1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

চার সচিবের মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল, স্থগিত একজনের

সরকারের চারজন সচিবের মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল করা হয়েছে৷ স্থগিত করা হয়েছে একজনের৷ সোমবার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে৷ এঁদের মধ্যে একজন প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে এখন যুক্তরাষ্ট্রে৷

মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল হওয়া চারজন সচিব হলেন – কে এইচ মাসুদ সিদ্দিকী, মো. নিয়াজউদ্দিন মিয়া, এ কে এম আমির হোসেন এবং আবুল কাশেম তালুকদার৷ এছাড়া স্থগিত করা হয়েছে মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামানের সনদ৷ রাষ্ট্রপতির আদেশে প্রজ্ঞাপনে সই করেছেন মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সলিমুল্লাহ৷

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হোসেন জানান, ‘‘প্রজ্ঞাপনটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে ইতিমধ্যেই৷ মন্ত্রণালয় এবার এই কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনগত বা বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে পরে৷ এর মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তাঁদের নেয়া সুবিধা পুরোপুরি বাতিল হয়ে গেল৷''

মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামান সনদ বাতিল না করে স্থগিত করা প্রসঙ্গে মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘তিনি মুক্তিযোদ্ধার সনদ নেয়ার জন্য পাঁচটি ধাপের চারটিই শেষ করেছেন৷ যে ধাপটি শেষ করেননি, তা তাঁর দোষ নয়৷'' অতি উত্‍সাহী কর্মকর্তারা শেষ ধাপ না মেনে তাঁর গেজেট প্রকাশ করেন, যা এনএসআই-এর তদন্তেও বেরিয়ে এসেছে৷ তাই তাঁর সনদ বাতিল না করে স্থগিত করা হয়েছে৷'' মন্ত্রী জানান, সোমবার আরো ২৮ জনের মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল করা হয়েছে৷

আ ক ম মোজাম্মেল হোসেন আরো জানান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব এখানেই শেষ৷ তিনি বলেন, ‘‘আমাদের মন্ত্রণালয় শুধু সনদ বাতিলের ক্ষমতা রাখে৷ এর বাইরে কোনো শাস্তি দেওয়ার এখতিয়ার আমাদের নেই৷ তবে শুধু সনদ বাতিল নয়, এরপর আইনানুগ ব্যবস্থাও নেওয়া হবে৷ এ জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় রয়েছে, তারাই তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পারে৷''

উল্লেখ্য, ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ নেওয়া চারজন সচিব ও এক যুগ্ম-সচিবের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে গত ১০ই সেপ্টেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে দূর্নীতি দমন কমিশন বা দুদক একটি সুপারিশমূলক চিঠি পাঠায়৷

দুদক তদন্তে এই কর্মকর্তাদের মুক্তিযোদ্ধা সনদ সঠিক নয় বলে প্রমাণ পায়৷ তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের স্বপক্ষে কোনো দালিলির প্রমাণ নেই৷ যে চার ক্যাটাগরির ভিত্তিতে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা শনাক্ত করা হয়, সেগুলোর আওতায়ও তাঁরা পড়েন না৷

গত ১৪ই সেপ্টেম্বর জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে এই পাঁচজন সচিবের মুক্তিযেদ্ধা সনদ বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়৷

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী

মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল হওয়া চার সচিবের একজন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নিয়াজউদ্দিন মিয়া জাতিসংঘের ৬৯তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র গেছেন৷

নিয়াজউদ্দিন মিয়া গত ১৮ই সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরের অগ্রবর্তী দলের সঙ্গে অ্যামেরিকায় যান৷ মো. নিয়াজউদ্দিন মিয়ার নাম প্রধানমন্ত্রীর সফর সঙ্গীদের মধ্যে ‘বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার প্রতিনিধি বৃন্দের' তালিকার পঞ্চম স্থানে রয়েছে৷

প্রধানমন্ত্রী রবিবার রাতে ঢাকা ত্যাগ করেন৷ এই সফরে তিনি ১৮৫ জনের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন৷ আগামী ২রা অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন