1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

গ্যালিলিওকে সম্মান জানালো ভ্যাটিকান

মহাবিজ্ঞানী গ্যালিলিও, যিনি প্রথম দাবি করেছিলেন যে পৃথিবী সূর্যের চারদিকে নয়, বরং সূর্যই পৃথিবীর চারদিকে ঘুরছে৷ কিন্তু সেদিন খ্রিষ্টীয় ধর্মগুরুরা মানতে চায়নি তাঁর কথা৷ চারশ বছর পর সেই গ্যালিলিওকে সম্মান জানালো ভ্যাটিকান৷

গ্যালিলিও গ্যালিলি

মহাবিজ্ঞানী গ্যালিলিও গ্যালিলি

গত বৃহস্পতিবার ছিল মহাবিজ্ঞানী গ্যালিলিওর সেই বিশেষ দিনটির চারশ বছরের পূর্তি৷ ১৬১১ সালের ১৪ এপ্রিল এই প্রতিভাধর বিজ্ঞানী তাঁর নিজের আবিষ্কৃত বিশেষ টেলিস্কোপটি সবার সামনে উন্মুক্ত করেন৷ এর মাধ্যমে তিনি ভেঙ্গে দেন খ্রিষ্টীয় ধর্মগুরুদের বহুদিনের ব্যাখ্যা৷ প্রমাণ করেন, যে মহাকাশে যেসব গ্রহ নক্ষত্র রয়েছে তারা পৃথিবীকে কেন্দ্র করে ঘুরছে না, বরং তাদের নিজস্ব কক্ষপথ রয়েছে৷ গ্যালিলিও বৃহস্পতি গ্রহের চারটি উপগ্রহ আবিষ্কার করেন এবং লক্ষ্য করেন যে সেগুলো বৃহস্পতি গ্রহকে কেন্দ্র করেই ঘুরছে৷

গ্যালিলিওর এই নতুন তথ্য তখনকার ক্যাথলিক গির্জার ধর্মগুরুদের ভীষণভাবে অসন্তুষ্টির কারণ হয়ে দাঁড়ায়৷ ধর্মদ্রোহী হিসেবেও তাঁকে আখ্যা দেওয়া হয়৷ কিন্তু পরবর্তীতে গির্জার ধর্মগুরুরা একসময় গ্যালিলিওর সূত্রকে মেনে নিতে বাধ্য হয়৷

LRO Mission

মহাশূন্যের এই অন্তিম রহস্যের উন্মোচনের কাজ করেছেন গ্যালিলিও

গ্যালিলিওকে সম্মান জানাতে গত বৃহস্পতিবার ইটালির রোমের অ্যামেরিকান অ্যাকাডেমিতে আয়োজন করা হয় এক বিশেষ প্রদর্শনীর৷ ঠিক সেই জায়গাটিতেই এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় যেখানে ৪০০ বছর আগে গ্যালিলিও তাঁর টেলিস্কোপটি সকলকে দেখান৷ এই প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছে স্বয়ং ভ্যাটিকান সিটি৷ গ্যালিলিওকে শেষ পর্যন্ত সম্মান দেখাতেই হলো তাদের!

ইটালিতে ১৫৬৪ সালে জন্ম নেওয়া মহাবিজ্ঞানী গ্যালিলিও কেবল জোতির্বিজ্ঞানী ছিলেন না, তিনি ছিলেন একাধারে একজন গণিতবিদ, পদার্থবিদ এবং দার্শনিক৷ ১৬৪২ সালে মারা যান তিনি৷ আধুনিক জ্যোতির্বিজ্ঞান ও আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানের এই জনককে নিয়ে স্টিফেন হকিং এর মন্তব্য, ‘‘ আধুনিক বিজ্ঞানের জন্মদানের জন্য অন্য যে কারোর চেয়ে গ্যালিলিওর অবদান বেশি৷''

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

নির্বাচিত প্রতিবেদন