1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

চিড়িয়াখানায় অঙ্কুশ ব্যবহার, তুমুল সমালোচনা

হানোফার চিড়িয়াখানায় হাতিদের – বিশেষ করে বাচ্চা হাতিদের – যেভাবে অঙ্কুশের খোঁচা দিয়ে বশে রাখা হয়, জার্মান টেলিভিশনে তা প্রদর্শিত হওয়ার পর ফেসবুক ও টুইটারে ঝড় বয়ে গেছে৷

ভিডিও ছবিগুলি বছর খানেক আগে তোলা৷ ‘পেটা' বা পিইটিএ, অর্থাৎ ‘পিপল ফর দ্য এথিক্যাল ট্রিটমেন্ট অফ অ্যানিমালস' সংগঠন ছবিগুলো জার্মানির সরকারি এআরডি টেলিভিশনের ‘রিপোর্ট মাইনৎস' অনুষ্ঠানে দেখানোর প্রস্তাব দেয়৷ ‘রিপোর্ট মাইনৎস' একটি অনুসন্ধানমূলক অনুষ্ঠান৷ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ‘রিপোর্ট মাইনৎস' ভিডিও ছবিগুলি সম্প্রচার করে৷

ভিডিওর বিভিন্ন দৃশ্যে জু কিপারদের হাতে অঙ্কুশ – বা তার আধুনিক সংস্করণ দেখা গেছে৷ তারা এনক্লোজারের হাতিদের সঙ্গে আচরণে অঙ্কুশ ব্যবহার করেছেন, তবে আঘাত করেছেন কিংবা খোঁচা দিয়েছেন কিনা, ভিডিও দেখে তা নিঃসন্দেহ বলার কোনো উপায় নেই৷ অঙ্কুশের আঘাতে হাতিদের আহত হওয়ার কোনো লক্ষণও ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে না৷

হানোফার জু কর্তৃপক্ষ বলছেন, এটা জন্তু-জানোয়ারকে কষ্ট দেবার জন্য নয়, তাদের ‘হ্যান্ডল' অর্থাৎ নিয়ন্ত্রণ করার জন্য৷ চিড়িয়াখানার কার্যনির্বাহী পরিচালক আন্ড্রেয়াস কাসডর্ফ রিপোর্ট মাইনৎসের অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হওয়ার আগেই বলেছেন, ‘‘আমাদের জীবজন্তুদের ‘মানুষ' করতে হয়, কিন্তু সেজন্য আমরা তাদের দৈহিক বা মানসিক, কোনোরকম আঘাত দিই না৷''

হানোফার জু-র কর্মীরা নাকি জন্তু-জানোয়ারের সঙ্গে ‘ফ্রি কনট্যাক্ট', অর্থাৎ বিনা বাধায় মেলামেশার পদ্ধতি অনুসরণ করেন৷ এই পদ্ধতিতে কিপাররা হাতিদের প্রাঙ্গণের মধ্যে অবাধে চলাফেরা করেন, কাজেই তাদের আত্মরক্ষার খাতিরে অঙ্কুশ হাতে রাখতে হয়৷ ‘প্রোটেক্টেড কনট্যাক্ট'-এর ক্ষেত্রে অঙ্কুশের দরকার পড়ে না, কেননা সেখানে মানুষ আর জন্তু-জানোয়ারের মধ্যে বেড়া বা গরাদ বা জাল থাকে৷ হানোফার জু-তে ২০১৮ সাল থেকে এই ‘সুরক্ষিত সংস্পর্শ' অবলম্বন করা হবে৷ জার্মানির যে ২৭টি চিড়িয়াখানায় হাতি রাখা হয়, তাদের মধ্যে ১৪টি জু-তে এখনও ‘ফ্রি কনট্যাক্ট' চালু রয়েছে৷

জার্মানির চিড়িয়াখানা সমিতিতে ৬৯টি চিড়িয়াখানা সংঘবদ্ধ৷ সমিতির তরফ থেকে বলা হয়েছে যে, ‘প্রোটেক্টেড কনট্যাক্ট' প্রকৃতির মতো হলেও, ‘ফ্রি কনট্যাক্ট' থাকলে জন্তুদের চিকিৎসা ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা অনেক সহজ হয়৷ তবে দর্শকদের মনোরঞ্জনের জন্য জন্তু-জানোয়ার নিয়ে ‘শো' করা এখন জু কর্তৃপক্ষ বা সাধারণ জনতা, কেউই বিশেষ পছন্দ করেন না৷ তিন বছর আগেও হানোফারে হাতিদের নিয়ে এ ধরনের শো করা হচ্ছিল৷

হানোফার জু-তে হাতিদের ওপর অঙ্কুশের ব্যবহার নিয়ে ভিডিওটির একটি ফল হয়েছে এই যে, ‘পেটা' জু কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জীবজন্তুর নিপীড়নের মামলা দায়ের করেছে৷

এসি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন