1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

গৃহহীনদের শীত থেকে বাঁচাতে তৈরি হচ্ছে ‘ছোট ঘর'

জার্মানির কোলন শহরের এক বাসিন্দা তীব্র শীত থেকে গৃহহীনদের বাঁচাতে একটি উদ্যোগ নিয়েছেন৷ তাঁদের জন্য ছোট ছোট ঘর বানাচ্ছেন তিনি৷ ওদিকে কোলন শহর কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, কোলনে চলতি শীতে কাউকে রাস্তায় জমে থাকতে হবে না৷

বড়দিনের আগেই শীতটা বেশ জাঁকিয়ে বসেছে জার্মানিতে৷ তাপমাত্রা ক্রমশ পড়তির দিকে৷ এ রকম অবস্থায় জার্মানির রাস্তাঘাটে জীবন কাটানো তিনলাখের মতো গৃহহীন পড়েছেন মহা মুশকিলে৷ সারাদিন নিজদের উষ্ণ রাখা আর রাতে একটু স্বস্তিতে ঘুমানোর জায়গা পাওয়া তাঁদের জন্য এখন বেশ কঠিন হয়ে উঠেছে তীব্র শীতের কারণে৷

তবে কোলনের এক স্থানীয় আলোকচিত্রী গৃহহীনদের উষ্ণ পরিবেশ দিতে নিজেই মাঠে নেমে পড়েছেন৷ রাস্তার পাশে রাখার উপযোগী ছোট ছোট ঘর বানাচ্ছেন স্ভেন ল্যুডেকে৷ কাঠের তৈরি এ সব ঘরগুলো দাঁড়ানোর মতো উঁচু এবং সেগুলোর মধ্যে ‘ম্যাট্রেস' রাখা যায়৷ ডয়চে ভেলেকে ল্যুডেকে বলেন, ‘‘উদ্দেশ্য হচ্ছে গৃহহীনদের স্বাভাবিক জীবনের কিছুটা ছোঁয়া দেয়া এবং জানানো যে তাঁরা একা নন, আমরা তাঁদের ভুলে যাইনি৷''

গত সেপ্টেম্বরে টেলিভিশনে গৃহহীনদের নিয়ে এক রিপোর্ট দেখার পরপরই তাঁদের সহায়তা করতে মনস্থির করেন ল্যুডেকে৷ প্রতিটি ঘর তৈরিতে পরিবহণসহ খরচ পড়ে সাড়ে আটশ' ইউরোর মতো৷ শুরুতে তিনি একা থাকলেও এখন আরো কয়েকজন ল্যুডেকেকে সহায়তা করছেন৷ তাঁর বাড়ির পেছনের উঠোনে তৈরি করা হয়েছে ছোট ঘরগুলো৷

প্রসঙ্গত, তাঁর এই উদ্যোগ সাড়া জাগালেও প্রয়োজনের তুলনায় এটি বেশ কম৷ কোলনে গৃহহীন মানুষের সংখ্যা পাঁচ হাজারের মতো৷ আর ল্যুডেকের উদ্যোগে এখনো দেড়শ' মানুষও বাড়ি পাননি৷ মোটের উপর, গৃহহীনদের সবাই আবার এরকম ছোট ঘর চানও না৷ কেননা, তাঁরা তাঁদের স্বাধীনতার উপরে কারো হস্তক্ষেপ চান না৷

কোলন শহর কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, সমাজসেবা তখনই সফল হবে যখন কেউ সেটা নিতে রাজি হবে৷ তবে কাউকে সেটা নিতে বাধ্য করা যাবে না৷ শীতে গৃহহীনদের রক্ষায় সরকারি উদ্যোগ রয়েছে বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ৷

কেট ব্রাডি/এআই

বাংলাদেশেও গরিব মানুষদের জন্য এমন বাড়ি কি বানানো যায় না? লিখুন মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়