1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

চার ক্রিকেটারের কথা বিশেষভাবে মনে করলেন ধোনি

বিশ্বকাপ জয়ের পর ভারতীয় দলকে নিয়ে চলছে এখন উৎসব আনন্দ৷ রোববার ভারতীয় প্রেসিডেন্ট প্রতিভা পাটিলের পক্ষ থেকে জাতীয় দলকে দেওয়া হলো অভ্যর্থনা৷ আর এই সাফল্যের পেছনে ধোনি চারজনের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করলেন৷

default

মাহেন্দ্র সিং ধোনি (ফাইল ছবি)

মাত্র আট বছর আগে খুব কাছে গিয়েও শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপটা ছোঁয়া হয়নি সৌরভ গাঙ্গুলির৷ ওয়ান্ডারার্সের সেই অতৃপ্তি পুরোপুরি মিটিয়ে দিলেন তাঁর সময়েই দলে সুযোগ করে নেওয়া মাহেন্দ্র সিং ধোনি৷ ক্রিকেটে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পাওয়ার পর থেকে একের পর এক সাফল্য এনে দিচ্ছেন এই উইকেটকিপার কাম ব্যাটসম্যান৷ প্রথমে টোয়েন্টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা, এরপর তাঁর হাত ধরেই ভারত এখন টেস্ট ক্রিকেটের তালিকায় এক নম্বর দল৷ কিন্তু এরপরও যেন একটা বড় অতৃপ্তি থেকেই যাচ্ছিল৷ শনিবার মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে সেই অতৃপ্তি পুরোপুরি মুছে গেল৷ ক্যারিবীয়দের দুইবার বিশ্বকাপ জয়ের সমান উচ্চতায় এখন ধোনির দল৷

Sourav Ganguly

গাঙ্গুলির সাফল্যকে ছাড়িয়ে গেলেন ধোনি

ভারতীয় দলের এই দুর্দান্ত সাফল্য নিয়ে চলছে নানা আলোচনা পর্যালোচনা৷ এটা হঠাৎ করেই হয়নি, বছরের পর বছর ধরে দলটিকে এই পর্যায়ে নিয়ে আসা হয়েছে৷ বিশ্বকাপ জয়ের পর ধোনি এক প্রতিক্রিয়ায় সেটিই জানালেন৷

আজকের ভারতীয় দলের এই সর্বোচ্চ মানের ক্রিকেটের পেছনে চার জনের বিশেষ অবদানের কথা স্বীকার করেন ভারতীয় অধিনায়ক৷ শচীন তেন্ডুলকার, অনিল কুম্বলে, সৌরভ গাঙ্গুলি এবং রাহুল দ্রাবিড়৷ ধোনি বলেন, ১৯৮৩ সালে বিশ্বকাপ বিজয়ের পরই ভারতীয় ক্রিকেটে একটি বড় পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগে৷ মানুষ খেলাটিকে ভালোবাসতে শুরু করে৷ তার কিছুদিন পর আমরা তেন্ডুলকার এবং কুম্বলেকে পাই৷ এরপর ১৯৯৬ সালে গাঙ্গুলি এবং দ্রাবিড়ের আগমনে ভারতীয় ক্রিকেট আরও একধাপ এগিয়ে যায়৷ এই যে ধারাবাহিকভাবে একের পর এক সর্বোচ্চ মানের খেলোয়াড় জন্ম দিয়ে চলেছে ভারতীয় ক্রিকেট, তারই ফলাফল আজ বিশ্বকাপ, এমনটাই মত ধোনির৷

যে চারজনের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করলেন ভারতীয় অধিনায়ক তাদের মধ্যে একজন আজ তারই দলের অংশ৷ দীর্ঘ দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে জাতীয় দলে খেলে আসছেন তেন্ডুলকার৷ ক্রিকেটের প্রায় সব রেকর্ড নিজের হলেও বিশ্বকাপ নিয়ে একটা দুঃখ ছিল লিটল মাস্টারের৷ সেটাও এখন মুছে গেল৷ এখন শুধু অবসরের আগে একটাই লক্ষ্য, শততম সেঞ্চুরি৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন