1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

জকোভিচকে দুই লক্ষ ডলার দেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল!

বর্তমানে বিশ্বের এক নম্বর টেনিস খেলোয়াড় সার্বিয়ার নোভাক জকোভিচ৷ তবে ২০০৭ সালে তিনি ততটা পরিচিত ছিলেন না৷ সেই সময় একটি ম্যাচ হেরে যেতে তাঁকে দুই লক্ষ ডলার দেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল৷

সোমবার এই তথ্য নিজেই সাংবাদিকদের জানালেন জকোভিচ৷ টেনিস বিশ্বে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশের প্রতিক্রিয়ায় এ কথা জানান জকোভিচ৷ অবশ্য বাজিকররা সরাসরি তাঁকে এই প্রস্তাব দেননি বলেও জানান তিনি৷

বিবিসি ও বাজফিড-এ প্রকাশিত প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে যে, গত ১০ বছরে ১৬ জন খেলোয়াড় ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত রয়েছে বলে সন্দেহ করা হলেও তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি৷ এই ১৬ জন খেলোয়াড় ব়্যাংকিংয়ে সেরা ৫০-এর মধ্যে ছিলেন৷ এর মধ্যে গ্র্যান্ড স্ল্যাম বিজয়ীও রয়েছেন৷ অবশ্য তাঁদের নাম প্রকাশ করা হয়নি৷

২০০৭ সালে সন্দেহজনক একটি ম্যাচ নিয়ে করা তদন্ত প্রতিবেদনের বিবরণ ঐ গণমাধ্যমগুলোর কাছে আছে বলে দাবি করা হয়েছে৷ এই বিবরণে রাশিয়া ও ইটালিতে থাকা বাজিকর সিন্ডিকেট সম্পর্কে তথ্য রয়েছে৷ ম্যাচ পাতানোর মাধ্যমে তাঁরা বেটিং থেকে লক্ষ লক্ষ ডলার আয় করেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে৷

বিবিসি ও বাজফিডের প্রতিবেদনে সন্দেহজনক ঐ ১৬ খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে কোনো তদন্ত না করায় ‘টেনিস ইন্টেগ্রিটি ইউনিট' (টিআইইউ)-এর কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে৷ টেনিস খেলায় দুর্নীতি প্রতিরোধে এই সংস্থাটি গড়ে তোলা হয়েছে৷

তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন টেনিস সংক্রান্ত কর্মকর্তারা৷ পুরুষদের টেনিস প্রতিযোগিতা কর্তৃপক্ষের প্রধান ক্রিস কার্মোড জানিয়েছেন, ‘‘ম্যাচ পাতানোর প্রমাণ চেপে রাখার যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করছে টিআইইউ ও টেনিস কর্তৃপক্ষ৷'' ২০০৮ সালে গঠিত হওয়ার পর থেকে ছয়জনকে আজীবন নিষিদ্ধ করা সহ টিআইইউ-র আনা মোট ১৮টি অভিযোগ সত্য বলে প্রমাণিত হয়েছে, বলেও জানান কার্মোড৷

টেনিস তারকা রজার ফেডেরার বলেন, প্রতিবেদনের গুরুত্ব অনুধাবন করা শক্ত৷ তবে এর ফলে যে বিষয়টি ভালো হলো তা হচ্ছে, এখন বাজির বিষয়টি আলোচিত হবে৷ ফলে বাজিকররা সমস্যা পড়বে৷

এর আগে ক্রিকেট, অ্যাথলেটিক্স ও ফুটবলেও ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে৷

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন