1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ছাইমেঘ নিয়ে ইউরোপের আকাশে আবার অনিশ্চয়তা

শনিবার থেকে আইসল্যান্ডের গ্রিমসভোটন আগ্নেয়গিরি আকাশে ২০ কিলোমিটার উচ্চতা অবধি ছাই উগরোচ্ছে৷ সোমবার আয়ারল্যান্ড-ব্রিটেনের দিকে হাওয়া ঘোরায় বিভিন্ন ফ্লাইট বাতিল হয়েছে, ইউরোপের এভিয়েশন কর্তৃপক্ষও চিন্তিত৷

default

শনিবার গ্রিমসভোটনের বিস্ফোরণ

গ্রিমভোটন থেকে নির্গত ছাইমেঘের উচ্চতা কিছুটা কমেছে৷ আইসল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুযায়ী রবিবার যাবৎ ছাইমেঘের উচ্চতা মাত্র ৫ থেকে ৯ কিলোমিটার, যদিও আগ্নেয়গিরিটি আগের মতোই সক্রিয়৷ এছাড়া এবারকার ছাই নাকি ২০১০ সালের তুলনায় বেশি দানাবাঁধা অথবা ভারী৷ তাই তা আগেই মাটিতে পড়ে যাবার সম্ভাবনা বেশি৷ কেননা ছাই যতো মিহি এবং হাল্কা হবে, ততোই তা আরো ওপরে উঠবে এবং আরো বেশিদূর ভেসে যাবে৷

Jahresrückblick 2010 International April Island Eyjafjällajökull

২০১০ সালের এপ্রিলে আইয়াফিয়েল্লাইয়োকুল আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণ

২০১০ সালে আইসল্যান্ডের আরেকটি আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত ছাইমেঘ ইউরোপে বিমানচলাচলে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করেছিল৷ এক লক্ষ ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছিল৷ এক কোটি বিমানযাত্রী আটকে পড়েছিলেন৷ বিমান পরিবহণ শিল্পের ক্ষতি হয়েছিল ১৭০ কোটি ডলার৷ এবার ২০১০ সালের পরিস্থিতির পুনরাবৃত্তি হবে না বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন৷ তবে ব্রিটিশ আবহাওয়া অফিস বলছে, মঙ্গলবার ভোরের মধ্যেই আইরিশ রিপাবলিক, উত্তর আয়ারল্যান্ড. স্কটল্যান্ড এবং আংশিক উত্তর ইংল্যান্ডের আকাশ ছাইমেঘে ঢেকে যাবে৷ সেই আশঙ্কাতেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা একদিন আগেই, অর্থাৎ সোমবার রাত্রেই লন্ডন পৌঁছেছেন তাঁর রাষ্ট্রীয় সফরে৷

মোটামুটি মঙ্গলবারের জন্য যে সব ফ্লাইট বাতিলের কথা এ' পর্যন্ত ঘোষণা করা হয়েছে, তার সবই হল ঐ ছাইমেঘের সম্ভাব্য গন্তব্যের হিসেব করে৷ বাকি ইউরোপ সতর্ক হয়ে বসে আছে৷ ইউরোপের বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রক সংগঠন বলছে, আগ্নেয়গিরি থেকে ছাই বেরনো এই হারে চলতে থাকলে, বৃহস্পতিবারের মধ্যে ছাইমেঘ পশ্চিম ফ্রান্স এবং উত্তর স্পেনের আকাশে পৌঁছতে পারে৷

২০১০ সালে তো মূল সমস্যা ছিল, ছাইমেঘের ভিতর দিয়ে জেটবিমানের ওড়া কতোটা নিরাপদ কিংবা নিরাপদ নয়, তাই নিয়ে৷ তাই আগেভাগেই সব ফ্লাইট নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছিল৷ এবার সেই ভুলটাই যা'তে না হয়, সেটাই হবে সবার প্রচেষ্টা৷ জার্মান পরিবহণ মন্ত্রী পেটার রামজাওয়ার বলেছেন, প্রতি ঘনমিটারে দুই মিলিগ্রাম ছাই থাকলে, তবেই ফ্লাইট নিষেধ করা হবে৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: ফাহমিদা সুলতানা

নির্বাচিত প্রতিবেদন