1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘গোবিন্দ হালদারের দায়িত্ব নাও বাংলাদেশ'

‘পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে', ‘এক সাগর রক্তের বিনিময়ে', ‘মোরা একটি ফুলকে বাঁচাব বলে যুদ্ধ করি' – কালজয়ী এসব গানের রচয়িতা গোবিন্দ হালদারের শারীরিক অবস্থা ভালো নেই৷ মানসিকভাবেও তিনি বিপর্যস্ত৷

কয়েক দিন আগে কালের কণ্ঠ পত্রিকায় এ সংক্রান্ত খবর পড়ে একটি ব্লগ লেখেন কবির য়াহমদ৷ তিনি গোবিন্দ হালদারের দায়িত্ব নিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন৷

কালের কণ্ঠের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ সীমান্তের বাসিন্দা গোবিন্দ হালদার বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় আকাশবাণী কলকাতার কেন্দ্রে বসে একের পর এক লিখে গেছেন কালজয়ী সব গান৷ আর সেসব গান একাত্তরের রণাঙ্গনে মুক্তিসেনাদের রক্তে নাচন ধরিয়েছে৷ উদ্বুদ্ধ করেছে শত্রুসেনাদের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে৷

সেই গোবিন্দ হালদার এখন কিডনি, লিভার, নিউরো, চর্ম ও চোখের সমস্যায় ভুগছেন৷ বাকশক্তিও প্রায় রোহিত হওয়ার পথে৷ এই অবস্থায় নিজের একমাত্র মেয়ে ও তার স্বামীর অত্যাচারে ঘর ছাড়া হতে হয়েছে৷ এখন তিনি বাস করছেন স্ত্রীর বাবার বাড়িতে৷

এই অবস্থায় গোবিন্দ হালদারকে বাংলাদেশে নিয়ে আসতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কবির য়াহমদ৷ তিনি বলেন, ‘‘ইতিহাসের দিকে তাকালে দেখা যায়, গুণী মানুষদের রাষ্ট্রীয় সম্মান জানাবার রেকর্ড বাংলাদেশের রয়েছে৷ বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেননি৷ তিনিও পশ্চিমবঙ্গে জন্মগ্রহণ করেছিলেন৷ বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কাজী নজরুলকে বাংলাদেশে নিয়ে এসে নাগরিকত্ব দিয়েছিলেন৷ তাঁর পরিবারের ভরণপোষণের সার্বিক দায়িত্ব নিয়েছিল রাষ্ট্র৷ ২৪ মে ১৯৭২ সালে ভারত সরকারের অনুমতি নিয়ে কবি নজরুলকে সপরিবারে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়৷ রাষ্ট্রের এই উদ্যোগ শুধু কবিকেই সম্মানিত করেনি, সম্মানিত করেছে বাংলাদেশকেও৷

‘‘বাংলাদেশের সামনে আবার সুযোগ এসেছে আমাদের মুক্তিসংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের বীর কলমসেনানী গীতিকার গোবিন্দ হালদারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে দায়িত্ব নেওয়ার৷ গোবিন্দ হালদারকে বাংলাদেশে নিয়ে এসে রাষ্ট্রীয় দায়িত্বের সঙ্গে সঙ্গে নাগরিকত্ব দিলে রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশ সম্মানিত হবে৷ একই সাথে ঋণ শোধের কিছুটা চেষ্টাও হবে৷ যদিও ঋণশোধ সম্ভব না মোটেও কারণ তাঁর সে অবদান শোধের ঊর্ধ্বে৷''

কবির য়াহমদ মনে করেন, ব্যক্তি পর্যায়ে গোবিন্দ হালদারের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ খুব সীমিত৷ এজন্যে রাষ্ট্রকে এগিয়ে আসতে হবে৷ এর জন্যে দরকার ভারত সরকার এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সাথে কূটনৈতিক যোগাযোগ৷ তিনি বলেন, ‘‘বঙ্গবন্ধু সরকার কাজী নজরুলকে নিয়ে আসতে পেরেছিল, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সরকার কি পারবেন একই ধরনের উদ্যোগ নিতে এবং সফল হতে!''

কবির য়াহমদ-এর এই লেখা সামহয়্যার ইন ব্লগ ছাড়াও আমারব্লগ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ব্লগ প্রিয় ডটকমে প্রকাশিত হয়েছে৷ প্রিয় ডটকমের লেখাটি নিজের ফেসবুকে শেয়ার করেছেন ব্লগার অমি রহমান পিয়াল৷

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন