1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

ছায়ার ভাস্কর্য বা ভাস্কর্যের ছায়া

দেখলে মনে হবে টবের গাছ, পুঁতি দিয়ে তৈরি৷ অথচ আলো ফেললে সেই গাছ থেকে যে ছায়া পড়ে, তা দেখতে হয় কিংবদন্তির ঘোড়া ‘ইউনিকর্ন'-এর মতো৷ এই হলো গ্রিক শিল্পী টেওডোসিও সেক্টিও অরেয়া-র ভাস্কর্য৷

শ্যাডো আর্ট, যাকে বলা যেতে পারে ছায়ার ভাস্কর্য বা ভাস্কর্যের ছায়া৷ যা একটি গাছ বলে মনে হচ্ছে, আলো পড়লে তা নৃত্যরতা নারীতে পরিণত হতে পারে৷ এই ছায়াময় ভাস্কর্যের স্রষ্টা হলেন টেওডোসিও সেক্টিও অরেয়া৷ ৩৬ বছর বয়সি গ্রিক শিল্পী আদতে ‘ওয়েল্ডিং', অর্থাৎ ঢালাইয়ের কাজ শিখেছিলেন৷ আজ তিনি লোহা কিংবা অন্য কোনো ধাতু দিয়ে ভাস্কর্য সৃষ্টি করেন৷ কিন্তু সেই ভাস্কর্যের পিছনে থাকে আরো একটি শিল্পকলা: তা হলো সেই ভাস্কর্যের ছায়া৷ টেওডোসিও বলেন:

‘‘ছায়া তো সর্বত্র৷ সাধারণত আমরা তাদের খেয়াল করি না৷ কিন্তু আমি ছায়ার ব্যাপারে বেশিমাত্রায় সচেতন, চারদিকে ইন্টারেস্টিং নানা ছায়া দেখি৷ কোনো বস্তুর মধ্যে কী লুকনো আছে, তা যেন দিব্যচক্ষে দেখতে পাই৷ সব কিছু যেন একটা কয়েন-এর মতো, যার দু'টো পিঠ আছে৷ ছায়াদের জগতটা একটা সম্পূর্ণ আলাদা জগৎ – যা সীমাহীন এবং যার একটা নিজস্ব সৌন্দর্য আছে৷''

তিনি যে ছায়াটি চান – অর্থাৎ কল্পনা করছেন, সেটাকে এঁকে দেওয়ালে সেঁটে দেন৷ তারপর একটি ছোট বাতির আলো ফেলে তিনি ঠিক সেই ভাস্কর্যটি গড়েন, যা থেকে তাঁর পরিকল্পিত ছায়াটি সৃষ্টি হতে পারে৷ টেওডোসিও-র ভাষায়:

‘‘প্রথমেই আমি ছায়ার আকারটা কল্পনা করি৷ ছায়াটা কী হবে, তা থেকেই সব কিছুর সূচনা৷ তারপরে ভাবি, সেই ছায়াটা তৈরি করতে আমার কী কী বস্তু লাগবে৷ আমি ‘মেটাল', মানে ধাতু নিয়ে কাজ করতে ভালোবাসি, কেননা ধাতুর মধ্যে অবিনশ্বর কিছু একটা রয়েছে৷ আমার উদ্দেশ্য হলো, অনন্য-অদ্বিতীয় এমন একটা কিছু সৃষ্টি করা, যা অমর হয়ে থাকবে৷''

অনুকরণ নয়, উদ্ধৃতি

ধাতব ভাস্কর্যগুলোকে স্বমহিমায় শিল্পকলা বলা চলে৷ অপরদিকে তারা অনুকরণ নয়, উদ্ধৃতি৷ যেমন পাবলো পিকাসো-র সুবিখ্যাত ‘গ্যার্নিকা' ছবির ত্রিমাত্রিক ধাতব সংস্করণ তৈরি করেছেন অরেয়া৷ স্পেনীয় চিত্রকার পিকাসো ছবিটি আঁকেন ১৯৩৭ সালে৷ টেওডোসিও-র ব্যাখ্যা শুনুন:

‘‘গ্যার্নিকা ছবিটা কালো, সাদা, ছাই রংয়ে আঁকা – আমি আলোছায়া দিয়ে যা আঁকি, তাতে যা প্রতিফলিত হয়েছে৷ আমার কাজটা হলো পাবলো পিকাসো-র প্রতি শ্রদ্ধাতর্পণ৷ আধুনিক চিত্রকলায় ইনস্টলেশন, ভিডিও, পারফর্মেন্স, কত কী দেখা যায়৷ আমার কিন্তু আগেকার দিনের ওস্তাদ আঁকিয়েদেরই ভালো লাগে, কেননা তাঁরা হাতের কাজ জানতেন৷''

টেওডোসিও সেক্টিও অরেয়া প্রেরণা পান দা ভিঞ্চি ও মিকেলঅ্যাঞ্জেলো (বানানভেদে মাইকেল অ্যাঞ্জেলো), পিকাসো ও সালভাদোর দালি-র মতো শিল্পীদের কাছ থেকে৷ তাঁর নিজের শিল্পকলাও আজ বিক্রি হয় কয়েক হাজার ইউরো মূল্যে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক