1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

চুরির অপবাদে নগ্ন করে গণধোলাই

তিন-তিনজন কিশোর৷ কী-ই বা বয়েস হবে? কিন্তু চুরির অপবাদে প্রায় আধ ঘণ্টা গণধোলাই দেওয়া হয়েছে তাদের৷ তা-ও আবার নগ্ন করে৷ রড, কাঠ, পাথর – হাতের কাছে যে যা পেয়েছে, তা দিয়েই ওদের পিটিয়েছে চিত্তরগড়ের মানুষ৷

মহাত্মা গান্ধী দলিতদের ‘হরিজন' বা ‘ঈশ্বরের সন্তান' নাম দিলেও, আজও সামাজিকভাবে তাঁদের অবস্থার বিশেষ কোনো উন্নতি হয়নি৷ ভারতীয় সমাজে এখনো সব থেকে ‘নীচু জাতি' এঁরা, সংখ্যার বিচারে প্রায় ১৬ কোটির মতো৷ অথচ আজও যেন তাঁরা অচ্ছুত, অস্পৃশ্য৷ এখনো তাঁদের মন্দিরে যাওয়ার অধিকার নেই, তখাকথিত উচ্চবর্ণের মানুষদের স্কুলে যাওয়ার অধিকার নেই, সবার কুঁয়ো থেকে জল তোলা বা খাওয়ার অধিকার নেই, এমনকি একই শশ্মানে দাহ করার অধিকারও নেই৷ তাই তো আজও তাঁরা এমন অমানবিক ঘটনার শিকার৷

ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভি সম্প্রতি একটি ভিডিও-ক্লিপ প্রকাশ করে আর সেখানেই রাজস্থানের এই নৃশংস ঘটনাটির চোখ পড়ে সকলের৷

ভিডিওতে দেখা যায়, তথাকথিত উচ্চজাতের এক ব্যক্তির মোটরসাইকেল চুরির অপরাধে ঐ তিন দলিত কিশোরকে প্রথমে একটা গাছের সঙ্গে বেঁধে ফেলা হয়৷ তারপর শুরু হয় পিটুনি...৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই ‘উৎসাহী' জনতা তাদের কাপড় খুলে প্যারেড করায়৷ মারধোর অব্যাহত থাকে প্রায় আধ ঘণ্টা৷ একটা সময় ব্যাথায়, আতঙ্কে থরথর করে কাঁপছিল ওরা৷ প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে জানালে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করলেও, কিশোর নির্যাতনের অভিযোগে এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করেনি৷

উল্টে কানজার উপজাতির ঐ তিন কিশোরের বিরুদ্ধে ডাকাতির মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ তারপর ওদের পাঠানো হয়েছে কিশোর সংশোধনাগারে৷

শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে দীর্ঘ সংগ্রামের জন্য শান্তিতে নোবেল জয়ী কৈলাশ সত্যার্থী এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন৷ অবিলম্বে ঘটনাটি তদন্তের দাবিও জানিয়েছেন তিনি৷

ডিজি/এসিবি

ভিডিওটি দেখলেন? আপনার মন্তব্য জানান, নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন