1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

চাঁদের মাটি খুঁড়তে চায় বাংলাদেশি রোবট!

শিরোনাম দেখে প্রত্যাশা একটু বেশিই মনে হতে পারে৷ ভবিষ্যদ্বাণী হিসেবে হয়তো একথা মানানসই, তবে চাঁদে যাওয়ার ‘‘ভিসা-টিকিট’’ এখনো জোটেনি এই রোবটের৷ আপাতত ‘চন্দ্রোবট’ এর গন্তব্য ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার৷

FILE - In this photo released by NASA shows astronaut Edwin E. Buzz Aldrin Jr. posing for a photograph beside the U.S. flag deployed on the moon during the Apollo 11 mission on July 20, 1969. Aldrin and fellow astronaut Neil Armstrong were the first men to walk on the lunar surface with temperatures ranging from 243 degrees above to 279 degrees below zero. Astronaut Michael Collins flew the command module. The trio was launched to the moon by a Saturn V launch vehicle at 9:32 a.m. EDT, July 16, 1969. They departed the moon July 21, 1969. America had beaten the Soviet Union in the race for moon exploration. (AP Photo/NASA, Neil Armstrong, File) * EDITORIAL USE ONLY * NO SALES *

ফাইল ছবি

খুলেই বলা যাক, বাংলাদেশের ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় একটি আমন্ত্রণ পেয়েছিল নাসা'র কাছ থেকে৷ অসমান চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ধুলোমাটি সংগ্রহের রোবট তৈরির প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ৷ সেই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে কয়েক মাসেই একটি রোবট তৈরি করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী, তাদেরকে সহায়তায় ছিলেন একাধিক ফ্যাকাল্টি অ্যাডভাইজার৷

নাসা'র প্রতিযোগিতার মানদণ্ড অনুযায়ী, রোবটটি হতে হবে দূর-নিয়ন্ত্রিত, মাত্র ১৫ মিনিটে চন্দ্রপৃষ্ঠের কমপক্ষে ১০ কিলোগ্রাম ধুলো মাটি সংগ্রহ করতে হবে এই রোবটকে৷ নাসা এধরনের রোবটের নাম দিয়েছে ‘লুনাবোট'৷ এর আকার-আকৃতি কেমন হবে সেসম্পর্কেও খানিকটা ধারণা দিয়ে দিয়েছে নাসা৷

এবারকার এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বিশ্বের নামজাদা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে বাছাই করা ৪৬টি প্রকল্প৷ এদের মাঝে বাংলাদেশের একমাত্র প্রকল্প ‘চন্দ্রোবট'৷ এই রোবট মিশন সম্পর্কে জানাতে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়৷ কর্তৃপক্ষ জানান, পরিবেশ বান্ধব যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে এই রোবটটি তৈরি করা হয়েছে৷ এতে খরচও খুব বেশি হয়নি৷

এই প্রকল্প প্রসঙ্গে ব্রাকের চেয়ারপার্সন স্যার ফজলে হাসান আবেদ গণমাধ্যমকে জানান, রোবোটিকস একটি কাটিং এজ টেকনোলোজি৷ এই প্রযুক্তির সঙ্গে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততা দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত৷

আগামী ২৩ থেকে ২৮ মে কেনেডি স্পেস সেন্টারে লুনাবোটিকস মাইনিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে৷ এই প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী প্রকল্প পাঁচ হাজার মার্কিন ডলারের স্কলারশিপ পাবে৷ এছাড়া দ্বিতীয়, তৃতীয় অবস্থানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের বিজয়ীদের জন্য আলাদা স্কলারশিপ রয়েছে৷

প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় দল আগামী ২১ মে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন৷ নাসা'র এই আয়োজনে আপাতত ভালো ফল আশা করছে ব্র্যাক দল৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

ইন্টারনেট লিংক