দায়িত্বশীল ও শান্তিপূর্ণভাবে মোকাবেলা করবে৷''

তিন দিনের সফর শেষে শনিবার ঢাকা ত্যাগ করেছেন নিশা দেশাই৷ সফরে তিনি বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং সংসদে বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদের সঙ্গে সাক্ষাত্‍ করেন৷ এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী, পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হকের সঙ্গে বৈঠক করেন৷

মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফরের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘‘নিশা বিসওয়ালের এই সফরে একটা বিষয় পরিস্কার, আর তা হলো পাঁচ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যে অবস্থান ছিল এখনো সেই অবস্থান রয়েছে৷ তারা সব সময় সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে একটি নির্বাচন প্রত্যাশা করেছে৷ এখনও তাই করছে৷''

তিনি বলেন, ‘‘কিন্তু বাংলাদেশের রাজনীতিকদের মতো তারাতো আর বলতে পারেন না যে, এখনই আমরা একটা নির্বাচন আশা করছি৷ তারা কূটনৈতিক ভাষায় যেভাবে চাওয়ার সেভাবেই বলছেন৷ এর চেয়ে বেশি বললে মনে হবে, আমাদের রাজনীতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হস্তক্ষেপ করছে৷''

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক আহমেদ মনে করেন, বর্তমান সরকার যদি বিষয়টি বুঝে তাদের অবস্থান বদল করে সবার অংশগ্রহণে একটা নির্বাচনের ব্যবস্থা করে তাহলেই দেশে এক ধরনের স্বস্তিকর পরিবেশ ফিরে আসবে৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেকজন অধ্যাপক অবশ্য ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন৷ অধ্যাপক শাহেদুজ্জামান ডয়চে ভেলের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, ‘‘নিশা বিসওয়ালের এই সফরে পরিস্কার হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের আগের অবস্থানে নেই৷ তারা আর এখন সরকারের উপর কোনভাবেই চাপ সৃষ্টি করবে না৷ এই ম্যাসেজটা বিএনপি ক্লিয়ারভাবে পেয়ে গেছে৷ তারা এখন বুঝতে পারছে গত নির্বাচনে অংশ না নেয়া ছিল তাদের ভুল সিদ্ধান্ত৷''

তিনি বলেন, ‘‘আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ফোরামেও বাংলাদেশ ভালো করছে৷ ফলে আমাদের সরকারের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই চলবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷''

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক শাহেদুজ্জামান মনে করেন, বিএনপি বারবার আন্দোলনের কথা বললেও আসলে আন্দোলন করার মতো সামর্থ্য তাদের নেই৷ তারা এখন অত্যন্ত দুর্বল৷ তাছাড়া জামায়াতের বিষয়েও বিএনপি তাদের কৌশল ঠিক করতে পারেনি৷ ফলে সরকারের উপর তারা এমন কোন চাপ সৃষ্টি করতে পারবে না যে মধ্যবর্তী নির্বাচনের দিকে যাবে সরকার৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়