1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জঙ্গিদের নতুন টার্গেট পুলিশ পরিবার!

বাংলাদেশে একই দিনে জঙ্গিদের হাতে দু'জন নিহত হয়েছেন৷ তাঁদের মধ্যে চট্টগ্রামের পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে হত্যা করাকে জঙ্গিদের কৌশল পরিবর্তন বলে অপরাধ বিজ্ঞানীরা মনে করছেন৷

রবিবার সকালে জঙ্গিরা চট্টগ্রামের পাঁচলাইসের জিইসি মোড় এলকায় গুলি করে হত্যা করে পুলিশ সুপার(এসপি) বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে৷ মিতু তাঁর ছেলেকে স্কুলে দিতে গিয়ে জঙ্গিদের হামলার শিকার হন৷ তাঁর স্বামী এসপি বাবুল আক্তার জঙ্গিবিরোধী অভিযানে আলোচিত এক পুলিশ কর্মকর্তা৷ চট্টগ্রাম এলাকায় তাঁর ধারাবাহিক অভিযানের কারণে অনেক জঙ্গি আস্তানা তছনছ হয়ে গেছে, আটক হয়েছে অনেক জঙ্গি

অন্যদিকে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় রবিবার দুপুরে সুনীল গোমেজ (৬০) নামের এক খ্রিষ্টান ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়৷ আইএস এই হত্যার দায় স্বীকার করেছে৷

মিতু হত্যাকান্ড সম্পর্কে চট্টগ্রামের পুলিশ কমিশনার মো. ইকবাল বাহার সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘কে বা কারা কী জন্য এ খুনের ঘটনা ঘটিয়েছে, তা জানার জন্য তদন্ত করা হচ্ছে৷ বাবুল আক্তার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় ছিলেন৷ এ কারণে জঙ্গিরা হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে কিনা এমন আশঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছি না৷ প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড৷''

অডিও শুনুন 05:03

‘জঙ্গিবিরোধী অভিযানে সক্রিয়দের এভাবে দুর্বল করে দিতে চাইছে’

মিতুকে অতীতের বেশ কিছু ঘটনার মতো মোটর সাইকেল আরোহীরাই হত্যা করেছে৷ এরইমধ্যে ওই এলাকার একটি ভবনের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে তা স্পষ্ট হয়েছে৷ মোটর সাইকেলে মোট তিনজন আরোহী ছিলেন৷ পুলিশ সেই মটরসাইকেলটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে৷

গত বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সারা দেশে একই স্টাইলে ৪৫টি হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ এতে নিহত হয়েছেন ৪৭ জন৷ এসব হামলার অনেকগুলোরই দায় স্বীকার করেছে আইএস ও আল-কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের কথিত বাংলাদেশ শাখা আনসার আল ইসলাম৷

জঙ্গিরা এর আগে পুলিশ হত্যা করেছে৷ ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবর ঢাকায় গাবতলিতে জঙ্গিরা পুলিশের চেকপোস্টে এক সাব-ইন্সপেক্টরকে কুপিয়ে হত্যা করে৷ ২০১৫ সালের ৪ নভেম্বর সাভারের আশুলিয়ায় চেকপোস্টে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় শিল্প পুলিশের এক কনস্টেবলকে৷ মিতুর হত্যাকারীরাও মোটর সাইকেলেই এসেছিল৷

পুলিশ পরিবারের সদস্যকে হত্যার ঘটনা এই প্রথম৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল নিজেই বলেছেন, ‘‘অব্যাহতভাবে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে যে অভিযান চলছে, জঙ্গিদের দমন ও নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাদের পুলিশ ফোর্স যেভাবে বীরত্বের সঙ্গে কাজ করছে, তাদের বিভ্রান্ত করার জন্য, এই পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডটি ঘটানো হয়েছে বলে আমরা মনে করছি৷''

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রীকে হত্যার পর এটা স্পষ্ট যে, জঙ্গিরা তাদের কৌশল পরিবর্তণ করছে৷ তারা ভিন্ন চিন্তা, ভিন্ন ধর্ম এবং বিদেশি হত্যার পর এখন পুলিশ কর্মকর্তাদের পরিবারের সদস্য হত্যা করল৷ তারা আগে পুলিশ হত্যা করেছে, কিন্তু পরিবারের সদস্যদের ওপর আঘাত এই প্রথম৷ তারা এখন পুলিশ সদস্যদের মধ্যে যারা জঙ্গিবিরোধী অভিযানে সক্রিয়, তাদের এভাবে দুর্বল করে দিতে চাইছে৷''

তিনি বলেন, ‘‘জঙ্গিরা এর আগেও তাদের কৌশলে পরিবর্তন এনেছে এবং টার্গেট বিস্তৃত করেছে৷ এখন তারা আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর কর্মকর্তাদের পরিবারের সদস্যদের টার্গেট করেছে৷ এর মাধ্যমে তারা বাহিনীর মনোবল ভেঙ্গে দিতে চায়৷''

অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান আরো বলেন, ‘‘আমার মনে হয়েছে, পুলিশই এখনো জঙ্গিদের ব্যাপারে সিরিয়াস নয়৷ এখন আসলেই সিরিয়াস হওয়ার সময় এসেছে৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও