1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

চলে গেলেন ‘সুভদ্র ভিলেন’ ম্যাক মোহন

শোলের সেই বিখ্যাত ‘সাম্ভা’ চলে গেলেন৷ বয়স হয়েছিল একাত্তর৷ দীর্ঘ ছেচল্লিশ বছর ধরে প্রায় একই ধরণের খলনায়ক চরিত্রে পরিচিত হয়ে গিয়েছিলেন তিনি৷

default

অমিতাভ যখন যুবক ছিলেন, প্রায় সব ছবিতেই ভিলেন হিসেবে দেখা যেত ম্যাককেই

আসল নাম ম্যাক মোহন৷ বহু ছবিতেই চরিত্রের নামও হত ম্যাক৷ গালে চাপ দাড়ি, সরু গোঁফ, মাথার লম্বা সোজা চুল বাঁদিকে সিঁথি কেটে একটু পাশ ফিরিয়ে আঁচড়ানো৷ চোখে আধা কালো চশমা৷ পরনে চোঙা প্যান্ট আর কোট৷ গলায় একটা রুমাল থাকতেও পারে কিংবা নাও পারে৷ এই চেহারায় ‘ম্যাক' নামেই অধিকাংশ ছবিতে যে ‘সুভদ্র ভিলেন'কে চিনত দর্শকরা, তাঁর একটা নিজস্ব স্টাইল স্টেটমেন্ট ছিল বলা যায়৷ তবুও শোলের সেই বিখ্যাত সাম্ভা চরিত্রের জন্যই বিপুল জনপ্রিয় ছিলেন ম্যাক মোহন৷

ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন ম্যাক৷ শেষের কিছুদিন কাটিয়ে গেলেন হাসপাতালে৷ মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭১৷ পরিবারে রয়ে গেলেন স্ত্রী মিনি, কন্যা মঞ্জরী৷ ম্যাক মোহনের ভাগ্নী রবিনা ট্যান্ডন বলিউডের আরেক নামজাদা নায়িকা৷ ম্যাকের মৃত্যুতে শোকাহত বলিউড, দর্শকরাও৷

রুপোলি পর্দায় প্রথম আত্মপ্রকাশ ১৯৬৪ সালে ‘হকিকৎ' ছবিতে৷ দীর্ঘ ৪৬ বছর ধরে প্রায় ২০০টি ছবিতে অভিনয় করলেও শোলের সাম্ভা চরিত্রই ছিল ম্যাক মোহনের তুরুপের তাস৷ সাত আর আটের দশকের অসংখ্য ব্লকবাস্টার ছবিতে ম্যাককে পেয়েছেন দর্শকরা৷ তার মধ্যে ‘জঞ্জির', ‘ডন', ‘মজবুর' কিংবা ‘শান'-এর মত মাল্টিস্টারার ছবিও রয়েছে৷ তারপরেও শেষ যে ছবিটিতে অভিনয় করেছেন, সেই ‘লাক বাই চান্স' ছবিতেও ম্যাককে বলতে হয়েছে শোলের সেই সংলাপ৷ শোলে ছবির সেই ভয়ংকর ডাকাত সর্দার গব্বর সিং-এর মাথার দাম কত ঘোষণা করেছে পুলিশ? গব্বররূপী আমজাদ খানের এই প্রশ্নের জবাবে ডাকাত সর্দারের এক নম্বর চ্যালা সাম্ভা, থুড়ি ম্যাক সেখানে একটু খেলিয়ে মুখে একটিপ খৈনি নিয়ে বলেছিল, ‘পুরে পঁচাশ হাজার'৷

এই ‘পুরে পঁচাশ হাজার' কথাটাই হয়ে গিয়েছিল ম্যাক মোহনের জীবনসেরা ফিল্মি ডায়লগ৷ আর সেই ভাবেই তাঁকে চিনত, পছন্দ করত মানুষ৷ এই একইভাবে ম্যাক মোহন থেকে যাবেন দর্শকের স্মৃতিতে৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যপাধ্যয়

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়