1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘চিহ্নিত জঙ্গিদের অনেকেই জামায়াতে ইসলামির হয়ে কাজ করছে'

চিহ্নিত জঙ্গিদের সঙ্গে জামায়াতে ইসলামির যোগাযোগ, ঢাকার পল্টন এলাকায় ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল ও সমাবেশ করার চেষ্টা এবং জাতীয় শিক্ষানীতির খসড়া পরিবর্তন – এই সব খবর বাংলাদেশের সংবাদপত্রে বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে৷

default

‘বাংলা ভাই’ পর্ব শেষ হওয়ার পরেও জঙ্গি তৎপরতা লোপ পায় নি

জেএমবি ও জামায়াতে ইসলামি

সম্প্রতি জেএমবি প্রধান সাইদুর রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই বাংলাদেশের মাটিতে জঙ্গি তৎপরতার চরিত্র সম্পর্কে আলোচনা চলছে৷ দৈনিক ‘কালের কণ্ঠ'এর ইন্টারনেট সংস্করণের একেবারে শীর্ষে এবিষয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে৷ ‘কালের কণ্ঠ' লিখছে, উত্তরাঞ্চলের চিহ্নিত জঙ্গিদের অনেকেই এখন জামায়াতে ইসলামির হয়ে কাজ করছে৷ তাদের অনেকে আগে থেকেই জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল৷ অনেকে আবার নিরাপত্তার স্বার্থে ইদানীং কৌশল পাল্টে জামায়াতে ঢুকেছে৷ এসব দ্বিমুখী জঙ্গির মধ্যে অনেকে আছে যারা আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে যুদ্ধ করছে এবং প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছে৷ কেউ কেউ উত্তরের সীমান্ত এলাকায় আস্তানা গেড়ে প্রশিক্ষণ ও সাংগঠনিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে৷ এসব প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুর্ধর্ষ জঙ্গি যুদ্ধাপরাধের বিচার ও আগামী সংসদ নির্বাচনকে টার্গেট করে দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার লক্ষ্যে জামায়াতের ছত্রচ্ছায়ায় গোপনে সংগঠিত হচ্ছে বলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ধারণা৷

ঢাকায় ১৪৪ ধারা ভঙ্গ

‘ভোরের কাগজ'এর ইন্টারনেট সংস্করণে লেখা হয়েছে, গতকাল রাজধানীর পল্টন এলাকায় ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল ও সমাবেশ করার চেষ্টা ও অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারার অভিযোগে জামাতের ৮০ জন কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ৷ বায়তুল মোকাররম মসজিদে ফজরের নামাজ শেষে বেরিয়ে তারা মিছিল নিয়ে পল্টন ময়দানে সমবেত হওয়ার চেষ্টা করছিল৷

জাতীয় শিক্ষানীতির নবায়ন

‘প্রথম আলো'র ইন্টারনেট সংস্করণে যে বিষয়টি স্থান পেয়েছে, তার সঙ্গে রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্রের বিষয়টি জড়িয়ে রয়েছে৷ ‘প্রথম আলো' লিখেছে, জাতীয় শিক্ষানীতির খসড়া থেকে শেষ পর্যন্ত ‘ধর্মনিরপেক্ষতা' শব্দটি বাদ দেওয়া হয়েছে৷ এর বদলে যুক্ত করা হয়েছে ‘অসাম্প্রদায়িক চেতনাবোধ'৷ গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রায় এক বছর ধরে আলোচিত জাতীয় শিক্ষানীতি অনুমোদিত হয়েছে৷ খসড়া শিক্ষানীতির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের মধ্যে ‘ধর্মনিরপেক্ষতা' শব্দটি উল্লেখ করায় বিভিন্ন ধর্মভিত্তিক দল ও চারদলীয় জোটের অনুসারীরা এ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ এটিসহ কিছু বিষয়কে কেন্দ্র করে আন্দোলনও শুরু হয়৷ তাদের বক্তব্য ছিল, দেশের বতর্মান সংবিধানে ধর্মনিরপেক্ষতার উল্লেখ নেই৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন
সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়