1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘গ্রামীণ ব্যাংক বিরোধী কারো হাতে দেশ তুলে দেয়া যায় না'

ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, যারা গ্রামীণ ব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠান ভেঙে টুকরো টুকরো করতে চায় সে ধরণের নেতাদের হাতে দেশ তুলে দেয়া যায় না৷ সেই সঙ্গে গ্রামীণ ব্যাংক রক্ষায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওযার আহ্বান জানান তিনি৷

গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, যাঁরা গ্রামীণ ব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠান ভেঙে টুকরো টুকরো করতে চায় সে ধরণের নেতাদের হাতে দেশ তুলে দেয়া যায় না৷ সেই সঙ্গে গ্রামীণ ব্যাংক রক্ষায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওযার আহ্বান জানান তিনি৷

বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকার গ্রামীণ ব্যাংক ভবনের ইউনূস সেন্টারে ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে শুভেচ্ছা জানাতে যান ভাসানী অনুসারী পরিষদের নেতারা৷ সেই অনুষ্ঠানে ড. মূহাম্মদ ইউনূস কথা বলেন গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে৷ তিনি বলেন, এখন গ্রামীণ ব্যাংক ভেঙে টুকরো টুকরো করতে চান কেউ কেউ৷ একটি কমিশন করে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে৷ কিন্তু এই উদ্যোগ সফল হবে না৷

তিনি বলেন, গ্রামীণ ব্যাংক পৃথিবীর একমাত্র ব্যাংক যে নোবেল পুরস্কার পেয়েছে৷ এই ব্যাংক বাংলাদেশের গরিব মানুষের, বিশেষ করে দরিদ্র মহিলাদের নিয়ে কাজ করে থাকে৷ সারা বিশ্বে গ্রামীণ ব্যাংক নন্দিত৷ তাই কেউ চাইলেও দেশের মানুষের এই প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করতে পারবেনা৷ শুধু বাংলাদেশের নয়, সারা বিশ্বের মানুষ এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন, প্রতিবাদী হয়েছেন এবং হবেন৷

USA - Grameen Bank Muhammad Yunus

‘যারা গ্রামীণ ব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠান ভেঙে টুকরো টুকরো করতে চায় সে ধরণের নেতাদের হাতে দেশ তুলে দেয়া যায় না৷’



ড. ইউনূস বলেন, এ দেশের নারীরা প্রতিবাদী৷ তাঁদের প্রতিষ্ঠানে কেউ হাত দিলে তাঁরাই সেটাকে রক্ষা করবে৷ আমরা সবাই মিলে তাঁদের পাশে দাঁড়াবো৷ তিনি বলেন, যারা এই ধরণের প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করতে চায়, তারা মানুষের কল্যাণ চায় না৷ তারা গরিব মানুষের পক্ষে কাজ করে না৷ এই ব্যাংককে ভেঙে ১৯ টুকরা করতে চায় কেউ কেউ৷ তিনি বলেন, ‘‘যে ব্যক্তি বা নেতা গ্রামীণ ব্যাংক ভেঙে টুকরো টুকরো করতে চায়, ভাঙতে চায় সেই ধরণের ব্যাক্তি বা নেতার হাতে আমারা দেশের দায়িত্ব তুলে দিতে পারি না৷''

ড. মুহাম্মদ ইউনূস গ্রামীণ ব্যাংকের জন্ম কথা এবং তার মহিরুহে পরিণত হওয়ার ঘটনা তুলে ধরে বলেন, ৮৪ লাখ পরিবার গ্রামীণ ব্যাংকের সদস্য৷ তারা এই ব্যাংকের গায়ে একটি আচড়ও লাগতে দেবে না৷

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেন ড. ইউনূস৷ বলেন, ‘‘দেশে এখন প্রতিটি কাজে ঘুস দিতে হয়৷ দুর্নীতি সর্বগ্রাসী হয়ে উঠেছে বাংলাদেশে৷ এমন দেশ আমরা চাইনি৷ তবে আমার বিশ্বাস, দেশের মানুষ অবশ্যই এর পরিবর্তন আনবেন৷''

ভাসানী অনুসারীদের পক্ষে ভাষা সৈনিক আব্দুর মতিন বলেন, যাঁরা আজ গরিবের পক্ষে কথা বলছেন তাঁদের অপমান সইতে হচ্ছে৷ তাঁদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে৷ আব্দুল মতিন বলেন, তাঁরা ড. মুহাম্মদ ইউনূসের মধ্যে মাওলানা ভাসানীর প্রতিচ্ছবি দেখতে পান৷ তাই তাঁরা সবাই মিলে গ্রামীণ ব্যাংককে রক্ষা করবেন৷

এদিকে, যে নেতা গ্রামীণ ব্যাংক ভাঙতে চায় তার হাতে আমরা দেশের দায়িত্ব তুলে দিতে পারি না৷ ড. ইউনূসের এমন মন্তব্য নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম ডয়চে ভেলেকে বলেন, গ্রামীণ ব্যাংক সৃষ্টি করেছেন ড. মুহাম্মদ ইউনূস৷ এটা নিয়ে তিনি চিন্তা করছেন৷ তাই এ নিয়ে মন্তব্য করার কিছু নেই৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়