1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা

এই নিয়ে চারবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতলো স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব বার্সেলোনা৷ শনিবারের ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৩-১ গোলের সুস্পষ্ট ব্যবধানে হারিয়ে দিলো মেসি, ইনিয়েস্তা আর ডেভিড ভিয়ার দল৷

default

মেসিকে রুখবে কে?

প্রথমার্ধের শুরুতে পেদ্রোর গোলে এগিয়ে গেলেও রুনি সেটা শোধ করে দেন৷ তবে দ্বিতীয়ার্ধে মেসি এবং ভিয়ার দুর্দান্ত গোলের পর আর কিছুই করতে পারেনি ম্যান ইউ৷ খেলার শুরুতে কিছুক্ষণ কাটালানদের সঙ্গে সমানে সমানে খেলেছে রেড ডেভিলরা৷ কিন্তু সময় যত গড়িয়েছে ততই বার্সার টিকিটাকা ফুটবলের সামনে অসহায় হয়ে পড়েছে ম্যান ইউ৷ খেলার ২৭ মিনিটের মাথায় প্রথম গোল পায় বার্সেলোনা৷ জাভি বল পেয়ে বল বাড়িয়ে দেন ফাঁকায় দাড়িয়ে থাকা পেদ্রোর দিকে৷ প্রায় ১৫ মিটার দূর থেকে নেওয়া পেদ্রোর শটটি অসহায় হয়ে তাকিয়ে দেখেছেন ম্যান ইউ গোলরক্ষক ভ্যান ডার সার৷ উল্লেখ্য, ম্যান ইউ-র হয়ে এই ম্যাচটিই শেষ ম্যাচ দীর্ঘদেহী এই গোলরক্ষকের৷ গোলের খানিক পর খেলায় ফিরে এসেছিল ম্যান ইউ৷ রায়ান গিগস এর কাছ থেকে ওয়ান টু ওয়ান পাসে বল পেয়ে গোল করেন ওয়েন রুনি৷ এরপর কিছুটা আশা দেখছিলেন ওয়েম্বলির দর্শকরা৷ কিন্তু বার্সেলোনাতে যে রয়েছেন বিশ্বসেরা মেসি৷

ম্যান ইউর গোল লক্ষ্য করে মেসির আচমকা শট

দ্বিতীয়ার্ধের আগেই একটি প্রায় নিশ্চিত গোলের সুযোগ মিস করেন এই স্ট্রাইকার৷ কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের নয় মিনিট পর ইনিয়েস্তার পাস পেয়ে এক চোখ ধাঁধাঁনো শটে সেটা পুরণ করে দেন তিনি৷ আর এর মধ্য দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ১২ গোলের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেন মেসি৷ ২০০৩ সালে ডাচ স্ট্রাইকার রুদ ফান নিস্টলরয় ছিলেন এতদিন এই রেকর্ডের মালিক৷ মূলত মেসির গোলের পর খেলায় ফিরে আসার আর তেমন আশা জাগাতে পারেনি ম্যান ইউ৷ গোটা ম্যাচে ছিল বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের প্রাধান্য৷ বল দখল থেকে শুরু করে আক্রমণ শানানো সবদিক দিয়েই পার্থক্যটি ছিলো চোখে পড়ার মত৷ খেলার ৭০ মিনিটের মাথায় আবারও গোল করে বার্সেলোনা৷ এবার ডেভিড ভিয়া৷ ম্যান ইউর ন্যানির কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে ভিয়াকে দেন পেদ্রো৷ তা থেকে চমৎকার ব্যানানা কিকে বল জালে জড়িয়ে দেন ভিয়া৷

Champions League Finale 2011 Barcelona vs. Manchester United Flash-Galerie

লিগ টাইটেলের পাশাপাশি এবার ইউরোপ সেরার শিরোপাও জিতলো বার্সেলোনা

সাধারণত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ইউরোপের সেরা দুটি ক্লাব মুখোমুখি হয়৷ কিন্তু শনিবারের ম্যাচে স্পষ্টতই এগিয়ে ছিলো এই মুহুর্তে ইউরোপ কেন, বিশ্বের সেরা ক্লাব বার্সেলোনা৷ ম্যাচ শেষে যা স্বীকারও করেছেন ম্যান ইউ-র অধিনায়ক নেমানিয়া ভিদিচ৷ অন্যদিকে বার্সেলোনা দলের এই মুহুর্তে সাফল্যের পেছনে লিওনেল মেসি তো অবশ্যই আছে৷ কিন্তু তার সঙ্গে ইনিয়েস্তা, জাবি এবং ভিয়াসহ অন্যান্য খেলোয়াড়ের কথা যদি ধরা হয়, তাহলে বলা যায় যে বর্তমান বিশ্বের সেরা কম্বিনেশনটাও এই দলটিতে খেলছে৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন