1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ছ’উইকেটে জিতেও ইংল্যান্ডের কান লাল

মঙ্গলবার গ্রুপ বি’র ম্যাচে যা ফিল্ডিং করেছে ইংল্যান্ড! নয়তো নেদারল্যান্ডসের মতো একটা এ্যাসোসিয়েট টীম ওরকম টোটাল করতে পারে না৷

default

‘ওরানিয়ে’-রা ফুটবল পাগল৷ তারা যে এ্যাতো ভালো ক্রিকেট খেলে, কে জানতো!

নেদারল্যান্ডসের স্কোর ছিল ছয় উইকেটে ২৯২৷ যা কিনা একটা টেস্ট খেলা টীমের বিরুদ্ধে একটা এ্যাসোসিয়েট টীমের সর্বোচ্চ স্কোর৷ অবশ্য এর পেছনে ইংল্যান্ড দলের বাজে বোলিং এবং অতি বাজে ফিল্ডিং'এর অবদান ছিল৷ ম্যাট প্রায়র, পিটারসেন, ট্রট এবং গ্রায়েম সোয়ান, সকলেই ক্যাচ ফেলেছেন৷ টিম ব্রেসনান এবং আয়ান বেল'এর ফিল্ডিং'ও তথৈবচ৷ এ্যান্ড্রু স্ট্রস পরে বলেছেন, ‘‘আমাদের খুব তাড়াতাড়ি শিখতে হবে৷ এরকম ভুল বার বার করলে চলবে না৷'' তা তো বটেই! ২৭ তারিখেই ব্যাঙ্গালোরে ভারতের সঙ্গে খেলা৷

বলতে কি, স্ট্রস, পিটারসেন, ট্রট, কলিংউড এবং বোপারা ব্যাটে খানিকটা স্থৈর্য্য না দেখালে ইংল্যান্ডের জয় নিয়েই সন্দেহ দেখা দিতে পারতো৷ এবং নেদারল্যান্ডসের খেলোয়াড়দের এ্যাতো ভালো খেলেও ক্ষোভ শুধু একটা ব্যাপারে: এবারের বিশ্বকাপে ১৫টা দল খেলছে৷ ২০১৫'র বিশ্বকাপে কিন্তু তা কমিয়ে করা হবে দশ৷ কাজেই ম্যাচের পরে ওলন্দাজ ক্যাপ্টেন পিটার বরেন সঙ্গত কারণেই বলেছেন, ‘‘আমরা দেখিয়েছি আমাদের মধ্যে আপসেট ঘটানোর কি পোটেনশিয়াল আছে৷''

ওদিকে পাকিস্তানের ক্যাপ্টেন শহিদ আফ্রিদি বলেছেন, কেনিয়ার বিরুদ্ধে আজ বুধবারের ম্যাচে গোড়া থেকেই চলবে এ্যাটাক: আহমেদ শেহজাদ এবং মোহাম্মদ হাফিজ ইনিংস শুরু করবেন, এবং প্রথম উইকেট তাড়াতাড়ি হারালে হাতে থাকবে কামরান আকমল৷ ইউনিস খান উমর আকমলের পরে নামতে পারবেন৷ সবই নাকি আগে থেকে পরিকল্পনা করা আছে, জানালেন আফ্রিদি৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়